Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » বাবা বেঁচে থাকলে আর শিল্পী হওয়াই ঘটত না লতার! কেন জানেন?




সুরসম্রাজ্ঞী জীবনের প্রথম গানটি গেয়েছিলেন একটি মারাঠি ছবির জন্য। নিজস্ব প্রতিবেদন: বাবা মারা গেলেন বলেই লতার জীবনে বিপর্যয় নেমে এল। এর জন্যই তিনি রোজগার করতে নামলেন। ছবিতে অভিনয় করলেন, গান গাইলেন। আর এই করতে-করতেই ভারত তথা পৃথিবী একদিন পেয়ে গেল অসাধারণ প্রতিভাময়ী এক শিল্পীকে। কিন্তু লতার স্মৃতিচারণ থেকেই জানা গিয়েছে যে, যদি লতার বাবা বেঁচে থাকতেন তবে হয়তো আর পরবর্তী সময়ে শিল্পী হওয়াই হত না লতার! খুব ছোট থেকেই লতার জীবন ছিল কঠিন লড়াইয়ে ভরা। তাঁর ছোটবেলাটা খুব সুখকর ছিল না। বাবা দীননাথ মঙ্গেশকর মারা যাওয়ায় মাত্র ১৩ বছর বয়সেই তাঁকে সংসারের হাল ধরতে হয়েছিল। লতার পরিবারে তখন বিধবা মা আর ছোট ছোট ভাইবোন। তাদের দায়িত্ব এসে পড়ল ছোট্ট লতার ঘাড়ে। লতার হাতে একমাত্র ছিল গান। কিন্তু রোজগারের পরিমাণ বাড়াতে গিয়ে তিনি ফিল্মেও ঢুকেছিলেন। যদিও আটটি ছবিতে কাজ করেও সাফল্যের মুখ দেখেননি তিনি। এমনকী তাঁর জীবনের প্রথম গানও দিনের আলো দেখেনি। সেটি বাদ গিয়েছিল ছবি থেকে। পরবর্তী কালের সুরসম্রাজ্ঞীর জীবনের সেই প্রথম গানটি ছিল-- 'নাচু ইয়া গদে'; একটি মারাঠি ছবির জন্য গানটি গেয়েছিলেন তিনি। জানা গিয়েছিল, লতার বাবা এবং মা কেউই চাইতেন না যে, তাঁদের মেয়ে গানকে পেশা হিসেবে নিক বা গান গেয়ে রোজগার করুক।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply