sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » চীন থেকে টিকা আসতে পারে জুলাইয়ে: পররাষ্ট্র সচিব




টিকা নিয়ে চলতি মাসে চুক্তি হতে পারে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। আগামী জুলাই মাসে চীন থেকে কেনা সিনোফার্মের করোনাভাইরাসের টিকা দেশে আসতে পারে। সেই সঙ্গে টিকা নিয়ে চলতি মাসে চুক্তি হতে পারে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। রোববার (২০ জুন) বিকেলে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান। এদিকে শনিবার (১৯ জুন) থেকে রাজধানীসহ সারাদেশে চীন সরকারের উপহার দেওয়া ১১ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু। এর মাধ্যমে দেশে দ্বিতীয় পর্যায়ের গণটিকাদান শুরু হয়। ঢাকা জেলায় সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হচ্ছে চারটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেগুলো হচ্ছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। শনিবার (১৯ জুন) পর্যন্ত দেশে সিনোফার্মের টিকা নিয়েছেন চার হাজার ৩২০ জন। এদের মধ্যে পুরুষ দুই হাজার ৯১ এবং নারী দুই হাজার ২২৯ জন। এর আগে পরীক্ষামূলকভাবে কিছু সংখ্যক মানুষকে সিনোফার্মের টিকা প্রদান করা হয়। এ পর্যন্ত দেশের আট বিভাগে সিনোফার্মের টিকা নিয়েছেন ছয় হাজার ৫১২ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ তিন হাজার ৬৯১ ও নারী দুই হাজার ৮২১ জন। শনিবার টিকাগ্রহণকারী চার হাজার ৩২০ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে টিকা নেন এক হাজার ২৪৪ জন, ময়মনসিংহে ১৯১, চট্টগ্রামে ৬৫৩, রাজশাহীতে ৪৭৭, রংপুরে ৭৪৮, খুলনায় ৪৮৮, বরিশালে ১৮৬ এবং সিলেট বিভাগে ৩৩৩ জন টিকা নেন। এবার, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে স্বাস্থ্যকর্মী ও পুলিশ সদস্যরা যারা আগে টিকা নেননি, তারা পাবেন। এ ছাড়া অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত বিদেশগামী বাংলাদেশি কর্মীসহ মেডিকেল, ডেন্টাল ও নার্সিং কলেজের শিক্ষার্থীরা এ টিকা পাবেন। প্রথম ডোজের চার সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজের টিকা দেওয়া যাবে। ইতোমধ্যে টিকাকেন্দ্রগুলোর ব্যবস্থাপনা আগের মতো প্রস্তুত রাখার নির্দেশনা দিয়েছে অধিদপ্তর। এ টিকা পর্যায়ক্রমে দেশের সব সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সরকারি জেনারেল হাসপাতাল, জেলা সদর হাসপাতাল এবং ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের নির্দিষ্ট কেন্দ্র থেকে দেওয়া হবে। গত ১২ মে চীন সরকারের উপহারের প্রথম দফার ৫ লাখ ডোজ ঢাকায় আসে। দ্বিতীয় দফায় ১৩ জুন ৬ লাখ ডোজ টিকা বাংলাদেশে আসে। এর আগে দুই দফায় চট্টগ্রামে প্রায় ৮ লাখ টিকা এসেছিল। আগে আসা টিকাগুলো ছিল অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা কোভিশিল্ড দিয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে সারা দেশে গণটিকাদান শুরু হয়।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply