Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত শুরু




অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের ম্যাচ। ছবি : সংগৃহীত গ্যাবা টেস্টের তৃতীয় দিন লড়াই জমিয়ে তুলেছিলেন ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট এবং ডেভিল মালান। দুজনেই সেঞ্চুরির অপেক্ষায় থেকে দিন শেষ করেন। আশা ছিল, আজ শনিবার আরও রোমাঞ্চ ছড়াবে ব্রিসবেনে। কিন্তু, অস্ট্রেলিয়ার বোলার নাথান লায়নের স্পিনে বরবাদ হয়ে গেল ইংল্যান্ডের আশা। ইংলিশদের লড়াই থামিয়ে দুর্দান্ত জয়ে এবারের অ্যাশেজে শুভসূচনা করল অস্ট্রেলিয়া। আজ টেস্টের চতুর্থ দিন ইংল্যান্ডকে ৯ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সেইসঙ্গে নতুন অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের অধীনে জয় দিয়ে যাত্রা শুরু করল অস্ট্রেলিয়া। এ জয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল অসিরা। দেড়শ ছাড়ানো ইনিংস খেলে গ্যাবা টেস্টে ম্যাচসেরা হয়েছেন ট্রাভিস হেড। অ্যাশেজে ইনিংসের প্রথম ইনিংস কেটেছে চরম হতাশায়। অস্ট্রেলিয়ার পেস বোলারদের দাপটে অল্পতেই গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড। তবে, প্রথম ইনিংসে বিশাল ব্যবধানে পিছিয়ে পড়া ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংসে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তোলে। অধিনায়ক জো রুট এবং ডেভিড মালান মিলে গড়েন প্রতিরোধ। দুজনের ব্যাটে টেস্টের তৃতীয় দিন ২ উইকেটে ২২০ রান নিয়ে শেষ করে ইংল্যান্ড। দিন শেষে উইকেটে ৮৬ রানে অপরাজিত ছিলেন রুট। তাঁর সঙ্গে ৮০ রানে অপরাজিত ছিলেন মালান। আজ ৫৮ রানে পিছিয়ে দিন শুরু করে জো রুটের দল। আশা করা হচ্ছিল, মালান ও রুট দুজনেই সেঞ্চুরি পেতে পারেন। কিন্তু, তা আর হলো না। অস্ট্রেলিয়ার আক্রমণে ইংলিশদের ব্যাটিং লাইনআপ ধসে পড়ল তাসের ঘরের মতো। দিনের শুরতেই মালানকে ফেরান লায়ন। ১৯৫ বলে ৮২ করে ফেরেন তিনি। এরপর ১৬৫ বলে ৮৯ রান করে। দুজন সেট ব্যাটার ফেরার পর শুধু হতাশাই দেখে ইংলিশরা। দারুণ আশা দেখাতে থাকা ইংলিশরা শেষ পর্যন্ত ১৯ রানের লিড নিতে পারল। যার জবাব দিতে নেমে ৯ উইকেটেই জয়ের নাগাল পেয়ে গেল অসিরা। বল হাতে দারুণ করা নাথান লায়ন নিয়েছেন ৪ উইকেট। সমান দুটি করে নিয়েছেন গ্রিন ও কামিন্স। এর আগে প্রথম ইনিংসে ১৪৭ রানে অলআউট হয়েছিল ইংল্যান্ড। বিপরীতে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়া করে ৪২৫ রান। দেড়শ রানের ইনিংস খেলেন ট্রাভিস হেড। প্রথম ইনিংসে ২৭৮ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। এ ইনিংসের শুরুটাও ভালো ছিল না। দলীয় ২৩ রানেই ওপেনার রোরি বার্নসকে হারায় সফরকারীরা। ১৩ রানে ফেরেন ইংলিশ ওপেনার। এরপর দলীয় ৬১ রানে আরেক ওপেনার হাসিব হামিদও ফেরেন সাজঘরে। তিনি করেন ২৭ রান। দুই ওপেনার ফেরার পর হারের শঙ্কা জাগে ইংলিশ শিবিরে। তবে, তৃতীয় দিন এই অঘটন ঘটতে দেননি মালান ও রুট। তৃতীয় উইকেটে মালানের সঙ্গে দারুণ জুটি উপহার দেন অধিনায়ক রুট। দুই তারকার ব্যাটেই তৃতীয় দিন ব্রিসবেনে মোটামুটি লড়াই করে ইংল্যান্ড। কিন্তু জয়ের জন্য এই লড়াই যথেষ্ট ছিল না। সংক্ষিপ্ত স্কোর ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস : ১৪৭/১০, ৫০.১ ওভার (বাটলার ৩৯, পোপ ৩৫, কামিন্স ৫/৩৮, স্টার্ক ২/২৫)। অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংস : ৪২৫/১০, ১০৪.৩ ওভার (হেড ১৫২*, ওয়ার্নার ৯৪, মার্নাস ৭৪, স্টার্ক ৩৫; রবিনসন ৩/৫৮, উড ৮৫/৩)। ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস : ২৯৭/১০, ১০৩ ওভার (হাসিব ২৭, ররি ১৩, রুট ৮৯, মালান ৮২; লায়ন ৪/৯১, প্যাট কামিন্স ২/৫১, গ্রিন ২/২৩)। অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় ইনিংস : ২০/১, ৫.১ ওভার (ক্যারি ৯, হ্যারিস ৯; রবিনসন ১২/১)। ফল : ৯ উইকেটে জয়ী অস্ট্রেলিয়া। ম্যাচ সেরা : ট্রাভিস হেড।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply