Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » IPL 2022, KKRvsMI: Pat Cummins-এর ব্যাটে শাপমুক্তি, Mumbai-কে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে অবিশ্বাস্য জয় পেয়ে শীর্ষে KKR




Pat Cummins-এর ব্যাটে শাপমুক্তি, Mumbai-কে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে অবিশ্বাস্য জয় পেয়ে শীর্ষে KKR এ দিন টস জিতে প্রত্যাশিতভাবেই প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন নাইট অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার। এবং আগের ম্যাচগুলির মতোই দ্রুত নাইটদের প্রথম উইকেট তুলে দেন উমেশ যাদব।

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স: ১৬১-৪ (সূর্য ৫২, তিলক ৩৮) কেকেআর: ১৬২-৫ (কামিন্স ৫৬, ভেঙ্কটেশ আইয়ার ৫০) কেকেআর ৫ উইকেটে জয়ী। নিজস্ব প্রতিবেদন: এ যেন একেবারে এলেন দেখলেন জয় করলেন। তিনি প্যাট কামিন্স। অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলের অধিনায়ক। যার আসল কাজ উইকেট নেওয়া। সেই প্যাট কামিন্স অসাধ্য সাধন করলেন। তাও আবার ব্যাট হাতে। প্রবল চাপের মধ্যে থেকে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে তাদের প্রবল প্রতিপক্ষ মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে শুধু পাঁচ উইকেটে অবিশ্বাস্য জয়ই এনে দিলেন না, সেই সঙ্গে আইপিএল-এ যুগ্মভাবে দ্রুত গতির অর্ধ শতরান করার রেকর্ডও গড়ে ফেললেন। একই সঙ্গে এই ম্যাচ খুইয়ে চলতি আইপিএল-এ হারের হ্যাটট্রিক করল রোহিত শর্মার মুম্বই। ১৬২ রান তাড়া করতে নেমে কলকাতারও শুরুটা ভাল হয়নি। অজিঙ্কা রাহানে শুরু থেকে ছন্দে ছিলেন না। সাত রানের মাথায় টাইমল মিলসের বল তুলে মারতে গিয়ে ফিরে গেলেন। তিনে নেমেছিলেন শ্রেয়স। কিন্তু ১০ রানেই আউট হলেন অধিনায়ক। স্যাম বিলিংস এসে চালিয়ে খেলার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু টিকতে পারলেন না। সব আশা-ভরসা ছিলেন তখন আন্দ্রে রাসেলই। তবে হতাশ করলেন 'দ্রে রাস'। ফলে একটা সময় ১০১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় কেকেআর। Umesh তবে এরপর বাকিটা সময় বাইশ গজে রাজত্ব করলেন প্যাট কামিন্স। মাত্র ১৫ বলে ৫৬ রানে অপরাজিত থেকে দলকে এনে দিলেন অবিশ্বাস্য জয়। তাঁর এই ধামাকা ইনিংস চারটি চার, ছ’টি ছয় দিয়ে সাজানো ছিল। ভেঙ্কটেশ আইয়ার ৪১ বলে ৫০ রানে অপরাজিত রইলেন। এ দিন টস জিতে প্রত্যাশিতভাবেই প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন নাইট অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার। এবং আগের ম্যাচগুলির মতোই দ্রুত নাইটদের প্রথম উইকেট তুলে দেন উমেশ যাদব। ১২ বলে মাত্র ৩ রান করে আউট হন রোহিত। শুরুর দিকে রানরেটও বাড়াতে পারেনি মুম্বই। এদিন বল হাতে নজর কাড়েন তরুণ রাসিক সালেমও। যার ফলে প্রথম ১০ ওভারেও ৬০ রানের গণ্ডি পেরোতে পারেনি মুম্বই। একটা সময় মনে হচ্ছিল মুম্বই ১৪০ পেরোবে না মুম্বই। তবে, শেষদিকে ডেথ বোলারের অভাব ভোগাল কেকেআরকে। শেষ কয়েক ওভারে দ্রুত রান তুলে মুম্বই পৌঁছে গেল ৪ উইকেটে ১৬১ রানে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply