Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » ওয়ার্নারের ব্যাটে শ্রীলংকাকে বড় ব্যবধানে হারাল অস্ট্রেলিয়া




এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শিরোপার অন্যতম দাবিদার অস্ট্রেলিয়া। গত সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশের কাছে ৪-১ ব্যবধানে সিরিজ হারায় ধরে নেওয়া হচ্ছিল আগেই সেই অস্ট্রেলিয়া নেই। তবে আসরের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুর্দান্ত জয় দিয়ে অস্ট্রেলিয়া প্রমাণ করেছিল তারা আরব আমিরাতে এবার শিরোপা জিততেই এসেছে । অ্যারন ফিঞ্চের নেতৃত্বে দলটি নিজেদের ফর্ম ফিরে পেয়েছে। দ্বিতীয় ম্যাচেও সেই ধারাবাহিকতা রাখল অসিরা। শ্রীলংকাকে হেসেখেলে হারাল, ৭ উইকেটের বড় জয়ে নাস্তানাবুদ করল লঙ্কানদের। দুবাই ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে টস জিতে শ্রীলংকাকে আগে ব্যাট করতে পাঠায় অস্ট্রেলিয়া। ১৫৫ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় শ্রীলংকা। জবাবে ১৮ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় অসিরা। এ ম্যাচে দীর্ঘদিন পর রানের দেখা পেয়েছেন অসি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। আইপিএলে ব্যর্থ এই ওপেনার দেশের জার্সিতে ঠিকই জ্বলে উঠলেন। ৪২ বলে ৬৫ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেছেন ওয়ার্নার। অ্যারোন ফিঞ্চ ও স্টিভেন স্মিথও দুটি ক্যামিও ইনিংস খেলেন। আজ লঙ্কার ব্যাটাররা শুরুতে ভালো ব্যাট করেছিল। এক উইকেটে ৭৮ রান করে তারা। একটা সময় মনে হচ্ছিল টার্গেট ১৭০ ছাড়িয়ে যাবে। কিন্তু অসি বোলাররা তা হতে দেয়নি। মাত্র ১৬ রানের ব্যবধানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে। ২.৩ ওভারে দলীয় ১৫ রানে ফেরেন ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কা। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে চারিথ আসালঙ্কাকে সঙ্গে নিয়ে ৪৪ বলে ৬৩ রানের জুটি গড়েন ওপেনার কুশাল পেরেরা। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতনের কারণে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৫৪ রান তুলতে সমর্থ হয় শ্রীলংকা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৫ রান করে করেন কুশাল পেরেরা ও চারিথ আসালঙ্কা। ৩৩ রান করে অপরাজিত থাকেন ভানুকা রাজাপাকসে। দলীয় ৭৮ রানে ২৭ বলে ৪টি চার ও এক ছক্কায় ৩৫ রান করে ফেরেন আসালঙ্কা। মাত্র ৮ রানের ব্যবধানে ফেরেন ওপেনার কুশাল পেরেরাও। তিনি সাজঘরে ফেরার আগে ২৫ বলে ৪টি চার ও এক ছক্কায় করেন ৩৫ রান। এরপর আসা-যাওয়ার মিছিলে অংশ নেন আভিস্কা ফার্নান্দো ও ওয়ানেন্দু হাসারঙ্গা। দুজনেই ৪ রান করে ফেরেন। সাত নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে সুবিধা করতে পারেননি অধিনায়ক দাসুন শানাকা। তিনি ১৯ বলে মাত্র ১২ রান করে ফেরেন। তবে পাঁচ নম্বর পজিশেনে ব্যাটিংয়ে নামা ভানুকা রাজাপক্ষে ইনিংসের শেষ বল পর্যন্ত খেলে যান। তার ২৬ বলের অপরাজিত ৩৩ রানের ভর করে ৬ উইকেটে ১৫৪ রান তুলতে সমর্থ হয় শ্রীলংকা। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মিসেল স্টার্ক, পেট কামিন্স ও অ্যাডাম জাম্পা দুটি করে উইকেট ভাগাভাগি করেন। ১৫৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখি হয়ে ওঠেন দুই অসি ওপেনার অ্যারোন ফিঞ্চ এবং ডেভিড ওয়ার্নার। প্রথম পাওয়ার প্লে’র ৬ ওভারকে পূর্ণভাবে কাজে লাগিয়ে ৬৩ রান জমা করেন তারা। যা চলতি টুর্নামেন্টে প্রথম পাওয়ার প্লে’র সর্বোচ্চ সংগ্রহ। ৭০ রানের জুটি গড়ে ভঙ্গ হয় ওপেনিং জুটি। ২৩ বলে ৩৭ রান করে আউট হন ফিঞ্চ। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ৫ রান করেন। ওয়ার্নার আউট হওয়ার পর অবিচ্ছিন্ন ২৫ রানের জুটি গড়েন স্টিভেন স্মিথ ও মার্কাস স্টোইনিজ। ২৬ বলে ২৮ রান নিয়ে স্মিথ এবং ৭ বলে ১৬ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন স্টোইনিজ। এ জুটিতে ভর করে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় অসিরা। শ্রীলংকার হয়ে ৩ উইকেটের দুটি নেন ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা এবং একটি নেন অধিনায়ক দাসুন শানাকা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply