Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » চ্যাম্পিয়ন পর্তুগালকে বিদায় দিল এক নম্বর বেলজিয়াম




শিরোপা ধরে রাখা হলো না পর্তুগালের। দ্বিতীয়ার্ধে একচেটিয়া প্রাধান্য দেখিয়েও বিদায় নিতে হলো ইউরোর বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। সেভিয়ায় বিশ্বের এক নম্বর দল বেলজিয়ামের কাছে ১–০ গোলে হেরে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পর্তুগাল। ৪২ মিনিটে থরগান হ্যাজার্ডের অসাধারণ এক গোল জিতিয়েছে বেলজিয়ামকে। কোয়ার্টার ফাইনালে ইতালির বিপক্ষে খেলবে বেলজিয়ানরা। প্রথমার্ধের শেষে চোট পেয়েছিলেন বেলজিয়ামের কেভিন ডি ব্রুইনা। বিরতির পর মাঠে নামলেও তিন মিনিটের মধ্যেই উঠে যেতে হয় ম্যানচেস্টার সিটি তারকাকে। এরপর ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ পুরোপুরি নিয়ে নেয় পর্তুগাল। কিন্তু আসল কাজ গোলটাই করতে পারেনি দলটি। বিজ্ঞাপন তাতে আন্তর্জাতিক ফুটবলে সবচেয়ে বেশি গোলের একক মালিক হতে অপেক্ষাটা বাড়ল রোনালদোর। বেলজিয়াম গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া বাধা হয়ে না দাঁড়ালে আলী দাইয়িকে আজই পেছনে ফেলতে পারতেন সিআর সেভেন, ম্যাচের ভাগ্যও তাতে হয়তো বদলে যেত। সেভিয়ার লা কারতুহা স্টেডিয়ামে ২৫ মিনিটে রোনালদোর ফ্রিকিকটা ডানে ঝাপিয়ে রুখে দেন কোর্তোয়া। ফিরতি বলটা চলে যায় কাছেই দাঁড়ানো জোয়াও পালিনিয়ার কাছে। কিন্তু পর্তুগিজ মিডফিল্ডারের দুর্বল হেড আবার চলে যায় কোর্তোয়ার হাতে। মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন কেভিন ডি ব্রুইনা। মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন কেভিন ডি ব্রুইনা।ছবি: রয়টার্স পুরো ম্যাচের গল্পটাই এমন—পর্তুগালের একের পর এক সুযোগ নষ্ট করা। ম্যাচ শুরুর ৬ মিনিটেই প্রথম সুযোগটা দিয়োগো জোতা। রেনাতো সানচেস দারুণ একটা পাস দিয়েছিলেন ফাঁকায় দাঁড়ানো জোতাকে। যথেষ্ট সময় পেলেও বলটিকে শুধু বাইরে পাঠাতে পারেন লিভারপুল ফরোয়ার্ড। বিজ্ঞাপন প্রথমার্ধে থরগান হ্যাজার্ডের গোলের আগে শুধু একবারই বেলজিয়ান–ঝলক দেখিয়েছিলেন রোমেলু লুকাকু। ৩৮ মিনিটে ইন্টার মিলান স্ট্রাইকার দারুণ এক দৌড়ে প্রায় এলোমেলো করে দিয়েছিল পর্তুগিজদের। লুকাকুর ওই দৌড়ের চার মিনিট পরেই আসে সেই মুহূর্ত। পর্তুগিজ বক্সের বাইরে বল পেয়ে টমাস মুনিয়ের পাস দেন বাঁ পাশে থরগান হ্যাজার্ডকে। দ্রুত দুটি স্পর্শে জায়গা বানিয়ে বাতাসে ভাসানো বাকানো শটে দারুণ এক গোল পেয়ে যান থরগান হ্যাজার্ড। পর্তুগাল গোলরক্ষক রুই প্যাত্রিসিওর এই গোল ঠেকানোর উপায় ছিল না।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply