Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » ইংল্যান্ডের পর বিপর্যয়ে অস্ট্রেলিয়াও




গোটা সিরিজে জঘন্য পারফরম্যান্সের পর চলতি অ্যাশেজে অন্তত সম্মান রক্ষার্থে একটা ম্যাচ জিততে মরিয়া ইংল্যান্ড। তবে সিরিজের পঞ্চম টেস্টে নেমেও পুরনো রোগ সারল না রুট-স্টোকসদের। অজি বোলিংয়ের সামনে মুখ থুবড়ে পড়ল ইংলিশদের ব্যাটিং। ম্যাচের মাত্র দ্বিতীয় দিনের শেষেই ফের একবার হারের ভ্রকুটি ইংল্যান্ড শিবিরে। অবশ্য হোবার্টে চলছে পেসারদের আগুনে তোপের রাজত্ব, যে তোপে পুড়ল স্বাগতিকরাও। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৩ রান তুলতেই অজিরা খুইয়েছে তিন টপ অর্ডারকে। যদিও ৭ উইকেট হাতে রেখে ১৫২ রানে এগিয়ে আছে কামিন্সের দলই। এর আগে ছয় উইকেটে ২৪১ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে ৩০৩ রানেই অলআউট হয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। দলটির পক্ষে ফিরেই সেঞ্চুরি করেন ট্রাভিস হেড (১০১)। এছাড়া ল্যাবুশানে ৪৪, ক্যামেরন গ্রিন ৭৪ ও শেষ দিকে ব্যাট চালিয়ে ন্যাথন লায়ন ৩১ রান করেন। ইংলিশদের পক্ষে স্টুয়ার্ট ব্রড ও মার্ক উড তিনটি করে এবং ক্রিস ওকস ও ওলিয়ে রবিনসন দুটি করে উইকেট নেন। অস্ট্রেলিয়াকে ওই রানে থামিয়ে দিয়ে, সিরিজে প্রথমবার লিড নেয়ার ভাল একটা সুযোগ ছিল ইংল্যান্ডের সামনে। কিন্তু সে গুড়ে বালি। মাত্র ৪৭.৪ ওভারে ১৮৮ রান তুলতেই গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংস। ব্যাট হাতে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন ক্রিস ওকস, আর রুট করেন ৩৪ রান। অস্ট্রেলিয়ার তরফে অধিনায়ক প্যাট কামিন্স সর্বোচ্চ ৪টি এবং স্কট বোল্যান্ড ৩টি উইকেট নেন। যাতে ১১৫ রানে পিছিয়ে থাকা ইংল্যান্ড বোলিংয়ে নেমে প্রথম ইনিংসের মতোই শুরুটা দারুণ করে। ফের একবার ‘নেমেসিস’ ব্রডের বিপক্ষে শূন্যে রানে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন ডেভিড ওয়ার্নার। প্রথম ইনিংসেও শূন্য রানেই আউট হয়েছিলেন অজি মারকুটে ওপেনার। এছাড়া উসমান খাজা (৫), মার্নাস ল্যাবুশানেকেও (১১) এ ইনিংসে রান পেতে দেয়নি ইংলিশ পেসাররা। দ্বিতীয় দিনের শেষে তিন উইকেটের বিনিময়ে ৩৭ রানে পৌঁছায় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর। ক্রিজে স্টিভ স্মিথের (১৭) সঙ্গে রয়েছেন নাইট ওয়াচ ম্যান স্কট বোল্যান্ড (৩)। ব্রড, ওকস ও উড একটি করে উইকেট তুলে নেন। ১৫২ রানে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে যদি তৃতীয় দিনে ইংল্যান্ড দ্রুত আউট করে দেয়, তাহলে তাদের জয়ের আশা বজায় থাকবে। তবে দ্বিতীয় দিন শেষে সুবিধাজনক স্থানে আছে অস্ট্রেলিয়াই।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply