sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ছিলেন আফগানিস্তানের যোগাযোগ মন্ত্রী থেকে ডেলিভারিম্যান!




মন্ত্রী থেকে ডেলিভারিম্যান! এক বছর আগেও ছিলেন মন্ত্রী, এখন করেন ডেলিভারিম্যানের কাজ। ছিলেন আফগানিস্তানের যোগাযোগ

এক বছরের ব্যবধানে তিনি এখন ডেলিভারি ম্যান! আফগানিস্তানের সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সায়েদ সাদাত রাজনীতি থেকে অবসর নিয়ে রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়েছেন জার্মানিতে। সেখানেই জীবন রক্ষায় আর পেটের তাগিদে বেছে নিয়েছেন পণ্য ডেলিভারির পেশা। তিনি বলছেন, মন্ত্রী মানেই দুর্নীতি করে দামি গাড়ি-বাড়ি করা নয়, যে কোন কাজ করে খাওয়াটাই মূল প্রশান্তি। সায়েদ সাদাতাকে দেখে বোঝার উপায় নেই যে এক বছর আগেও তিনি ছিলেন একটি দেশের মন্ত্রী। গত বছরের সেপ্টেম্বরে আফগানিস্তানের মন্ত্রীত্ব থেকে অবসর নিয়ে জার্মানিতে রাজনৈতিক আশ্রয় নেন তিনি। সেখানে এখন ডেলিভারি ম্যান হিসেবে যোগ দিয়েছেন একটি প্রতিষ্ঠানে। তিনি বলেন সৎ পথে যেকোন কাজই সম্মানের। পরিশ্রমের টাকায় প্রশান্তি আছে উল্লেখ করে তিনি রাজনীতিবিদদের দুর্নীতিমুক্ত থাকার আহ্বান জানান। কোন কাজই আমার কাছে ছোট নয়। আমি মন্ত্রী ছিলাম তাতে কী? সৎ পথে উপার্জন ও বেঁচে থাকার জন্য আমি যেকোনো কাজই করতে পারি। আমি মনে করি প্রত্যেকে রাজনীতিবিদের প্রধান কাজ দুর্নীতি নয়, জনগণের সেবা করা। তথ্য প্রযুক্তিতে পড়ালেখা করা সাবেক এই মন্ত্রী চাকরি করতে চান টেলিকম খাতে। এ জন্য প্রতিদিন কাজে যাওয়ার আগে একটি প্রতিষ্ঠানে চার ঘণ্টা করে শিখছেন জার্মান ভাষা। আফগানিস্তানের সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সায়েদ সাদাত বলেন, মন্ত্রী থাকার অবস্থায় আমি কোনো দুর্নীতি করিনি। আমার কোটি কোটি টাকা নেই, গাড়ি নেই, হোটেল ব্যবসা নেই, এমনকি দুবাইতে বাড়িও নেই। আমি আমার কাজ নিয়ে গর্বিত। আমার কোন সংকোচ নেই। প্রবাস জীবনেও দেশের ভবিষ্যত নিয়ে ভাবাচ্ছে সাবেক এই মন্ত্রীকে। তিনি মনে করেন যদি বিদেশিরা তালেবানকে সমর্থন দিয়ে সহযোগীতা অব্যহত রাখে তাহলে শান্তি ফিরে আসবে আফগানিস্তানে। কেটে যাবে অর্থনৈতিক সংকটও।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply