sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » বলিউড সেলিব্রিটিদের বিয়েবিচ্ছেদের অজানা রহস্য




বলিউড সেলিব্রিটিদের বিয়েবিচ্ছেদের অজানা রহস্য বলিউড তারকারা বিয়ে করেন বেশ ধুমধাম করেই। ইন্ডাস্ট্রির নামজাদা তারকাদের কাছে নিমন্ত্রণপত্রও পৌঁছে যায়। কোটি কোটি টাকা খরচ করে হয় বিয়ে। অনুগামীরা নিজেদের পছন্দের তারকাদের বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার সৌভাগ্য অর্জন করতে না পারলেও খুশি কিন্তু কোনো অংশে কম হন না। তবে তাদের মধ্যে বিয়েবিচ্ছেদও কিন্তু ভীষণ পরিমাণে লক্ষ্য করা যায়। কখনও বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে, কখনও দাম্পত্য কলহ, কখনও মনের মিল না হওয়া এরূপ একাধিক কারণ উঠে এসেছে সেলিব্রিটি কাপলদের বিয়েবিচ্ছেদের পেছনে। বলিউডের জনপ্রিয় কিছু সেলিব্রিটি কাপলদের বিয়েবিচ্ছেদের কারণ জেনে নিন। ১) হৃত্বিক রোশন ও সুজান খান: বলিউডে একসময়ের পারফেক্ট জুটি ছিলেন হৃত্বিক এবং সুজান। একে অপরকে ভালোবেসে তারা গাঁটছড়া বেঁধে ছিলেন ২০০০ সালে। প্রেম এবং বিয়ের দীর্ঘ ১৭ বছরের সম্পর্ক তারা ছিন্ন করেন ২০১৩ সালে। এই জুটির বিয়েবিচ্ছেদ সবাইকে অবাক করে ছিল। তবে এই জুটির বিচ্ছেদের সঠিক কারণ সবারই অজানা। তবে গতবছর ‘ফেমিনা’র সাক্ষাৎকারে সুসেন জানান, ‘আমরা সম্পর্কের এমন পর্যায় পৌঁছে গিয়েছিলাম, সেখানে আমি উপলব্ধি করেছিলাম এই সম্পর্ক থেকে এবার বের হওয়া উচিত। একটা মিথ্যা সম্পর্কে থাকার থেকে না থাকাই হয়তো ভালো’। ২) কারিশমা কাপুর ও সঞ্জয় কাপুর: অভিনেত্রী কারিশমা ২০০৩ সালে বিবাহ করেছিলেন শিল্পপতি সঞ্জয় কাপুরকে। এই দম্পতি ২০১৩ সালে বিচ্ছেদ ফাইল করেন। তবে এই জুটির বিয়েবিচ্ছেদের কারণ নিয়ে একাধিক মন্তব্য শোনা যায়। কেউ বলে সঞ্জয় বিভিন্ন মহিলাদের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করেছিলেন। আবার কেউ বলে কারিশমা স্ত্রী, মা এবং বউমা হিসেবে ব্যর্থ ছিলেন। ২০১৬ সালে তাদের বিচ্ছেদ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

৩) মালাইকা আরোরা ও আরবাজ খান: মালাইকা আরোরা এবং আরবাজ খানের বিচ্ছেদ ছিল বলিউডের অন্যতম চর্চিত বিচ্ছেদ। একটি কফির বিজ্ঞাপন করার সময় দুজনের পরিচয় হয়েছিল। তারা প্রেমে পড়েন এবং ১৯৯৮ সালে বিয়ে করেন। এ জুটি সুদীর্ঘ বছরের বিবাহিত জীবনের ইতি টেনেছেন ২০১৭ সালে। শোনা যায়, দুজনের মতবিরোধ এবং আরবাজের অর্থনৈতিক অস্থিরতা তাদের বিয়েবিচ্ছেদের কারণ। বিচ্ছেদের পর মালাইকা অর্জুন কাপুরের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন। ৪) অমৃতা সিং ও সাইফ আলি খান: অমৃতা সিং এবং সাইফ আলি খানের বিবাহ ছিল একটু ভিন্ন স্বাদের। তাদের ধর্ম আলাদা হওয়ার পাশাপাশি ছিল বয়সের বিস্তর ফারাক। অমৃতা ১৩ বছরের বড় ছিল সাইফের থেকে। অমৃতা বিবাহের জন্য শিখ ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন। ১৯৯১ সালে তারা প্রেম করে বিয়ে করেন। ১৩ বছর একসঙ্গে থেকে তারা বিচ্ছেদের সিদ্ধন্ত নেন। ২০০৪ সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়। শোনা যায়, সাইফের বিবাহবহির্ভূত একাধিক সম্পর্কের জন্যই তাদের বিয়েবিচ্ছেদ ঘটে। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সাইফ। ২০১২ সালে সাইফ দ্বিতীয় বিবাহ করেন করিনা কাপুরকে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply