Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » লেডি গাগা-প্রিয়াঙ্কাদের তালিকায় বাঁধন!




ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন চলতি বছরে দেশ-বিদেশে সমানভাবে আলোচিত ছিলেন। সেই আলোচনরা ধারাবাহিকতায় এবার নিজের নাম লেখালেন হলিউড-বলিউডের সব নামিদামি অভিনেতাদের পাশে। ভারতের বিনোদনভিত্তিক ওয়েব সাইট ফিল্মিসিল্মি ডটকম প্রকাশ করেছে এ বছরের তুমুল সাড়া ফেলে দেওয়া বিশ্বের সব অভিনয়শিল্পীদের নাম। সেখানে এই অভিনয়শিল্পীদের উল্লেখ করা হয়েছে ‘গেম চেঞ্জিং’ তারকা হিসেবে। আর এই তালিকায় হলিউডের এমা স্টোন, লেডি গাগা; বলিউডের প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, দীপিকা পাড়ুকোনের মতো তারকাদের সঙ্গে ঠাঁই পেয়েছেন বাংলাদেশের বাঁধন। এই তালিকায় রাখা হয়েছে মোট ৩৮ জনকে। তবে এ তালিকায় তারকাদের নাম ক্রমিক অনুসারে সাজানো হয়নি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘গেম চেঞ্জিং’ মানে বোঝানো হয়েছে পারফরম্যান্সকে, যা কি না অভিনয়শিল্পীর ফিল্মগ্রাফিকে এগিয়ে নিয়ে গেছে। তালিকায় রয়েছেন হলিউডের রিজ আহমেদ, দেব প্যাটেল, ক্রিস্টেন স্টুয়ার্ট, এমা স্টোন, জেনিফার হাডসন, অ্যান্ড্রু গারফিল্ড, লেডি গাগা প্রমুখ। বলিউডের প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, দীপিকা পাড়ুকোন, কৃতি শ্যানন, কার্তিক আরিয়ান, পরিণীতি চোপড়া, মহিন রাইনাদের মতো তারকারা। প্রতিবেদনে বাঁধন সস্পর্কে বলা হয়েছে, ‘‘বাঁধন একজন ডেনটিস্ট হওয়ার পাশাপাশি অভিনয় করেন। তিনি বাংলাদেশের গ্ল্যামারাস তারকা এবং অনেকদিন ধরেই মিডিয়াতে কাজ করেছেন।’’ সেখানে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, ‘‘এ বছরটি তার (বাঁধন) অভিনীত চলচ্চিত্র রেহানা মরিয়ম নূর একটি গেম চেঞ্জার চলচ্চিত্র। এটি প্রথম বাংলাদেশি সিনেমা, যা কানে প্রদর্শিত হয়েছে। সিনেমাটি অফিসিয়ালি অস্কারের আন্তর্জাতিক ফিচার ফিল্ম বিভাগেও জমা দেয়া হয়েছে। এমন পারফরম্যান্সের পরে তিনি বলিউডের ভিশাল ভরদ্বাজের খুফিয়া সিনেমায় অভিনয় করেছেন।’’ উল্লেখ্য, ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন আজমেরী হক বাঁধন। কান উৎসবের গত আসরে এটি ‘আ সার্তে রিগা’ বিভাগে নির্বাচিত হয়েছিল। প্রথম প্রদর্শনীর পর সিনেমাটি স্ট্যান্ডিং ওভেশন পেয়েছিল। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও ভূয়সী প্রশংসা পায়। কানের পর সিনেমাটি অংশ নিয়েছে মেলবোর্ন চলচ্চিত্র উৎসব, বিএফআই লন্ডন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব, হংকং এশিয়া চলচ্চিত্র উৎসব, বুসান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব, সিডনি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবসহ মোট ১৩টি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply