Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » ইউক্রেনের সর্বত্র বিমান হামলার সতর্ক সংকেত!




ইউক্রেনের প্রায় সর্বত্র বিমান হামলার সতর্ক সংকেত বাজানো হয়েছে। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ইউক্রেনের প্রায় প্রতিটি অঞ্চলে বিমান হামলার সতর্ক সংকেত বাজার মধ্যেই গোলাবর্ষণের খবর এসেছে। এদিকে রাজধানী কিয়েভ ঘিরে রেখেছে রুশ সেনারা। ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরের বেসামরিক স্থাপনায় রুশ বাহিনী হামলা চালিয়েছে। খারকিভ, চেহেরনিভ, সুমি ও মারিওপোলের মতো শহরগুলো ঘিরে রেখেছে রুশ বাহিনী। তারা শহরগুলোতে ব্যাপক বোমা হামলা চালাচ্ছে। জানা যাচ্ছে, ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উপকণ্ঠে দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক লড়াই চলছে। কিয়েভে রাশিয়ার সর্বাত্মক হামলার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এর মধ্যে বন্দর নগরী মারিউপোলসহ অন্যান্য শহরে জরুরি ত্রাণ সহায়তা সরবরাহে নতুন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। রুশ বাহিনীর অব্যাহত হামলায় দেশটিতে মানবিক সংকট তীব্র রূপ নিয়েছে। ইউক্রেনীয় ও রুশ উভয় দেশের কর্মকর্তারাই শনিবার স্বীকার করেছেন, দ্রুত অবনতিশীল মানবিক পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে। এদিকে, কিয়েভের দক্ষিণাঞ্চলে ভাসিলকিভ শহরের কাছে রাশিয়ার রকেট হামলায় ইউক্রেনের একটি বিমানঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গেছে। এছাড়া ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর গোলাবারুদ মজুত করে রাখার একটি স্থাপনায়ও (ডিপো) হামলা চালিয়েছে রুশ বাহিনী। শহরটির মেয়রকে উদ্ধৃত করে রুশ সংবাদ সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, রুশ স্থলবাহিনী একদিনে ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে বহুদূর অগ্রসর হয়েছে। তবে তাদের অবস্থান এখন ঠিক কোথায়, সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্টভাবে কিছু বলা হয়নি। এছাড়া ইউক্রেনের রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীরাও সেভোরোদোনেটস্ক শহরের প্রান্তে পৌঁছে গেলে বলে রুশ মন্ত্রণালয় দাবি করেছে। এদিকে উপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতে রাজধানী কিয়েভ থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার উত্তরের শহর মশচুনের বাড়িঘর গোলার আগুনে জ্বলতে দেখা গেছে। কিয়েভের উপকণ্ঠে রাশিয়ার গোলাবর্ষণের পর আবাসিক ভবন থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখা গেছে। কিয়েভে রাশিয়ার সর্বাত্মক হামলার আশঙ্কার প্রেক্ষিতে শহরটির মেয়র ভিটালি ক্লিসকো বলেন, অবরুদ্ধ শহরটিতে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার এবং খাদ্য ও ঔষধ মজুদ করা হয়েছে। এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, আমরা হাল ছাড়ব না। ইউক্রেনের জাতীয় জরুরি সেবা বিভাগ বলছে, লুহানস্ক অঞ্চলের সেভোরোদোনেটস্ক ও রুবিজন শহরে রাশিয়ার গোলায় কয়েক ডজন আবাসিক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শহর দুটিতে গোলাবর্ষণে বড় ধরনের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। দেশটির জাতীয় জরুরি সেবা বিভাগের তথ্যমতে, রুশ সেনারা রাতভর গোলাবর্ষণ করেছে। এতে শহর দুটির প্রায় ৬০টি ব্যক্তি মালিকানাধীন বাড়ি ও আবাসিক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এক ভিডিও বার্তায় দেশবাসীর প্রতি লড়াই চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। একইসঙ্গে তিনি তার দেশের মিত্রদের প্রতি আরো কিছু করার অনুরোধ জানান। সূত্র- বিবিসি, রয়টার্স।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply