Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » রাশিয়ার বিরুদ্ধে ভোট দেওয়ার কারণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী




রাশিয়া ইউক্রেনে অভিযান চালানোর পর জাতিসংঘে রাশিয়ার বিরুদ্ধে আনা প্রথম প্রস্তাবে বাংলাদেশ ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল, তবে দ্বিতীয় প্রস্তাবে মস্কোর বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে ঢাকা। বুধবার (৩০ মার্চ) জাতীয় সংসদে এই সিদ্ধান্তের কারণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, একটা দেশের বিরুদ্ধে ভোট, সেটা হলো রাশিয়া। তখন আমি বললাম, না, এখানে তো আমরা ভোট দেব না। কারণ, যুদ্ধ তো একা একা বাধে না। উসকানি তো কেউ না কেউ দিচ্ছে। দিয়েটিয়ে তো বাধালো যুদ্ধটা। তাহলে একটা দেশকে নিন্দা করা হবে কেন? সে জন্য আমরা ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিলাম। মুক্তিযুদ্ধের সময়ে বাংলাদেশের পক্ষে রাশিয়ার অবদানের কথা মনে করিয়ে দিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, রাশিয়া আমাদের বন্ধুপ্রতীম দেশ। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় আমেরিকা যখন সেভেন্থ ফ্লিট পাঠায় পাকিস্তানের পক্ষে, রাশিয়া তখন আমাদের পাশে দাঁড়ায়। কাজেই যারা দুঃসময়ে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে, আমরা নিশ্চয়ই তাদের পাশে থাকব। কিন্তু তারা যদি কোনো অন্যায় করে, সেটা আমরা মানব না। আর আমরা যুদ্ধ চাই না। কিন্তু যুদ্ধটা বাধালো কারা, উসস্কানিটা কারা দিলো, সেটাও তো আপনাদের দেখতে হবে। শেখ হাসিনা বলেন, বন্ধুপ্রতীম দেশ হওয়ায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে আনা প্রথম প্রস্তাবে বাংলাদেশ ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল। তবে দ্বিতীয় প্রস্তাবে মানবতার বিষয় থাকায় ভোট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কারণ, এই যুদ্ধের ফলে ইউক্রেনের সাধারণ মানুষের কষ্ট হচ্ছে, ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে সবাই কষ্ট পাচ্ছে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে অভিযান শুরুর পর মার্চ মাসের শুরুতে রাশিয়াকে আক্রমণ বন্ধ করে সেনা প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘে একটি প্রস্তাব আনা হয়েছিল। সেই প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছিল ১৪১ দেশ, বাংলাদেশসহ ৩৫টি দেশ ভোটদানে বিরত ছিল। তবে গত ২৪ মার্চ ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার কারণে সৃষ্ট মানবিক সংকটের অবসানে বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি ত্রাণ কার্যক্রমের সুযোগ দিতে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে আনা প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয় বাংলাদেশ।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply