Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » সেমিফাইনাল’ জিতে বেঁচে রইল লিভারপুলের চার শিরোপার স্বপ্ন




সেমিফাইনাল’ জিতে বেঁচে রইল লিভারপুলের চার শিরোপার স্বপ্ন হিসেবটা সহজই ছিল-সাউদাম্পটনের বিপক্ষে জিততে হবে। তাহলেই বেঁচে থাকবে লিভারপুলের প্রথম ইংলিশ ক্লাব হিসেবে এক মৌসুমে চারটি শিরোপা জয়ের স্বপ্ন। কিন্তু হিসেবটা সহজ হলেও কাজটা ছিল কঠিন। সাউদাম্পটনের বিপক্ষে কঠিন সেই কাজটা আজ সাধন করেছে লিভারপুল। ২-১ গোলে জিতে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল বাঁচিয়ে রেখেছে শিরোপা চতুষ্টয়ের স্বপ্ন। অনেক দিন ধরেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা লড়াইয়ে ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে গায়ে গা ঘেষে এগোচ্ছে লিভারপুল। সিটি তাদের সর্বশেষ ম্যাচে ওয়েস্ট হামের মাঠ থেকে ড্র করে ফেরায় আজ সাউদাম্পটনের বিপক্ষে লড়াইটি লিভারপুলের জন্য হয়ে যায় অঘোষিত সেমিফাইনাল। জিতলে শিরোপা চতুষ্টয়ের স্বপ্ন বেঁচে থাকবে, হারলে নয়। বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন দলকে সমতায় ফেরানো গোলের পর সতীর্থ ফিরমিনোর আলিঙ্গনে মিনামিনো দলকে সমতায় ফেরানো গোলের পর সতীর্থ ফিরমিনোর আলিঙ্গনে মিনামিনোছবি: রয়টার্স কাজটা যে সহজ নয় তা ম্যাচের ১২ মিনিটেই টের পায় লিভারপুল। মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের দুর্দান্ত এক পাস থেকে বাঁ প্রান্তে বল পেয়ে যান সাউদাম্পটনের নাথান রেডমন্ড। লিভারপুলের চার-পাঁচজন খেলোয়াড়ের মাঝ দিয়ে বাঁকানো এক শট নেন তিনি। দূরের পোস্ট দিয়ে সেই শট আলিসনকে ফাঁকি দিয়ে আশ্রয় নেয় জালে। এগিয়ে যায় সাউদাম্পটন। লিভারপুলের কোচ ক্লপ অবশ্য গোল নিয়ে ডাগআউটে আপত্তি করেছিলেন। তাঁর দাবি গোলটির বিল্ড আপে ফাউল করেছিলেন এক সাউদাম্পটন খেলোয়াড়। রেফারি ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সাহায্য নিয়েছিলেন, কিন্তু ক্লপের আবেদন ধোপে টেকেনি। ৭ মিনিট পরই সাউদাম্পটনের জালে বল পাঠান ফিরমিনো। কিন্তু ফ্রি-কিক থেকে তাঁর নেওয়া হেড জালে জড়ালেও অফসাইডের বাঁশি বাজান রেফারি। বিজ্ঞাপন জয়সূচক গোলের পর মাতিপকে নিয়ে লিভারপুলের খেলোয়াড়দের উচ্ছ্বাস জয়সূচক গোলের পর মাতিপকে নিয়ে লিভারপুলের খেলোয়াড়দের উচ্ছ্বাসছবি: রয়টার্স তবে গোল শোধের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি লিভারপুলকে। ২৭ মিনিটে দিয়োগা জোতার পাস ধরে ডানপ্রান্ত দিয়ে বক্সের মধ্যে ঢুকে যান তাকুমি মিনামিনো। জাপনি খেলোয়াড় অসাধারণ এক শটে লিভারপুলকে সমতায় ফেরান। গোলের পর অবশ্য উদ্্যাপন করেননি তিনি। কারণ কিছুদিন আগেও যে সাউদাম্পটনে ধারে খেলে এসেছেন মিনামিনো। প্রথমার্ধে এগিয়ে যাওয়ার আরও সুযোগ পায় লিভারপুল। কিন্তু কখনো রবার্তো ফিরমিনো, কখনো আবার জোতার ভুলের কারণে আর এগিয়ে যাওয়া হয়নি তাদের। সুযোগ পেয়েছিল সাউদাম্পটনও। তবে লিভারপুলের রক্ষণ আর গোল পোস্টের নিচে আলিসনের দৃঢ়তার কারণে এগিয়ে যেতে পারেনি তারা। অবশেষে ৬৭ মিনিটে লিভারপুলের সমর্থকদের আনন্দে ভাসার উপলক্ষ এনে দেন জােয়েল মাতিপ। ম্যাচে লিভারপুলের পাওয়া অষ্টম কর্নার কিকটি নেন কনস্টানটিনোস সিমিকাস। সেই কর্নার থেকে হেডে লিভারপুলের জয়সূচক গোলটি করেন মাতিপ। ম্যাচ শেষে দুই দলের খেলোয়াড়দের শুভেচ্ছা বিনিময় ম্যাচ শেষে দুই দলের খেলোয়াড়দের শুভেচ্ছা বিনিময়ছবি: রয়টার্স এই জয়ের পর ৩৭ ম্যাচে লিভারপুলের পয়েন্ট ৮৯। সমান ম্যাচে শীর্ষে থাকা ম্যান সিটির পয়েন্ট ৯০। লিগের শেষ ম্যাচটি তাই দুই দলের জন্যই ‌'ফাইনাল'। সিটি আগামী রোববার মুখোমুখি হবে লিভারপুলের সাবেক মিডফিল্ডার স্টিভেন জেরার্ডের দল অ্যাস্টন ভিলার। এই ম্যাচে সিটি যদি পয়েন্ট হারায় আর লিভারপুল নিজেদের মাঠে উলভসকে হারাতে পারে তাহলেই শিরোপা জিতবে ক্লপের দল। লিগ কাপ, এফএ কাপ, লিগ-চার শিরোপার তিনটি জেতা হয়ে যাবে লিভারপুলের। শিরোপা চতুষ্টয় জিততে এরপর শুধু বাকি থাকবে চ্যাম্পিয়নস লিগ। আগামী ২৮ মে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে তারা






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply