sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ‘মাসুদ রানা’র অন্যতম লেখক শেখ আবদুল হাকিম আর নেই




মাসুদ রানা সিরিজের জনপ্রিয় লেখক ও অনুবাদক শেখ আবদুল হাকিম আর নেই। রাজধানীর মাদারটেকের বাসায় আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। আবদুল হাকিমের বড় মেয়ে সাজিয়া হাকিম এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘দুপুর ১টার দিকে তাঁকে হাসপাতালে নেওয়ার চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু, হাসপাতালে নেওয়ার আগেই তিনি মারা যান। তিনি ব্রঙ্কাইটিসে আক্রান্ত ছিলেন।’ সেবা প্রকাশনীর জনপ্রিয় স্পাই থ্রিলার ‘মাসুদ রানা’ সিরিজের ২৬০টির মতো বইয়ের লেখক আবদুল হাকিম। তবে, সিরিজের নিয়ম অনুযায়ী প্রকাশ হয়েছে মাসুদ রানা চরিত্রের স্রষ্টা কাজী আনোয়ার হোসেনের নামে। ‘মাসুদ রানা’ ছাড়াও রোমান্টিক, অ্যাডভেঞ্চার-সহ নানান স্বাদের বই উপহার দিয়েছেন আবদুল হাকিম। গত বছর ‘মাসুদ রানা’র ২৬০টি বইয়ের কপিরাইট স্বত্ব নিয়ে আলোচনায় আসেন তিনি। ওই সময় কপিরাইট অফিস তাঁর পক্ষে রায় দিলেও কাজী আনোয়ার হোসেনের আপিলের পর বিষয়টি বিচারাধীন রয়েছে। ‘ধ্বংস পাহাড়’ দিয়ে শুরু হওয়া ‘মাসুদ রানা’ সিরিজের ৪৬০টির মতো বই প্রকাশ হয়। এর মধ্যে ২৬০টি শেখ আবদুল হাকিম লিখলেও তাঁর নামে স্বত্ব রয়েছে মাত্র একটি। অন্যদিকে, তিনি ‘কুয়াশা’ সিরিজের ৫০টি বইয়ের লেখক বলেও কপিরাইট আইন মামলায় জিতেছেন। এই সিরিজের মাত্র ছয়টির স্বত্ব তাঁর নামে রয়েছে। ১৯৬০-এর দশকের মাঝামাঝিতে সেবার আরেক সিরিজ ‘কুয়াশা’র দশম কিস্তি দিয়ে প্রকাশনীটির সঙ্গে যুক্ত হন শেখ আবদুল হাকিম। অবশ্য এর আগেই লিখে ফেলেন নিজের প্রথম উপন্যাস ‘অপরিণত প্রেম’। সেবার সঙ্গে প্রায় চার দশক যুক্ত ছিলেন শেখ আবদুল হাকিম। সেবা প্রকাশনীর মাসিক ‘রহস্য পত্রিকা’র সহকারী সম্পাদক হিসেবে যুক্ত ছিলেন অনেক বছর। শেখ আবদুল হাকিমের প্রকাশিত বইয়ের মধ্যে রয়েছে—‘টেকনাফ ফর্মুলা’, ‘জুতোর ভেতর কার পা’, ‘জল দাও জল’, ‘মুঠোর ভেতর তেলেসমাতি’, ‘ঋজু সিলেটীর প্রণয়’, ‘আতংক’, ‘সোমালি জলদস্যু, আইডিয়া’, ‘তিতলির অজানা’, ‘লব্ধ সৈকত’, ‘জ্যান্ত অতীত’, ‘তাহলে কে?’, ‘চন্দ্রাহত’, ‘সোনালি বুলেট’, ‘কামিনী’ ইত্যাদি। এ ছাড়া কয়েক খণ্ডে প্রকাশ হয়েছে ‍উপন্যাস সমগ্র। আবদুল হাকিমের অনুবাদ গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে—এরিক মারিয়া রেমার্কের ‘দ্য ব্ল্যাক অবিলিস্ক’, ‘অল কোয়ায়েট অন দ্য ওয়েস্টার্ন ফ্রন্ট’, ভিক্টর হুগোর ‘দ্য ম্যান হু লাফস’, জুলভার্নের ‘আশি দিনে বিশ্বভ্রমণ’, মার্ক টোয়েনের ‘দ্য অ্যাডভেঞ্চারস অব হাকলবেরি ফিন’, মেরি শেলির ‘ফ্রাঙ্কেনস্টাইন’, আলেকজান্ডার দ্যুমার ‘থ্রি মাস্কেটিয়ার্স’, ডগলাস ফ্রাঞ্জ ও ক্যাথেরিন কলিন্সের ‘দ্য ম্যান ফ্রম পাকিস্তান : নিউক্লিয়ার স্মাগলার আবদুল কাদির খান’ এবং কেন ফলেটের ‘দ্য ম্যান ফ্রম সেন্ট পিটার্সবার্গ’-এর বাংলা ‘আততায়ী’। ১৯৪৬ সালে পশ্চিমবঙ্গের হুগলিতে শেখ আবদুল হাকিমের জন্ম। ব্রিটিশ ভারত ভাগ হলে চার বছর বয়সে পরিবারের সঙ্গে পূর্ব পাকিস্তানে চলে আসেন তিনি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply