Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » Drug Case: গ্রেফতারির পর ছেলের সঙ্গে কথা Shah Rukh-এর, কান্নায় ভেঙে পড়লেন Aryan




সোমবার ফের আদালতে পেশ করা হয় আরিয়ান খানকে। Drug Case: গ্রেফতারির পর ছেলের সঙ্গে কথা Shah Rukh-এর, কান্নায় ভেঙে পড়লেন Aryan নিজস্ব প্রতিবেদন: রবিবার মাদক কাণ্ডে শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খানকে(Aryan Khan) গ্রেফতার করে NCB। ছেলের গ্রেফতারির পরই ভেঙে পড়েন আরিয়ানের মা গৌরী খান (Gauri Khan)। রবিবার আদালতে পেশ করা হয় আরিয়ান খান সহ তাঁর তিন বন্ধুকে। এরই মাঝে ছেলের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন শাহরুখ খান (Shah Rukh Khan)। মাত্র দুমিনিটের জন্য আরিয়ানের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পান শাহরুখ। NCB সূত্রে জানা যায়, আরিয়ানের গ্রেফতারির পর আইনি মতেই বাবা শাহরুখের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পান আরিয়ান। রবিবার দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা জেরা করা হয় আরিয়ান খানকে। সেই সময়ই কান্নায় ভেঙে পড়েন আরিয়ান। এনসিবি সূত্রের খবর, আরিয়ানকে জেরা করেই জানা যায়, এই প্রথমবার নয়, গত চার বছর ধরে মাদক সেবন করছেন তিনি। যদিও এদিন আরিয়ানের ব্যাগ থেকে কোনও মাদকদ্রব্য পাওয়া যায়নি বলেই দাবি করেছেন তাঁর আইনজীবী সতীশ মানশিণ্ডে। আরও পড়ুন: Aryan Khan: মাদক কাণ্ডে নয়া মোড়, NCB-র হেফাজতে আরিয়ানের বিশেষ বন্ধু শনিবার রাতে এক মাদক পার্টি থেকে শাহরুখ খানের (Shah Rukh Khan) পুত্র আরিয়ান খান (Aryan Khan) সহ আটজনকে আটক করে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর কর্তারা। আরিয়ানের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য সেবন ও মাদক কেনা বেচার গুরুতর অভিযোগ এনেছে NCB। দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর বাজেয়াপ্ত করা হয় আরিয়ানের ফোন। খতিয়ে দেখা হয়, শেষ কয়েকদিন কার কার সঙ্গে ফোনে ও হোয়াটস অ্যাপে কথা বলেছেন আরিয়ান। এরপরই আরিয়ান খান, আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধামেচা, নুপূর সারিকা, ইশমিত সিং, মোহক জয়সওয়াল, বিক্রান্ত চোকার, গোমিত চোপড়াকে গ্রেফতার করে NCB। জুতো থেকে শুরু করে চোখের লেন্সের বাক্স, এমনকি মেয়েদের অন্তর্বাসেও লুকানো ছিল মাদক। আরিয়ানের কাছ থেকে পাওয়া গেছে ১৩ গ্রাম কোকেন, ৫ গ্রাম এমডি, ২১ গ্রাম চরস, ও MDMA-র ২২ টি পিল এবং নগদ এক লক্ষ তেত্রিশ হাজার টাকা। একাধিক ধারায় মামলা করা হয়েছে আরিয়ানের বিরুদ্ধে।নারকোটিক ড্রাগস অ্যান্ড সাইকোট্রপিক সাবস্ট্যান্সেস (NDPS) ১৯৮৫ আইনের ৮সি, ২৭, ২২ নম্বর ধারা, এছাড়া MDMA ও এক্সট্যাসি আইনের অন্তর্গত ১৪(১), ১৪ (বি), ২০(বি) ধারায় মামলা করা হয়েছে আরিয়ানের বিরুদ্ধে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply