sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » পর্দা উঠলো কান উৎসবের




সব প্রতিকূলতা কাটিয়ে জাঁকজমপূর্ণ আয়োজনে আবারও শুরু হলো কান চলচ্চিত্র উৎসব। দুই বছরেরও বেশি সময় পর পালে দে ফেস্টিভাল চত্বরে বসলো মোহনীয় লালগালিচা। সিনেমা ও রুপালি পর্দার পুনর্মিলন ঘটলো ভূমধ্যসাগরের তীরে। কোভিড পরিস্থিতির পর সশরীরে তারকা ও দর্শক উপস্থিতিতে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় আয়োজন এটাই। বিশ্ব চলচ্চিত্রের তীর্থভূমি দক্ষিণ ফরাসি উপকূলীয় শহরে ৬ জুলাই সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ২৫ মিনিট) ৭৪তম কান উৎসবের পর্দা উঠেছে। পালে দে ফেস্টিভাল ভবনের গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরের মঞ্চে উদ্বোধন ঘোষণা করেন দক্ষিণ কোরিয়ার পরিচালক বঙ জুন হো। ২০১৯ সালে স্বর্ণ পাম জয়ের পর গত বছর অস্কারে সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার পেয়ে ইতিহাস গড়ে তার ‘প্যারাসাইট’। উদ্বোধনী আয়োজন সঞ্চালনা করেছেন ফরাসি অভিনেত্রী দোরা তিলিয়ের। তার আগে লালগালিচায় পা মাড়িয়েছেন মূল প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকরা। এবারের আয়োজনে তাদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন আমেরিকার কৃষ্ণাঙ্গ পরিচালক স্পাইক লি। আগামী ১৭ জুলাই উৎসবের সমাপনীতে তিনিই স্বর্ণ পাম জয়ী ছবির নাম ঘোষণা করবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মানসূচক স্বর্ণ পাম পেয়েছেন আমেরিকান অভিনেত্রী জোডি ফস্টার। তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন স্প্যানিশ পরিচালক পেদ্রো আলমোদোভার। উদ্বোধনী মঞ্চে স্পাইক লি’র নেতৃত্বে ছিলেন সেনেগালিজ-ফরাসি পরিচালক মাতি দিওপ, কানাডিয়ান-ফরাসি সংগীতশিল্পী মিলেন ফারমা, আমেরিকান অভিনেত্রী ম্যাগি জিলেনহাল, অস্ট্রিয়ার পরিচালক জেসিকা হাউসনা, ফরাসি অভিনেত্রী মেলানি ল্যঁহো, ব্রাজিলিয়ান পরিচালক ক্লেবার মেনদোনচা ফিলিও, ফরাসি অভিনেতা তাহের রহিম এবং দক্ষিণ কোরিয়ার অভিনেতা সঙ কাঙ-হো। আজ দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন মূল প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকরা। গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে উদ্বোধনের আনুষ্ঠানিকতার পর দেখানো হয় ৭৪তম কান উৎসবের উদ্বোধনী ছবি ‘অ্যানেট’। এটি প্রখ্যাত ফরাসি পরিচালক লিও ক্যারাক্সের ষষ্ঠ ও ইংরেজি ভাষার প্রথম চলচ্চিত্র। আমেরিকার রন ও রাসেল মায়েল ভ্রাতৃদ্বয় এর চিত্রনাট্য লিখেছেন। সমকালীন লস অ্যাঞ্জেলসের পটভূমিতে নির্মিত সংগীতনির্ভর ছবিটির গল্প হেনরি ও অ্যান দম্পতিকে ঘিরে। হেনরি রসিক স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান আর অ্যান আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন গায়িকা। আপাতদৃষ্টিতে তারা পরিপূর্ণ, সুখী ও আকর্ষণীয় যুগল। প্রথম সন্তান অ্যানেট অন্যরকম এক উপহার নিয়ে জন্মের পরই হেনরি-অ্যানের জীবন বদলে যায়। মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে স্বর্ণ পামের জন্য লড়ছে এই চলচ্চিত্র। হেনরি ও অ্যানের ভূমিকায় আছেন যথাক্রমে আমেরিকান অভিনেতা অ্যাডাম ড্রাইভার ও ফরাসি অভিনেত্রী মারিয়ন কতিয়াঁ। এর অন্যতম প্রযোজক অ্যাডাম ড্রাইভার। মঙ্গলবার দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে পালে দে ফেস্টিভাল ভবনে ফটোকলে অংশ নেন এই দুই তারকা। একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন বেলজিয়ান গায়িকা অ্যাঞ্জেল






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply