Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ভারত ও ভুটানের স্বীকৃতিতে বাংলাদেশের স্বাধীনতার যুদ্ধ আন্তর্জাতিকভাবে চিহ্নিত হয় : পররাষ্ট্রমন্ত্রী




আজ সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর উপলক্ষে সেক্টর কমান্ডার ফোরাম আয়োজিত ‘বাংলাদেশের ঐতিহাসিক প্রথম স্বীকৃতির পঞ্চাশ বছর’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, ‘পাকিস্তানের আগ্রসনের কারণে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে। ৬ ডিসেম্বর ভারত ও ভুটানের স্বীকৃতির ফলে যুদ্ধটা ভারত-পাকিস্তান নয়, বাংলাদেশের স্বাধীনতার যুদ্ধ হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে চিহ্নিত হয় এবং ভারত যে বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য সহায়তা করছে সে বিষয়টি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে উঠে আসে।’ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আজ সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর উপলক্ষে সেক্টর কমান্ডার ফোরাম আয়োজিত ‘বাংলাদেশের ঐতিহাসিক প্রথম স্বীকৃতির পঞ্চাশ বছর’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন। সেক্টর কমান্ডার ফোরামের সেক্রেটারি বীর মুক্তিযোদ্ধা হারুন হাবীব এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। অন্যদের মধ্যে বাংলাদেশে ভারতের হাই কমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী, ঢাকায় ভুটানের রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুয়েন্টশিল ও সংসদ সদস্য অ্যারোমা দত্ত এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফা জব্বার বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ঘটনাবহুল বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপনা করে বলেন, ‘ভারতের অনেক বীর সেনানীর রক্ত আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রামে বাংলার এ মাটিতে মিশে আছে’। তিনি ভারত বাংলাদেশের ঐতিহাসিক সম্পর্ককে রক্তের সম্পর্ক হিসেবে উল্লেখ করেন। ভারতের হাইকমিশনার বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের সহযোগিতার ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট বর্ণনা করে বলেন, ‘এদেশের মানুষের সহযোগিতা ছাড়া বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের বিজয় সহজ হতো না।’ ভুটানের রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ ও ভুটানের সম্পর্কের ৫০ বছরকে ঐতিহাসিক বলে উল্লেখ করেন। আগামী দিনগুলোতে বিদ্যমান চমৎকার সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। পরে ডাক ও টেলি যোগাযোগমন্ত্রী অতিথিদের মুজিব জন্মশতবর্ষে ডাক অধিদপ্তরের উদ্যোগে প্রকাশিত শত ডাকটিকেটের অ্যালবাম উপহার দেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply