Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » শাহরুখের পথ তৈরি করে দিয়েছিলেন সালমান! কীভাবে?




সালমান খান, বলিউড খানদানের অন্যতম উজ্জ্বল তারকা। আসমুদ্রহিমাচলে তার প্রশংসকের সংখ্যা অগুণতি। তিনি বলিউডের চিরন্তন প্রেম। ‘বিবি হো তো এয়সি’ থেকে 'অন্তিম: দ্য ফাইনাল ট্রুথ', দীর্ঘ ৩৩ বছর ধরে হিন্দি সিনেমার প্রথম সারির নায়ক সালমান খান। প্রেম থেকে দাবাং খান হয়ে ওঠার এই পথচলাটা কিন্তু সহজ ছিল না, তবে নিজগুণে কোনও এক জাদুমন্ত্রে সেই অসাধ্য সাধন করেছেন তিনি। বিতর্ক শুরু থেকেই ঘিরে থেকেছে সালমানের ক্যারিয়ারকে, বারবার আদালতের চক্কর কেটেছেন অভিনেতা। কখনও কৃষ্ণসার হরিণ শিকার মামলা তো কখনও হিট অ্যান্ড রান মামলায় ফেঁসেছেন ভাইজান, কিন্তু এতটুকুও ভাটা পড়েনি তার জনপ্রিয়তায়। আজ ৫৬তম জন্মদিন উদযাপন করছেন সেলিম-সালমা খানের বড় ছেলে। সালমান-শাহরুখ-আমির, বলিউডের তিন খানের রেষারেষি জারি রয়েছে গত তিন দশক ধরে। সেই লড়াই নির্দিষ্ট সময়ে কেউ এগিয়ে কেউ পিছিয়ে থেকেছেন। বলিউডে গোড়া থেকেই অভিন্ন হৃদয় বন্ধু ছিলেন সালমান-শাহরুখ, কিন্তু ২০০৮ সালে ক্যাটরিনার জন্মদিনের পার্টিতে দুইজনের ‘ঝগড়া’ এক না-ভোলা আখ্যান। যদিও শাহরুখ-সালমানের সম্পর্কের তিক্ততা শুরু হয় ২০০২ সালে ‘চলতে চলতে’ ছবির শ্যুটিংয়ের সময়, যার কেন্দ্রে ছিলেন ঐশ্বরিয়া। সালমানের জন্য ওই ছবি থেকে বাধ্য হয়ে ঐশ্বরিয়াকে বাদ দিয়েছিলেন শাহরুখ। জীবনে কোনওদিন কোনও আক্ষেপ নেই সালমানের। শাহরুখের সঙ্গে ভাঙা সম্পর্ক বেশ কয়েক বছর আগেই জোড়া লেগেছে। কিন্তু জানেন কি প্রায় ১৪ বছর আগের এক সাক্ষাৎকারে পরোক্ষভাবে সালমান বলেছিলেন শাহরুখের ক্যারিয়ার গড়ে দিয়েছেন তিনি! ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে ভাইজানকে প্রশ্ন করা হয়েছিল ‘চক দে’র সাফল্য নিয়ে। জানতে চাওয়া হয়, সালমানের এই নিয়ে কোনও ঈর্ষা বা ক্ষোভ রয়েছে কিনা। জবাবে সালমান বলেছিলেন, “একেবারেই নয়! আমি এই ফিল্মের অফারটা ফিরিয়েছিলাম এবং ও সেই ছবিটা সাইন করেছিল। এটার মধ্যে কিছু ভুল নেই।” এই সাক্ষাৎকারেই সালমান ফাঁস করেছিলেন, শাহরুখের প্রথম হিট ছবি বাজিগরের জন্য পরিচালকদের প্রথম পছন্দ ছিলেন তিনি। সালমান যোগ করেন, “জানেন কি আমি বাজিগর ছবির অফারও ফিরিয়েছিলাম! যখন আব্বাস মস্তান আমার কাছে ওই ছবির স্ক্রিপ্ট নিয়ে আসে আমি বাবাকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম উনার ইনপুট। “উনি মনে করেছিলেন এই ছবির প্রধান চরিত্রটা নেগেটিভ, তাই এখানে ওই চরিত্রের সঙ্গে একটা মায়ের অ্যাঙ্গেল জুড়ে দেওয়াটা জরুরি। ওরা রাজি হয়নি, আমি এরপর ছবিটা ফিরিয়ে দিই এবং ওনারা শাহরুখের কাছে যান। তবে মজার ব্যাপার হল সেবার মায়ের পটভূমিকা জুড়ে নিয়ে যান। শাহরুখ রাজি হয় বাজিগর হতে।” সালমান বলেন, “তবে এটা নিয়েও আমার কোনও আক্ষেপ নেই। একবার ভেবে দেখুন, যদি আমি বাজিগর করতে রাজি হতাম, তাহলে আজ ব্যান্ডস্ট্যান্ডে কোনও মন্নত (শাহরুখের বাড়ি) মাথা তুলে দাঁড়িয়ে থাকত না। আমি খুব খুশি শাহরুখের জন্য আর ওর সফল ক্যারিয়ারের জন্য।” ২০০৮ সালে ক্যাটরিনার জন্মদিনের পার্টিতে সালমান-শাহরুখের ঝগড়ার পর দীর্ঘদিন পর্দার ‘করণ-অর্জুন’ এর মধ্যে সম্পর্ক না থাকলেও দুই পরিবারের মধ্যে সুসম্পর্ক ঠিকই ছিল। সালমানের বোন অর্পিতা খানের বিয়েতে ফের জোড়া লাগে দুই খানের সম্পর্ক। অর্পিতাকে ছোট বোনের চোখেই দেখেন শাহরুখ। আবদার করে শাহরুখকে নিজের বিয়েতে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল অর্পিতা আর সেখানেই দুই দাদার মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটান অর্পিতা। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply