Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » মস্কোয় রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের বিরল বৈঠক




মস্কোয় রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের বিরল বৈঠক রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের চলমান দা-কুমড়া সম্পর্কের মধ্যে দেশ দুটির প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের মধ্যে বিরল একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউক্রেনে চলমান রুশ সামরিক অভিযানের মধ্যে গত সপ্তাহে মস্কোয় অনুষ্ঠিত হয় বৈঠকটি। মার্কিন সামরিক বাহিনীর একটি নথির বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এ খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন।

প্রতিবেদন মতে, বৈঠকে অন্যান্য রুশ কর্মকর্তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ইভজেনি ইলিন নামের এক জেনারেল। এসময় ইউক্রেন পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার সময় তিনি ‘আবেগপ্রবণ’ হয়ে পড়েন ও বৈঠক কক্ষ থেকে বেরিয়ে যান। জেনারেলের এমন আচরণে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে রুশ সেনাবাহিনীর যে ‘নৈতিক দুর্বলতা’ রয়েছে সেটা প্রকাশ হয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন বৈঠকে উপস্থিত মার্কিন কর্মকর্তারা। সিএনএন জানিয়েছে, স্পর্শকাতর ওই বৈঠকে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের দুই কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। তবে তাদের নাম উল্লেখ করেনি। বৈঠকের ঘটনাবলি নিয়ে লেখা একটি নথি তাদের হাতে এসে পৌঁছেছে। নথিতে ওই দুই কর্মকর্তা বৈঠকে যোগ দেওয়ার প্রেক্ষিত ও সেখানে যা দেখেছেন ও শুনেছেন সেসব বিষয় বর্ণনা করেছেন। প্রতিবেদন মতে, বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয় মস্কোয় রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযান শুরুর পর রুশ ও মার্কিন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের এটাই প্রথম বৈঠক। নথি মতে এই বৈঠক বেশ ‘উত্তেজনাপূর্ণ’ ছিল। এছাড়া আলোচনাকালে রুশ কর্মকর্তাদের মধ্যে একটা বিষাদের চিহ্ন স্পষ্ট ছিল বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। আরও পড়ুন : তিন শতাধিক রুশ রাজনীতিকের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৈঠকে উপস্থিত রুশ জেনারেল ইভজেনি ইলিনের আচরণ কেমন ছিল তা বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়েছে। ইলিন রাশিয়ার ডিরেক্টরেট অব ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশনেরে উপ-প্রধান। এই জেনারেলের মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে ওঠাবসার দীর্ঘ রেকর্ড রয়েছে। বৈঠকের এক পর্যায়ে স্বাভাবিকভাবেই ইলিনের ইউক্রেন সংযোগ তথা তার পারিবারিক বা বংশগত বিষয় জানতে চান এক মার্কিন কর্মকর্তা। নথি মতে, বিষয়টি তোলার সঙ্গে সঙ্গে জেনারেল ইলিন হঠাতই মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখান। তিনি একই সঙ্গে লজ্জায় লাল হয়ে জান ও ক্রুদ্ধ হয়ে ওঠেন। সেই সঙ্গে ইলিন বলে ওঠেন, ‘হ্যা’, তিনি ইউক্রেনের দেনিপ্রোপেত্রোভস্কে জন্ম নেন। এরপর পরিবারের সঙ্গে দোনেস্কে পাড়ি জমান এবং এখানেই স্কুলে পড়াশোনা করেন। ইলিন আরও বলেন, ইউক্রেনের বর্তমান পরিস্থিতি ‘খুবই করুণ এবং এ নিয়ে আমি খুবই মর্মাহত।’ মার্কিন কর্মকর্তাদের দাবি, এরপর তাদের সঙ্গে সৌজন্য করমর্দন না করেই বৈঠক থেকে হেঁটে বের হয়ে যান ইলিন। আরও পড়ুন : ইউক্রেনে রুশ বাহিনী যুদ্ধাপরাধ করেছে, যুক্তরাষ্ট্রের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা ইউক্রেনে রুশ সামরিক অভিযান বন্ধে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। তবে সিএনএন বলেছে, রুশ ও মার্কিন কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠকটি ঠিক কী কারণে অনুষ্ঠিত হয়েছিল বা এর পরিণতি কী কিছুই স্পষ্ট নয়। বৈঠকের আর কোনো নথি আছে কি না সেটাও জানা যায়নি। নথিতে বৈঠকে অংশ নেওয়া ওই দুই মার্কিন কর্মকর্তার নাম নেই। এমনকি পরবর্তীতে তাদের নাম জানতেও সক্ষম হয়নি সিএনএন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply