Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » শাহবাজের মন্ত্রিসভায় যোগ দিতে চায় না বিলাওয়ালের দল




পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ (ডানে) ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি। ছবি : সংগৃহীত মন্ত্রিসভা গঠনে জোটের শরিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছেন পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। তবে মন্ত্রিসভায় যোগ দেওয়া নিয়ে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছে জোটের দ্বিতীয় বৃহত্তম শরিক পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)। দ্য নিউজের বরাত দিয়ে আজ বুধবার এ কথা জানিয়েছ জিও নিউজ। মন্ত্রিসভা গঠনে জোটের শরিকদের সঙ্গে আলাদা বৈঠক করেছেন শাহবাজ। এরই মধ্যে পিপিপি নেতা ও সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি, পিপিপি চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি, পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট (পিডিএম) সভাপতি ও জমিয়তে উলেমা-ই-ইসলামের (ফজল) প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান, মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট-পাকিস্তানের (এমকিউএম-পি) নেতারা, বিএপি-মেঙ্গালের প্রধান সরকার আখতার মেঙ্গাল, বিএপির সংসদীয় দলের নেতা খালিদ মাগসি, জমহুরি ওয়াতান পার্টির প্রধান শাহজেইন বুগতি এবং স্বতন্ত্র আইনপ্রণেতা আসলাম ভুটানির সঙ্গে বৈঠক করেছেন তিনি। শরিকদের সঙ্গে বৈঠকে নতুন প্রধানমন্ত্রী জনগণের সব সমস্যা ঐক্য, সহযোগিতা ও পারস্পরিক আস্থার মাধ্যমে সমাধানে তাঁর সংকল্প ব্যক্ত করেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মন্ত্রিসভায় অংশ নিতে অনিচ্ছুক পিপিপি। তার চেয়ে জাতীয় পরিষদে সরকারদলীয় আইনপ্রণেতা হিসেবে তাঁরা সরকারকে ভালোভাবে সমর্থন দিয়ে যাবে। সূত্র মতে, দলটির একাংশ জোট শক্তিশালী করতে মন্ত্রিসভায় যোগ দেওয়ার পক্ষে। তবে অপর অংশ তার চেয়ে দ্রুত নির্বাচনের জন্য নির্বাচনী সংস্কারের ওপর দলের জোর দেওয়া উচিত বলে মনে করছেন। কয়েক দিনের মধ্যে শীর্ষ নেতৃত্ব এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। সূত্রগুলো বলছে, পিপিপি পার্লামেন্টের সাংবিধানিক দপ্তরের দায়িত্ব নিতে বেশি আগ্রহী। দ্বিতীয় ধাপে দলটি মন্ত্রিসভায় যোগ দিতে চায়। স্পিকার পদে রাজা পারভেজ আশরাফ ও সৈয়দ নাভিদ কামারকে প্রার্থী করার বিষয়ে দলে ঐকমত্য রয়েছে। অন্যদিকে জমিয়তে উলেমা-ই-ইসলামের (ফজল) প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমানের ছেলে মাওলানা আসাদ মেহমুদ ডেপুটি স্পিকার হতে পারেন। সূত্র মতে, জারদারি ও বিলাওয়ালের সঙ্গে বৈঠকে মন্ত্রিসভায় পিপিপির অংশগ্রহণের ওপর জোর দেন শাহবাজ। তবে দুই-এক দিনের মধ্যে দল এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বলে তাঁকে জানিয়েছেন জারদারি। এদিকে প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের নেতৃত্বাধীন ফেডারেল মন্ত্রিসভায় না থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট-পাকিস্তান (এমকিউএম-পি)। বরং দলটি সরকারকে বাইরে থেকে সমর্থন দিতে চায়। এমকিউএম-পি আহ্বায়ক খালিদ মকবুল সিদ্দিকী বলেছেন, সিদ্ধান্তটি এরই মধ্যে প্রধানমন্ত্রীকে জানানো হয়েছে






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply