sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » জেলায় জেলায় গণটিকাদান কার্যক্রম শুরু




জেলায় জেলায় গণটিকাদান কর্মসূচি নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে দেশব্যাপী গণটিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে আজ শনিবার। এর আগে গণটিকাদান কর্মসূচি ঘোষণার সময় এক কোটি মানুষকে টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে বলে জানানো হয়েছিল। তবে, বর্তমানে সেই সংখ্যা কমিয়ে ৩২ লাখে নিয়ে আসা হয়েছে। এ ছাড়াও এর আগে বলা হয়েছিল, ১৮ বছর থেকে তদূর্ধ্ব বয়সীদের টিকাকরণের আওতায় নিয়ে আসা হবে। তবে, ছয় দিনব্যাপী বর্তমান কর্মসূচিতে ২৫ বছর এবং এর বেশি বয়সীরা টিকা পাবেন বলে জানানো হয়েছে। বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস্ অ্যান্ড সার্জনস (বিসিপিএস)-এর সভাকক্ষে গতকাল শুক্রবার আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশীদ আলম বলেছিলেন, ৭ আগস্ট সারা দেশে সব ইউনিয়ন, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশন এলাকায় টিকা কার্যক্রম শুরু হবে। ইউনিয়ন ও পৌরসভার বাদ পড়া ওয়ার্ডে ৮ ও ৯ আগস্ট টিকা কার্যক্রম চলবে। ১০ ও ১২ আগস্ট জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের জনগোষ্ঠীর ৫৫ বছরের বেশি বয়সীদের জন্য করোনার টিকা কার্যক্রম চলবে। স্বাস্থ্যের ডিজি জানান, যাঁরা আগে রেজিস্ট্রেশন করেছেন, তাঁরা যেখানে কেন্দ্র নির্ধারণ করেছেন, সেখানে টিকা নেবেন। ক্যাম্পেইনের টিকাদান আলাদাভাবে পরিচালিত হবে। ঢাকার বাইরে থেকে আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর : নাফিজ আশরাফ, নারায়ণগঞ্জ : সিটি কপোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডে চলছে টিকা কার্যক্রম। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সকালে সিটি করপোরেশনের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের আব্দুল আজিজ বিদ্যানিকেতনে মডার্নার টিকার প্রথম ডোজ দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হয়। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে ৮১টি টিকাদানকেন্দ্র স্থাপনের কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত প্রতি ওয়ার্ডে একটি করে মোট ২৭টি কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। প্রতিটি ওয়ার্ডের বাসিন্দারা জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করার পর টিকার প্রথম ডোজ নিতে পারছেন। সিটি করপোরেশনের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লা জানান, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আজ থেকে আগামী ৯ আগস্ট পর্যন্ত টিকা দেওয়ার কার্যক্রম চলবে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত। সবাই ওয়ার্ডভিত্তিক টিকা নেওয়ায় আগ্রহী। টিকা নেওয়ার পর টিকা গ্রহণকারীরা জানান, হাসপাতালে টিকা দিতে গেলে প্রচণ্ড ভিড় থাকে। সরকারকে সাধুবাদ, প্রতিটি ওয়ার্ডে টিকা কার্যক্রমের ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য। দেওয়ান গিয়াস চৌধুরী, সুনামগঞ্জ : সকালে গণটিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। সুনামগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে শহরের বুলচান্দ উচ্চ বিদ্যালয়ে মসজিদের ঈমাম হাফিজ আতাউর রহমান লস্করকে প্রথম টিকা দিয়ে কার্যক্রমের উদ্‌বোধন করা হয়। সুনামগঞ্জে চলছে গণটিকাদান কর্মসূচি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়নাল আবেদীন, সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) এজাজুল ইসলাম প্রমুখ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জ পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ডে এবং সুনামগঞ্জের ৮৮টি ইউনিয়নে ৯৭টি টিকাদান কেন্দ্র প্রস্তুত করে শনিবার সকাল ৯টা থেকে একযোগে গণটিকা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। পুরো সুনামগঞ্জ জেলায় মোট ৫৪ হাজার ৬০০ জনকে করোনার টিকা দেওয়া হবে। জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘সুনামগঞ্জ জেলায় আজ গণটিকা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। নারী, প্রতিবন্ধী ও বয়স্কদের আজ টিকা দেওয়া হবে। এখানে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবে না। কারণ যাঁরা টিকা নেবেন, আগের দিন আমরা তাঁদের টোকেন দিয়ে দিয়েছি। তাঁরা সেই টোকেন নিয়ে টিকাকেন্দ্রে আসবেন। এ ছাড়া সব উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, সবাই যেন টিকার আওতায় আসেন, সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে এবং সবাইকে টিকাকেন্দ্রে নিয়ে আসতে হবে।’ নাসির আহমেদ, গাজীপুর : গাজীপুরে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সকালে শুরু হয়েছে গণটিকাদান কর্মসূচি। সিভিল সার্জন ডা. মো. খাইরুজ্জামান জানিয়েছেন, গাজীপুর জেলার পাঁচটি উপজেলা, তিনটি পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনের ৫৭টি ওয়ার্ডে সকাল ৯টা থেকে এই টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। প্রথম দিন দেওয়া হচ্ছে টিকার ৮০ হাজার ডোজ। গাজীপুরে গণটিকাদান কর্মসূচির প্রথম দিন দেওয়া হচ্ছে টিকার ৮০ হাজার ডোজ আহমেদ সাব্বির সোহেল, মানিকগঞ্জ : জেলার ৬৫টি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে গণটিকাদান কর্মসূচির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সকাল ৯টায় সদর উপ‌জেলার গড়পাড়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চত্বরে স্থানীয় চেয়ারম্যান আফছার উদ্দিন সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন উপস্থিত থে‌কে এই টিকাদান কর্মসূচির উদ্‌বোধন করেন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. লুৎফর রহমান। মানিকগঞ্জের ৬৫টি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে গণটিকাদান কর্মসূচির কার্যক্রম চলছে। টিকাদান প্রসঙ্গে গড়পাড়া ইউপির চেয়ারম্যান আফসার উদ্দিন সরকার বলেন, ‘করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষা পেতে ইউনিয়ন পর্যায়ে গণটিকাদান কার্যক্রম সরকারের একটি মহতি উদ্যোগ। গ্রামের সাধারণ মানুষ বিনামূল্যে এই করোনার টিকা পেয়ে খুবই খুশি ও আনন্দিত। আমরা শুরুতে ইউনিয়নের ৫০ বছরের বেশি বয়সীদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এই টিকা দিচ্ছি।’ আজ ৬০০ জন ব্যক্তিকে টিকা দেওয়া হবে বলে জানান তিনি। গণটিকাদান কর্মসূচিতে অন্যদের মধ্যে গড়পাড়া ইমামবাড়ীর পীর সাহেব শাহাজাদা রহমান বাধন, গড়পাড়া ইউনিয়নের ট্যাগ অফিসার মো. তাইফুর রহমান, গড়পাড়া ইউপির সচিব সায়েদুর রহমান এবং ইউনিয়নের সব ওয়ার্ডের সদস্য ছাড়াও গ্রাম পুলিশের সদস্যেরা উপস্থিত ছিলে






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply