Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » সিরিয়ায় কারাগারের কাছে আই এস’এর সঙ্গে সংঘর্ষ : পর্যবেক্ষক




সিরিয়ায় কারাগারের কাছে আই এস’এর সঙ্গে সংঘর্ষ : পর্যবেক্ষক

একজন যুদ্ধ পর্যবেক্ষক জানিয়েছেন, সিরিয়ার একটি কারাগারের কাছে শনিবার কুর্দি বাহিনী এবং ইসলামিক স্টেট গ্রুপ-এর যোদ্ধাদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয় । সেখানে কয়েক ডজন জিহাদি এখনও লুকিয়ে আছে । ২০শে জানুয়ারী উত্তর-পূর্ব সিরিয়ার শহর হাসাকাহ-এর কাছে বিস্তৃত ঘোয়ারান কারাগার কমপ্লেক্সে আইএস এর হামলাকে কেন্দ্রকরে কয়েকদিনের প্রচন্ড লড়াই শুরু হয় যার ফলে প্রায় ২৬০ জন মারা গেছে এবং শনিবার একটি বুলডোজার দিয়ে মৃতদেহগুলিকে ট্রাকে উঠিয়ে দাফনের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস (এসডিএফ) ঘোষণা করেছে যে তারা বুধবার কারাগারটি পুনরুদ্ধার করেছে, কিন্তু সেই মপ-আপ অপারেশন অব্যাহত রয়েছে। শনিবার, সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, "একদিকে সিরীয় গণতান্ত্রিক বাহিনী এবং কুর্দি নিরাপত্তা বাহিনী আর অন্যদিকে আইএস সদস্যদের মধ্যে কারাগারের আশেপাশে সংঘর্ষ হয়েছে। আই এস ঐ অঞ্চলে গা ঢাকা দিয়ে আছে। যুদ্ধ বিষয়ক পর্যবেক্ষক , যা সিরিয়ার অভ্যন্তরে একটি সূত্রের নেটওয়ার্কের উপর নির্ভর করে, বলেছে যে চার জন আইএস যোদ্ধা একজন স্থানীয় কর্মকর্তা এবং তিনজন বেসামরিক নাগরিককে কয়েক ঘন্টা ধরে জেলের কাছে একটি আবাসিক ভবনে আটকে রেখেছিল। কুর্দি বাহিনী পরে জিম্মিদের মুক্ত করে এবং তিন আইএস যোদ্ধাকে হত্যা করে। এএফপির একজন সংবাদদাতা এর আগে জানিয়েছিলেন যে যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্য ও কুর্দি নেতৃত্বাধীন বাহিনী ভবনটি ঘিরে ফেলেছে এবং কাছাকাছি ছাদে আড়াল থেকে গুলি করার লোক মোতায়েন করেছে এবং জানিয়েছে যে সেখানে মাঝেমধ্যে গুলি চলছে। এসডিএফ বুধবার বলেছে যে প্রায় ৩৫০০ আইএস সদস্য আত্মসমর্পণ করেছে, তবে সেই আটকে পড়া আইএস যোদ্ধারা কারাগারের ভিতরে নিজেদের ব্যারিকেড করে রেখেছিল। অবজারভেটরি বলেছে আইএস বন্দুকধারীরা সেলারে রয়েছে যেখানে বিমান হামলা বা অনুপ্রবেশের মাধ্যমে লক্ষ্যবস্তু ঠিক করা কঠিন"। এসডিএফ কর্মকর্তারা অনুমান করেছেন যে ৬০ থেকে ৯০ জনের মত আইএস যোদ্ধা এখনও বেসমেন্টে এবং তার উপরে নিচতলায় ছিল। কুর্দি বাহিনী বারবার আইএস বন্দুকধারীদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানিয়েছে। এসডিএফ-এর মিডিয়া অফিসের প্রধান ফরহাদ শামি শনিবার বলেছেন, "আমাদের বাহিনী এখন পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে শক্তি প্রয়োগ করেনি।" শনিবার, একজন এএফপি সংবাদদাতা কারাগারের কাছের এলাকা থেকে লাশের স্তূপ নিয়ে একটি ট্রাক যেতে দেখতে পান, মৃতদেহগুলো সম্ভবত আইএস যোদ্ধাদের বলে ধারণা করা হচ্ছে। একটি বুলডোজার ট্রাকের ভিতরে আরও মৃতদেহ রাখে, যা পরে অজানা স্থানে চলে যায়। শামি বলেন যে মৃতদেহগুলি এসডিএফ নিয়ন্ত্রণে "প্রত্যন্ত, নির্দিষ্ট এলাকায়" সমাহিত করা হবে। জাতিসংঘ বলেছে, সহিংসতার কারণে ৪৫,০০০ লোক হাসকাহ থেকে পালাতে বাধ্য হয়েছে, । অনেকে তাদের আত্মীয়দের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে, আবার শত শত মানুষ শহরের মসজিদ ও বিয়ে- অনুষ্ঠানের হলগুলোতে ঘুমাচ্ছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply