Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » খাদ্য নিয়ে রাজনীতি করতে দেওয়া যাবে না : খাদ্যমন্ত্রী




খাদ্য নিয়ে রাজনীতি করতে দেওয়া যাবে না : খাদ্যমন্ত্রী

কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে মজুদদারি রোধে করণীয় ও বাজার তদারকি সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। আগামীকাল থেকে চালের বাজার দর যদি না কমে, আমরা যত ভালো ভালো কথাই বলি না কেন; আমাদের প্রশাসন কিন্তু তত ভালো থাকবে না, এটা আমার শেষ কথা। কোনোভাবেই খাদ্য নিয়ে রাজনীতি করতে দেওয়া যাবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। আজ রোববার দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে মজুদদারি রোধে করণীয় ও বাজার তদারকি সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাদ্যমন্ত্রী এ হুঁশিয়ারি দেন। মন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে যুদ্ধ করার পর আবার দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের জন্য নতুন করে যুদ্ধে নামতে হবে, এটা আমার জানা ছিল না। দেশে পর্যাপ্ত চাল ও ধান উৎপাদন হয়। তারপরও চালের দাম বাড়ছে, যা অত্যন্ত দুঃখজনক। মন্ত্রী আরো বলেন, আগামীকাল থেকেই চালের দাম নিম্নমুখী দেখতে চাই। চালের বাজার স্থিতিশীল রাখতে সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা চাই। এই মুহূর্তে চালের পর্যাপ্ত মজুত রয়েছে। তারপরও ধাপেধাপে চালের দাম বাড়ছে, যা কাঙ্ক্ষিত নয়। এর কারণ খতিয়ে দেখতে আমরা মাঠ পর্যায়ের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। মাঠ পর্যায়ের সঠিক তথ্য আমাদের পরিকল্পনা গ্রহণে কাজে লাগবে। এ সময় মন্ত্রী আরও বলেন, কুষ্টিয়ার খাজানগরের রশিদ অ্যাগ্রোফুড লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুর রশিদসহ সারা দেশের চার-পাঁচজন মানুষ বাংলাদেশের চালের বাজার নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। আমি তাদের বলব, আজকেই আপনারা বসেন। আগামীকাল থেকে চালের বাজার দর যদি না কমে আমরা যত ভালো ভালো কথাই বলি না কেন, আমাদের প্রশাসন কিন্তু তত ভালো থাকবে না—এটা আমার শেষ কথা। কোনোভাবেই খাদ্য নিয়ে রাজনীতি করতে দেওয়া যাবে না। সাধন চন্দ্র মজুমদার আরও বলেন, আমাদের মাঠ পর্যায়ে কে, কী করছে—তার আমরা কঠোর নজরদারি রাখছি। মন্ত্রী, সচিব ও ডিজি আমরা ইউনাইটেডলি সততার সঙ্গে, নিষ্ঠার সাথে দুর্নীতিমুক্ত থেকে কাজ করে যাচ্ছি। আমার মাঠ পর্যায়ে যারা আছে তারা যেন সাবধান হয়ে যায়। সাবধানতা ফসকে যদি ভুলবশত কিছু হয়, তাহলে তার নিজের দায় নিজেকেই বহন করতে হবে। কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ সময় খাদ্য সচিব ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম, খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. শাখাওয়াত হোসেন, কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রবিউল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা, বাংলাদেশ অটো মেজর অ্যান্ড হাসকিং মিল মালিক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. আব্দুর রশিদসহ চালকল মালিক সমিতি, বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা ছাড়াও চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক ও খুলনা বিভাগের খাদ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় কাল থেকে সব ধরনের সরু চাল কেজিতে দুই টাকা কমানোর ঘোষণা দেন বাংলাদেশ অটো মেজর অ্যান্ড হাসকিং মিল মালিক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. আব্দুর রশিদ। এর আগে মন্ত্রী বাংলাদেশের বৃহত্তম চালের মোকাম খাজানগরের বেশ কয়েকটি মিল পরিদর্শন করেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply