Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » বাংলাদেশের করোনাপ্রতিরোধী টিকা সনদের স্বীকৃতি দিয়েছে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ।




ব্রিটেনের স্বীকৃতি পেল বাংলাদেশের টিকার সনদ

শুক্রবার (৮ অক্টোবর) পররাষ্ট্রমন্ত্র ড. একে আবদুল মোমেন বলেন, ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে আমাদের মিশন। এখন তারা আমাদের টিকার সনদকে স্বীকৃতি দিয়েছে। ব্রিটেনের স্বীকৃতি পেল বাংলাদেশের টিকার সনদ সোমবার (১১ অক্টোবর) থেকে এই স্বীকৃতি কার্যকর হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। এদিকে বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়াসহ ৩২টি দেশের ওপর থেকে করোনাভাইরাস-সংশ্লিষ্ট বিধিনিষেধ উঠিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাজ্য। বুধবার (৬ অক্টোবর) ব্রিটেনের পররাষ্ট্র, কমনওয়েলথ ও উন্নয়ন কার্যলয় (এফসিডিও) এমন তথ্য দিয়েছে। নতুন ঘোষণায় বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, ফিজিসহ অন্যান্য যেসব দেশ ও অঞ্চলের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে সেগুলো হলো- টোকেলাউ ও নিউ, জিবুতি, গিনি, গাম্বিয়া, গায়ানা, কাজাখস্তান, কিরিবাতি, কসোভো, লাইবেরিয়া, মাদাগাস্কার, আলজেরিয়া, সাউ তোমি ও প্রিন্সিপে, সেনেগাল, সলোমন আইল্যান্ডস, টোগো, টোঙ্গা, আর্মেনিয়া, বেলারুশ, বেনিন, কমোরোস, মার্শাল আইল্যান্ডস, মাইক্রোনেশিয়া, নাউরু, টুভালু, ভানুয়াতু, কঙ্গো, আমেরিকা সামোয়া, ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ও ঘানা। ভারতের বিরুদ্ধে পুরোপুরি ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়নি। কাজেই দেশটির নাগরিকদের ওপর নিষেধাজ্ঞার প্রভাব পড়েনি। তবে এখন থেকে এই ৩২টি দেশে বিপুলসংখ্যক লোক ভ্রমণে যেতে পারবেন। আরও পড়ুন: সাত মাসে দেশে করোনায় সর্বনিম্ন মৃত্যু বিধিনিষেধ শিথিল ও অন্যান্য পরিবর্তনে নাগরিকদের ভ্রমণ আরও সহজ করে তুলবে জানিয়ে ব্রিট্শি পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রুস বলেন, এর ফলে ভ্রমণ আরও সহজতর হবে, ব্রিটেনের ব্যবসায় অগ্রগতি আসবে। পরিবার, প্রিয়জন ও বন্ধুদের সঙ্গে সহজেই দেখা করা যাবে। তিনি বলেন, আমরা মানুষকে নিরাপদ রাখার পাশাপাশি সঠিক ভারসাম্য বজায় রাখার চেষ্টা করছি। কারণ এটিই আমাদের অগ্রাধিকার। আমরা মানুষকে ব্যক্তিগত জবাবদিহিতা চর্চার স্বাধীনতা দিচ্ছি। পর্যটন খাতকে আগের অবস্থায় নিয়ে আসতে এই সিদ্ধান্ত সহায়তা করবে। তবে লালতালিকায় থাকা দেশগুলোতে অতিপ্রয়োজনের বাইরে ভ্রমণের বিরুদ্ধে সতর্কতা অব্যাহত রেখেছে এফসিডিও। যেসব দেশে ব্রিটিশ নাগরিকদের ভ্রমণ ঝুঁকি অগ্রহণযোগ্যভাবে বেশি, সেসব দেশে ভ্রমণে নাগরিকদের সতর্ক করা হয়েছে। তবে লালতালিকায় থাকা দেশের সংখ্যা কমিয়ে আনবে যুক্তরাজ্য। মেক্সিকো, কিউবা, দক্ষিণ আমেরিকা, দক্ষিণ ও পূর্ব আফ্রিকার সব মূল ভূখণ্ডসহ বর্তমানে ৫৪টি দেশ লালতালিকায় আছে। বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত ঘোষণা আসার কথা রয়েছে। এসব দেশ থেকে আসা নাগরিকদের অবশ্যই এগারো রাত কোয়ারেন্টিন হোটেলে কাটাতে হবে। এতে একজন ভ্রমণকারীকে দুই হাজার ২৮৫ পাউন্ড খরচ করতে হবে। যা বহনের সামর্থ্য অনেকেরই নেই। দ্য ন্যাশনাল নিউজের খবরে আরো বলা হয়েছে, এখনো যুক্তরাজ্যের লাল তালিকায় থাকা দেশগুলোতে ঝুঁকি রয়েছে। এ অবস্থায় দেশগুলোতে অতি প্রয়োজন ছাড়া ব্রিটিশদের ভ্রমণ না করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply