Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » রাশিয়া থেকে ভারতের তেল কেনা নিয়ে যা বলছে যুক্তরাষ্ট্র




রাশিয়া থেকে বিশেষ ছাড়ে তেল কেনার বিষয়টি বিবেচনা করছে ভারত। মস্কোর সঙ্গে ডলারে লেনদেনে পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞা থাকায় এই তেলের মূল্য পরিশোধ হতে পারে রুপি-রুবল ট্রানজেকশনের মাধ্যমে। এ নিয়ে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, ভারত যদি রাশিয়া থেকে কম দামে তেল আমদানি করে, তবে তাতে নিষেধাজ্ঞার লঙ্ঘন হবে না। তবে এমন সিদ্ধান্ত নয়াদিল্লিকে ‘ইতিহাসের ভুল পক্ষে’ স্থান দেবে বলে মন্তব্য করেছে হোয়াইট হাউস। শুক্রবার (১৮ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এ খবর দিয়েছে ডন। ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর পর পশ্চিমা দেশগুলোর একের পর এক নিষেধাজ্ঞার কারণে জ্বালানি তেল রপ্তানি নিয়ে কিছুটা সংকটে পড়েছে রাশিয়া। এমন অবস্থায় দেশটি থেকে ‘ডিসকাউন্ট’ তথা প্রকৃত মূল্যের কিছু কম দামে তেল কিনে নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভারত। সোমবার ভারতীয় দুই কর্মকর্তার বরাত দিয়ে প্রথম খবর প্রকাশ করে রয়টার্স। বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি কথা বলেন প্রেস সচিব জেন সাকি। তিনি বলেন, আমেরিকা যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তা সব দেশের মেনে চলা উচিত। রাশিয়া থেকে ভারতের কম দামে তেল কেনা নিয়ে সাংবাদিকদেরেএক প্রশ্নের জবাবে জেন সাকি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি এটি নিষেধাজ্ঞার লঙ্ঘন হবে না তবে ইউক্রেন ইস্যুতে তারা কোথায় অবস্থান নিতে চায় সে সম্পর্কে ভারতকে ভেবে দেখার পরামর্শ দেব।’ জেন সাকি আরও বলেন, ‘বর্তমান সময় সম্পর্কে যখন ইতিহাস লেখা হবে তখন রাশিয়া ও রুশ নেতাদেরকে সমর্থন করার কথা লেখা হবে, ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে রাশিয়ার বিপর্যয়কর আগ্রাসনের প্রতি ভারতের সমর্থন ছিল।’ আরও পড়ুন : তেল উত্তোলন ৩০ শতাংশ কমাতে পারে রাশিয়া ভারতের গণমাধ্যম বুধবার জানিয়েছে, দেশের প্রধান তেল কোম্পানি ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন রাশিয়া থেকে ৩০ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল আমদানি করেছে। আন্তর্জাতিক বাজারের চেয়ে কম দামে ভারতের কাছে রাশিয়া তেল বিক্রির প্রস্তাব দিলে নয়াদিল্লি তা গ্রহণ করে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে। মস্কোর ওপর আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টি করার লক্ষ্য নিয়ে রাশিয়ার জ্বালানি খাতের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply