Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » খুলনায় আরও ২৭ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১২০১




খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিভাগে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে আরও ১ হাজার ২০১ জন। এর আগে বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) সর্বোচ্চ ৩৯ জনের মৃত্যুর রেকর্ড গড়েছিল খুলনা বিভাগ। এ নিয়ে করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে আজ শুক্রবার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছেন ৫৮ হাজার ৭২১ জন। আর আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ১৩৬ জন। খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনায় ৯ জন, বাগেরহাটে ১ জন, যশোরে ২ জন, নড়াইল ১ জন, ঝিনাইদহে ৩ জন, কুষ্টিয়ায় ৭ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৩ জন ও মেহেরপুরে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ২২৩ জন। যা নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত ১৬ হাজার ১৬৩ জন। এর মাঝে মারা গেছেন ২৭৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ৯০ জন। বাগেরহাটে নতুন শনাক্ত ৯২ জন। মোট শনাক্ত ৩ হাজার ৫১৩ জন। মারা গেছেন ৮৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৫২৯ জন। সাতক্ষীরায় নতুন শনাক্ত ৪৯ জন। মোট শনাক্ত ৩ হাজার ৪৩৫ জন এবং মারা গেছেন ৭৪ জন। এ সময় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৫৯১ জন। যশোরে শনাক্ত হেয়েছেন আরও ২৮০ জন। মোট শনাক্ত ১২ হাজার ৫১০ জন। মারা গেছেন ১৫৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭ হাজার ৪৭০ জন। নড়াইলে নতুন শনাক্ত ৭৫ জন। মোট শনাক্ত ২ হাজার ৭৬৪ জন। মারা গেছেন ৪৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৭৫জন। মাগুরায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৬ জন শনাক্ত হয়েছেন। মোট শনাক্ত ১ হাজার ৫৮১ জন। মারা গেছেন ২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২৯০ জন। ঝিনাইদহে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ১৩২ জন। মোট শনাক্ত ৪ হাজার ৪৪২ জন। মারা গেছেন ৯৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৫৫ জন। কুষ্টিয়ায় নতুন শনাক্ত ১৩৭ জন। মোট শনাক্ত ৮ হাজার ৪৯ জন। মারা গেছেন ২২৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ৬৭৭ জন। চুয়াডাঙ্গায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৯৪ জন। মোট শনাক্ত ৩ হাজার ৪০৫ জন। মারা গেছেন ৯৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৩০১ জন। মেহেরপুরে নতুন শনাক্ত ৭৩ জন। মোট শনাক্ত ১ হাজার ৮৮১ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২৭৬ জন। এই নিয়ে এই বিভাগে মোট শনাক্ত ৫৭ হাজার ৫২০ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ১৩৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩৯ হাজার ৩৫৪ জন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply