Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ‘মওলানা ভাসানীর সমাধিস্থলে গণ অধিকারের নেতাদের ওপর হামলা নিন্দনীয়’




আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি টাঙ্গাইলে মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর সমাধিস্থলে গণ অধিকার পরিষদের নেতাদের ওপর হামলার ঘটনাকে দুঃখজনক ও নিন্দনীয় বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। হামলাকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান তিনি। ওবায়দুল কাদের আজ সকালে তাঁর বাসভবনে ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান। গতকাল বুধবার টাঙ্গাইলে মওলানা ভাসানীর সমাধিস্থলে নবগঠিত দল বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদের নেতৃবৃন্দের ওপর হামলার ঘটনা দুঃখজনক ও নিন্দনীয় উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে এ ব্যাপারে তাঁর কথা হয়েছে। হামলাকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এ হামলার ব্যাপারে তদন্ত চলছে। এ ছাড়া আগামীকাল আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির সভায় গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়রের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে এবং চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের বিষয়েও আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ওবায়দুল কাদের বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যারা বিদ্রোহ করছে এবং বিদ্রোহীদের মদদ দিচ্ছে, তাদের ব্যাপারে দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে—কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটিতে রিপোর্ট দেওয়ার জন্য। এ ছাড়া ‘সরকার গণতন্ত্রকে বিলীন করে ফেলছে’—বিএনপিনেতাদের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে তাঁদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘গণতন্ত্রের বিকাশ এবং গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিতে রাজনৈতিক দল হিসেবে আপনারা কোন দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করেছেন?’ ‘গণতন্ত্রের সম্মুখ যাত্রায় পদে পদে যারা বাধা তৈরি করে, তারাই আবার মায়াকান্না করছে’ উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘গণতন্ত্রের নামে যারা নির্বাচনবিমুখ, যারা জনগণের ক্ষমতায়নে বিশ্বাসী নয়, যারা ক্ষমতায় থাকাকালে ভোটারবিহীন নির্বাচন করে এবং সোয়া এক কোটি ভুয়া ভোটার সৃষ্টি করে—তারাই আবার গণতন্ত্রের কথা বলে।’ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএনপির মহাসচিবের কাছে জানতে চেয়ে প্রশ্ন করেন, ‘জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে কেন আপনি সংসদে গেলেন না? জনমতকে অসম্মান কে দেখাল—সরকার না আপনারা?’ ‘বিএনপি নিশ্চিত হয়েছে জনগণের ভোটে ক্ষমতায় আসতে পারবে না, সেজন্য তারা দেশের স্থিতিশীলতা নষ্ট করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়’—এমন দাবি করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘বিএনপি উসকানি দিয়ে নানা ঘটনা ঘটিয়ে সরকারের ওপর দায় চাপাতে চায়।’ তিনি বলেন, ‘সাম্প্রতিককালে প্রতিটি অঘটনের সঙ্গে বিএনপি এবং তার সাম্প্রদায়িক দোসরেরা জড়িত।’ ‘বিএনপিই শীর্ষ পর্যায় থেকে হত্যা ও সন্ত্রাসের মদদ দেয়, আওয়ামী লীগ নয়’ বলেও দাবি করেন ওবায়দুল কাদের। ‘বিএনপির রাজনীতি অস্থিরতাপূর্ণ’ উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এ অস্থিরতা ক্ষমতা ফিরে পাওয়ার অস্থিরতা। এ অস্থিরতার কারণে বিএনপি ক্রমেই হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply