Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » আরাম প্রিয় ‘মাইট’ পোকা, আছে আপনার বিছানাতেও!




বেশি গরম নয়, আবার তেমন ঠাণ্ডাও নয়, এমন আবহওয়াতেই মাইট নামের ছোট্ট এই পোকাটি নরম বিছানায় মানুষের সাথে বসবাস করতে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসে৷ তাছাড়া এরা পছন্দ করে সোফা এবং ঘরের কার্পেটে থাকতে৷ এমনকি কাপড়ে তৈরি বাচ্চাদের খেলনা বা টেডি বেয়ারের ভেতরেও আরাম করে বসে থাকে এরা৷ পোকা মুক্ত বিছানা পেতে হলে কী করবেন? সপ্তাহে অন্তত দু’দিন বিছানার লেপ তোষক, বালিশ, চাদর – সব কিছু রোদে দিন৷ এছাড়া ঘরের মধ্যে ঢুকতে দিন যথেষ্ট আলো বাতাস৷ সম্ভব হলে তোষক বা ম্যাট্রেসেরও একটি ঢাকনা লাগানো যেতে পারে৷ ঘুমানোর আগে কিছুক্ষণ ঘরে মুক্ত বাতাস আনার জন্য জানালা-দরজা খুলে দিন৷ দাম একটু বেশি হলেও জার্মানিতে ‘অ্যান্টি অ্যালার্জি’ বিছানা পাওয়া যায়, সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন। পোকা মুক্ত বিছানা রাখতে বাড়তি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতাও বিশেষ জরুরি৷ কার্পেটের ভেতর বসবাস করতেও বেশ ভালোবাসে অদৃশ্য এই ‘মাইট’ পোকা৷ যাদের এই পোকায় অ্যালার্জি আছে, তাদের বাড়িতে বেশি কার্পেট রাখা উচিত নয়৷ এছাড়া যতটুকু কার্পেট থাকে, সেটুকু খুব ভালো করে পরিষ্কার রাখা উচিত৷ মাঝে মাঝে কার্পেটও শ্যাম্পু করা যেতে পারে। অনেকেরক্ষেত্রে এই মাইট পোকাই আসলে অ্যালার্জির কারণ৷ ছোট শিশুরা নরম তুলতুলে কাপড়ের তৈরি খেলনা বা টেডি বেয়ার দিয়ে সারাদিন খেলে৷ এমনকি কেউ কেউ তো খেলনাগুলোকে সাথে নিয়ে ঘুমায় পর্যন্ত৷ এই খেলনার গায়ে আটকে থাকতে খুব ভালো বাসে এই পোকা৷ খেলনার গায়ের ব্যাকটেরিয়া খুব সহজেই ছড়াতে পারে শিশুদেরও গায়ে৷ তাই মাঝে মাঝে খেলনাগুলো ধোওয়া উচিত৷ তাছাড়া কিছু দিন পরপর ওগুলোকে ঘণ্টা দু’য়েক ডিপ ফ্রিজে রেখে দিলে জীবাণু মরে যায়৷ এই অ্যালার্জি থেকে মুক্তি পেতে অনেকে ‘অ্যান্টি অ্যালার্জি’ বিছানার সরঞ্জাম কেনেন৷ এটা ঋতু জনিত অ্যালার্জি৷ অনেকের ভোরে বিছানায় থাকা অবস্থাতেই নাক দিয়ে পানি ঝড়ে, কাশি, হাঁচি হয়৷ অনেকের আবার সারা বছরই এমনটা হয়৷ এ জন্য অবশ্যই অ্যালার্জি পরীক্ষা প্রয়োজন, কারণ এই অ্যালার্জি পরে অ্যাজমা রোগের রূপ নিতে পারে৷ এ কথা জানান জার্মানির এরলাঙ্গেন বিশ্ববিদ্যালয় ক্লিনিকের অ্যালার্জি বিশেষজ্ঞ ভেরা মালার৷ ঘরের সোফা বা মোটা পর্দায়ও ঘাপটি মেরে বসে থাকে মাইট পোকা৷ সোফায় বসে তারা অনেকটা সময় কাটায় মানুষের মতো৷ এই ক্ষুদ্র পোকাকে খালি চোখে ঠিকমতো দেখা যায় না বলে অনেকে জানেই না যে ‘মাইট’ পোকাই তাদের অসুস্থতার কারণ৷ তাই নিয়মিত সব কিছু পরিষ্কার রাখুন৷ সূত্র: ডয়েচে ভেলে






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply