Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » নামিবিয়াকে উড়িয়ে সবার আগে সেমিফাইনালে পাকিস্তান




পাকিস্তান ও নামিবিয়ার ম্যাচ। ছবি –সংগৃহীত লক্ষ্যটা ছিল খুব কঠিন। জিততে হলে নামিবিয়াকে করতে হতো ১৯০ রান। এই রান তাড়ায় কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন দুই নামিবিয়ান ব্যাটসম্যান ক্রেইগ উইলিয়ামস ও ডেভিড উইজ। কিন্তু তাঁদের প্রতিরোধ বড় লক্ষ্য তাড়ার জন্য যথেষ্ট ছিল না। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে সহজেই নামিবিয়াকে হারিয়েছে পাকিস্তান। এই জয়ে সবার আগে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করল বাবর আজমের দল। আবুধাবিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে নামিবিয়াকে ৪৫ রানে হারিয়েছে পাকিস্তান। চলমান টুর্নামেন্টে এই নিয়ে নিজেদের চতুর্থ জয় তুলে নিয়েছে বাবর আজমের দল। টানা জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ-২ এর পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে আছে পাকিস্তান। আজ মঙ্গলবার টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে স্কোরবোর্ডে ১৮৯ রান তুলেছে পাকিস্তান। জবাব দিতে নেমে ১৪৪ রানেই থেমে যায় নামিবিয়া। বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতে উইকেট হারালেও পরে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে নামিবিয়া। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই ওপেনার মিচেলকে হারায় নামিবিয়া। হাসান আলীর বলে বোল্ড হয়ে ৪ রানে বিদায় নেন তিনি। শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে নামিবিয়া। ক্রেইগ উইলিয়ামস ও স্টেফানের ওই জুটি থাকে আসে ৪৭ রান। নবম ওভারে স্টেফানের রানআউটে ভাঙে ওই জুটি। ২৯ বলে ২৯ রানে ফেরেন নামিবিয়ান ওপেনার। মাঝে অধিনায়ক জেরার্ডকে আউর করেন ইমাদ ওয়াসিম। উইকেটে থিতু হওয়া ক্রেইগকে সাজঘরের পথ দেখান শাদাব খান। সেট ব্যাটসম্যানরা ফেরার পর নির্ধারিত ওভারে শেষ পর্যন্ত ১৪৪ রানে থেমে যায় নামিবিয়া। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন উইজ। ৩৭ বলে ৪০ রান করেন ক্রেইগ উইলিয়ামস। আবুধাবিতে এর আগে উইকেটের সুবিধা কাজে লাগাতে টস জিতে ব্যাটিং নেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম। নিজেদের কাজে সফল তাঁরা। ব্যাটিংয়ে দারুণ করলেন বাবর-রিজওয়ানরা। যদিও শুরুর দিকে কিছুটা মন্থর ছিল রানের গতি। প্রথম ৫ ওভারে স্কোরবোর্ডে উঠেছে মাত্র ২৩ রান। এরপরেই সেট হয়ে হাতখুলে খেলেন পাকিস্তানের দুই ওপেনার বাবর ও রিজওয়ান। ভয়ংকর হয়ে ওঠা এই জুটি শেষ পর্যন্ত ভাঙেন ডেভিড উইজ। ১৪.২ তম ওভারে বাবরের প্রতিরোধ ভাঙেন তিনি। উইজের বলে বাউন্ডারি হাঁকাতে চেয়েছিলেন পাকিস্তানি অধিনায়ক। কিন্তু বল সীমানার কাছে ক্যাচ নিয়ে নামিবিয়াকে স্বস্তি দেন জ্যান ফ্রাইলিংক। ১১৩ রানে ভাঙে পাকিস্তানের ওপেনিং জুটি। সাত বাউন্ডারিতে ৪৯ বলে ৭০ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলেন বাবর। বাবর ফিরলে কিছুটা রানের গতি কমে পাকিস্তানের। এর মধ্যেই ফখর জামানকে হারায় পাকিস্তান। ১৬তম ওভারে ফ্রাইলিংকের বলে দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়ে ফখরকে ফেরান নামিবিয়ার উইকেটকিপার জেন গ্রিন। ৫ বলে ৫ রান করেন তিনি, ১২৩ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় পাকিস্তান। দুই উইকেট হারালেও শেষ দিকে রান তুলতে সমস্যা হয়নি পাকিস্তানের। শেষ ওভারে নামিবিয়ার বোলার জে জে স্মিটকে পিটিয়ে ঝড় তোলেন রিজওয়ান। ওই এক ওভারেই ২৪ রান নেন তিনি। তাঁকে সঙ্গ দেন হাফিজ। রিজওয়ান-হাফিজদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে বড় পুঁজি পায় পাকিস্তান। ৭৯ রান করেছেন রিজওয়ান। ৫০ বলে তাঁর ইনিংসে ছিল ৮টি বাউন্ডারি ও ৪টি ছক্কা। মোহাম্মদ হাফিজ করেন ১৬ বলে ৩২ রান। নামিবিয়ার হয়ে বল হাতে ৩১রান খরচায় একটি উইকেট নেন জ্যান ফ্রাইলিংক। ৩০ রান দিয়ে উইজ নেন এটি উইকেট। চলমান বিশ্বকাপে দারুণ ছন্দে আছে পাকিস্তান। ভারতকে হারিয়ে শুরু করা পাকিস্তান নিজেদের প্রথম তিন ম্যাচেই জয় তুলে নিয়েছে। আজ নামিবিয়াকেও উড়িয়ে দিল তাঁরা। এই জয়ে সেমিফাইনালের পথে এগিয়ে গেল বাবর আজমের দল। অন্যদিকে স্কটিশদের হারিয়ে চলতি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে যাত্রা শুরু করে নামিবিয়া। এরপর এই নিয়ে টানা দুই ম্যাচে হেরে গেল তাঁরা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply