sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » হোটেল, পানীয় আর জুয়ার মোহনীয় এক শহর




বিশ্বের সবচেয়ে বড় হোটেলগুলোর মধ্যে প্রায় ২০টির অবস্থান যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে। বিস্ময়ের হলেও সত্য যে, এই নগরীতে সর্বমোট যে কয়টি হোটেল আছে তা সম্পূর্ণ ঘুরে দেখতে হলে একজন মানুষের সময় লাগবে বহু দিন! হোটেল, পানীয় আর জুয়ার মোহনীয় এক শহর ভেগাসে যারা নিয়মিত জুয়া খেলেন তাদের জন্য বিনামূল্যে নামিদামি হোটেলে আমোদ করা, খাবার-পানীয় এমনকী বিশেষ পরিবহনের ব্যবস্থা থাকে। অন্যদের জন্য হোটেল ও খাওয়া ব্যাপক ব্যয়বহুল। এটি নির্ভর করে ভ্রমণ সময়ের ওপর। নিউইয়র্ক আর শিকাগোর মাফিয়ারা মিলে গড়ে তুলেছেন নেভাদার লাস ভেগাস। পরবর্তীতে পর্যটক টানতে মাফিয়ারা হলিউড তারকাদের আমন্ত্রণ জানান। এই সুযোগেই তৎকালীন বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই মাফিয়া দল বের করে ফেলে অর্থ পাচারের নতুন নতুন উপায়। আর এভাবেই অর্থ পাচার, মদ, জুয়া নানা অবৈধ কাজ এখানে হয়ে পড়ে বৈধ। এখানকার আকাশচুম্বী ক্যাসিনোওয়ালা হোটেলগুলোতে প্রতিবছর যুক্তরাষ্ট্রের বড় বড় বাণিজ্যিক সম্মেলনও হয়ে থাকে। যার সংখ্যা প্রায় ২২ হাজারের বেশি। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় হোটেলগুলোর মধ্যে কমপক্ষে ২০টির অবস্থান ভেগাসে। আরও পড়ুন: মালয়েশিয়া-প্রবাসীদের-জন্য-দূতাবাসের-হটলাইন-চালু এখানকার বড় বড় হোটেলগুলো তৈরি হয়েছে বিভিন্ন থিমকে ঘিরে। এই নগরীতে যে কয়টি হোটেল আছে তা সম্পূর্ণ ঘুরে দেখতে হলে একজন মানুষের অনেক সময় লেগে যাবে। এই মোহনীয় শহরে জুয়া খেলে স্বর্বশান্ত হওয়ার ঘটনা যেমন সত্যি তেমনি এই জুয়া খেলেই নিজের ডুবন্ত নৌকা পাড়ে তুলেছেন অনেকে। আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন কোম্পানি ফেডেক্সের প্রতিষ্ঠাতা ফ্রেডরিখ স্মিথ মাত্র ৫ হাজার ডলার নিয়ে লাস ভেগাসে এলেও ২৭ হাজার ডলার জিতে ফেরেন তিনি। ভেগাসে সব মানুষই যে জুয়া কিংবা ক্যাসিনো খেলতে আসেন এমনটা কিন্তু না। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে মোট পর্যটকের মাত্র ১৭ শতাংশ জুয়া বা ক্যাসিনোর উদ্দেশে আসেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply