Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » ইতালির রাষ্ট্রপতি নির্বাচন সোমবার, কে হচ্ছেন রাষ্ট্রপ্রধান




আর মাত্র একদিন পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইতালির রাষ্ট্রপতি নির্বাচন। এদিন ভোটের মাধ্যমে জানা যাবে যে জাতির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদটিতে আগামী ৭ বছরের জন্য কে বসছেন। ইতালির রাষ্ট্রপতি নির্বাচন সোমবার, কে হচ্ছেন রাষ্ট্রপ্রধান সোমবার (২৪ জানুয়ারি) ইতালির পরবর্তী রাষ্ট্রপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। একজন ইতালিয় রাষ্ট্রপতি ঠিক কী করেন এবং তার নির্বাচন প্রক্রিয়া কীভাবে কাজ করে তার প্রতি আগ্রহের কমতি নেই প্রবাসী বাংলাদেশিদের। কীভাবে ইতালিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করে? ইতালিতে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন জনগণের জন্য উন্মুক্ত নয়, তবে প্রায় ১ হাজার ৯ জন ভোটার ভোট দিয়ে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করেন। ৬৫০ জন ডিপটি সাংসদ, ৩২১ জন সিনেটর এবং ৫৮ জন আঞ্চলিক প্রতিনিধিদের দ্বারা গোপন ব্যালটে ইতালির রাষ্ট্রপতি নির্বাচন হয়। ইতালিতে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী বিবেচিত হওয়ার জন্য প্রার্থীকে রাজনীতিবিদ হতে হয় না। একমাত্র মানদণ্ড হলো যে, প্রার্থীকে ৫০ বছর বয়সে পৌঁছাতে হবে।একজন নিবন্ধিত ভোটার এবং চূড়ান্ত আইনত দণ্ডনীয় অপরাধী নন এমন ইতালিয় নাগরিক রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করতে পারেন। ইতালিতে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে সাধারণত একাধিক রাউন্ড ভোটিং হয়। সফল প্রার্থী হওয়ার জন্য প্রার্থীদের প্রথম তিন রাউন্ডে দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা এবং পরবর্তী ব্যালটে ৫০৫ ভোটের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে হয়। এর আগে ১৯৭১ সালে নির্বাচন চক্র সম্পন্ন হতে দুই সপ্তাহ সময় লেগেছিল। ইতালির প্রেসিডেন্টের ভূমিকা কি? ইতালিতে রাষ্ট্রপতি ৭ বছরের জন্য নির্বাচিত হন। ৭ বছরের মেয়াদে পূর্ণ হওয়া ইতালিয় রাষ্ট্রপতির ভূমিকাকে প্রায়শই বড় আকারে দেখা হয়। যদিও ক্ষমতা একচেটিয়াভাবে নয় বরং আনুষ্ঠানিক। ইতালির রাষ্ট্রপতি রাষ্ট্রপ্রধানের উপাধি ধারণ করেন এবং দেশের সংবিধান সমুন্নত রাখতে ভূমিকা পালন করেন। তাদেরকে দেশের স্থিতিশীলতার ধারনা দেওয়ার বক্তব্য দিতে দেখা যায়। ইতালিয় রাষ্ট্রপতিরা সংসদীয় বিল অনুমোদন, নির্বাচন আহ্বান, প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রিপরিষদের মন্ত্রী নিয়োগ এবং পরিবর্তন, সম্মান প্রদান, গণভোট আহ্বান, আঞ্চলিক রাষ্ট্রপতিদের অপসারণ এবং সংসদ ভেঙে দিতে পারেন। ইতালির রাষ্ট্রপতি ক্ষমতা অধিকারগুলো ব্যবহার করতে পারেন। যেমন- বর্তমান রাষ্ট্রপতি সার্জিও মাতারেল্লা ২০১৮ সালে ইউরোসেপ্টিক পাওলা সাভোনাকে অর্থমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ করতে অস্বীকার করেছিলেন। যদিও সাভোনার সংখ্যাগরিষ্ঠ সংসদ সদস্যদের সমর্থন ছিল। এর মাধ্যমে সংবিধানে প্রেসিডেন্টের বিশেষ ক্ষমতা বুঝতে পারা যায়। বর্তমান প্রেসিডেন্ট সার্জিও মাতারেল্লা আর রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করছেন না বলে নিশ্চিত করেছেন। এই মূহুর্তে প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘী রাষ্ট্রপতি হওয়ার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় মনে করা হচ্ছে। তিনি রাষ্ট্রপতি হতে চাইলে তাকে প্রধানমন্ত্রীত্ব ছেড়ে দিতে হবে। এতে তার ও দেশের জন্য ভালো হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। এর বাইরে বিশেষ আলোচনা চলছে ইতালির প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও মিডিয়া টাইকুন সিলভিও বার্লুস্কোনির বিষয়ে। ব্যক্তিত্ব ও নৈতিকতা বিরোধী আচরণের জন্য তার সমালোচকরা খারাপ চোখে দেখছেন। সে ট্যাক্স জালিয়াতির জন্য দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন, এখনও ভিন্ন মামলায় জড়িত। তার কুখ্যাত 'বুঙ্গা বুঙ্গা' পার্টি সম্পর্কিত কারণে অনেক সমালোচিত তিনি। এছাড়া তার বয়সও এখন অনেক। তবে দেশটির মধ্য-ডানপন্থী জোট মূলত বার্লুস্কোনির ফরসা ইতালিয়া পার্টি, কট্টর-ডান ফাতেল্লি দি ইতালিয়া এবং জাতীয়তাবাদী লেগা নর্দ নিয়ে গঠিত। আগে বলেছিল যে তারা বার্লুস্কোনির প্রার্থীতাকে সমর্থন করবে। কিন্তু নৈতিকতা ও বিভিন্ন বিষয়ে তাদের মধ্যে ইতিমধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে বলে জানান রোমের রাজনৈতিক মহল। সংসদীয় স্তরে পরিস্থিতি নিম্নরূপ: কেন্দ্র-ডান ব্লক নিয়ন্ত্রণ করে ৪৫৩ ভোট (লেগা, ফরসা ইতালিয়া, ফাতেল্লি দি ইতালিয়া, এনসিআই), কেন্দ্রীয়-বাম (পিডি, এম৫এম, লেইউ) ৪০৮ কেন্দ্রীয়- ডান ব্লক ৭৬ ইতালিয়া ভিভা, অ্যাকশন, মিশ্র গ্রুপে ৭৮ জন সংসদ সদস্য রয়েছে। প্রথম তিনটি ব্যালটে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা ৬৭৮, যখন চতুর্থ ব্যালট বা চূড়ান্ত এটি (৫০%+ ১) যা ৫০৫ -এর চেয়ে বেশি। তবে বেশ জটিল। একজন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করতে উভয়ের মধ্যে একটি খুব বিস্তৃত চুক্তির প্রয়োজন। ডানপন্থী জোট এবং বাম। যদিও চতুর্থ ব্যালট দুটি ব্লকের একটির সঙ্গে কেন্দ্র বাদীদের (ডানদের ক্ষেত্রে) বা কেন্দ্রবাদী এবং মিশ্র (বামদের ক্ষেত্রে) উভয়ের ভোট প্রদান করে। একটি অচলাবস্থা যা চতুর্থ ব্যালটের পরেও একটি পক্ষপাতদুষ্ট প্রার্থীর নির্বাচনকে খুব কঠিন করে তোলে। কিন্তু মোট বা অন্তত আংশিক দুই পক্ষের মধ্যে দূরত্ব সবচেয়ে সম্ভাব্য সমন্বয়ের পথে বাধা থেকে যায়। এই সংমিশ্রণকে জাতীয় ঐক্যের সংখ্যাগরিষ্ঠদের দ্বারাও উৎসাহিত করা হয়েছে। বলা হয় এবারের মত কখনই সরকারের ভাগ্য নতুন রাষ্ট্রপ্রধান নির্বাচনের সঙ্গে যুক্ত নয়। কারণ পরবর্তী দিনগুলোতে রাষ্ট্রপতি অনেক বেশি শক্তিশালী চরিত্রের অধিকারী হবেন বলে মনে করেন ইতালির রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ বিশ্লেষকরা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply