Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » বোলারদের পারফরমেন্সে খুশি গিবসন




মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে বোলারদের পারফরমেন্সে খুশি বাংলাদেশ দলের পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন। স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডকে বড় স্কোর করতে দেয়নি সফরকারী টাইগাররা। স্বাগতিকদের ৩২৮ রানে থামিয়ে দিয়েছে টাইগার বোলাররা। ডেভন কনওয়ে ছাড়া স্বাগতিকদের অন্য ব্যাটারদের রান করতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে। কনওয়ে ১২২ রান করেন। এছাড়া ওপেনার উইল ইয়ং ৫২ ও হেনরি নিকোলাস ৭৫ রানে ফিরেন। আরেক ওপেনার ও অধিনায়ক টম লাথামকে দিনের ২১ বলেই বিদায় দেন বাংলাদেশের পেসার শরিফুল ইসলাম। মিডল-অর্ডারে অভিজ্ঞ রস টেইলরকে ৩১ রানে আটকে দেন তিনি। রাচিন রবিন্দ্রকেও সাজঘরে ফেরান শরিফুল। আর দিনের শেষ ভাগে উইকেটরক্ষক টম ব্লান্ডেলকে বোল্ড করেন আরেক পেসার এবাদত হোসেন। দুই পেসার শরিফুল-এবাদতের সাথে উইকেট শিকারের তালিকায় নাম লিখিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। কনওয়ের গুরুত্বপূর্ণ উইকেট ছাড়াও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ হেনরি নিকোলাসকে ফিরিয়েছেন তিনি। উইকেট না পেলেও বল হাতে দারুন পারফরমেন্স করেছেন তাসকিন আহমেদ। তাসকিন ২৬ ওভারে ৭৭ রান দেন। দ্বিতীয় দিনে জ্বলসে উঠেন মেহেদি হাসান মিরাজ। ৮৬ রানের বিনিময়ে নিয়েছেন তিন তিনটি উইকেট। টাইগার স্পিনারের শিকার জেমিসন (৬), টিম সাউদী (৬) এবং ওয়াগনারকে ফেরান ০ রানে। বাংলাদেশ বোলারদের এমন পারফরমেন্সে খুশি গিবসন। নিউজিল্যান্ড থেকে এক ভিডিও বার্তায় গিবসন বলেন, ‘বাংলাদেশের উইকেটে আমরা খুব একটা ঘাস দেখতে পাই না। টসের সময় আমাদের মনে হয়েছিল, নতুন বল কিছুটা মুভমেন্ট হবে, তাই হয়েছে। উইকেটের আদ্রতা দ্রুত শেষ হয়ে যায় এবং উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য উপযোগী হয়ে ওঠে। অনেকটাই নিষ্প্রাণ হয়ে যায় উইকেট। তারপরও ছেলেরা যেভাবে লড়েছে, তাতে আমি গর্বিত।’ তিনি আরও বলেন, ‘পেসাররা হাল ছাড়েনি। মিরাজ এক পাশ দারুণভাবে আটকে রেখে অন্য প্রান্ত থেকে পেসারদের বল করার সুযোগ করে দিয়েছে। আমরা লড়াই চালিয়ে গেছি, এতে আমি গর্বিত।’ নিউজিল্যান্ড কন্ডিশনে পেসাররা ভালো করেছে বলে জানান গিবসন, ‘কঠিন কন্ডিশনে পেসাররা ভালো বল করেছে। তাদের জন্য এটি অচেনা কন্ডিশন। এবাদতও ভালো বল করেছে। নতুন বলে সকালে আমরা দুর্দান্ত করেছি। ভালো জায়গায় বল পিচ করিয়েছি, সুইং করিয়েছি, প্রতিপক্ষের ব্যাটারদের পরাস্ত করেছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘বল সুইং করানো নিয়ে অনেক কাজ করছি আমরা। সবাই সুইং করানোর চেষ্টা করেছে। মাঝে-মাঝে সফলও হয়েছে। আমি সন্তুষ্ট যে, আজ সকালের কন্ডিশন আমরা কাজে লাগাতে পেরেছি।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply