Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মেহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৭জন কাউন্সিলর পুনর্নির্বাচিত




মেহেরপুর পৌর নির্বাচনে ৭ কাউন্সিলর পুনর্নির্বাচিত

মেহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৭জন কাউন্সিলর পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি দুটির মধ্যে একটিতে সাবেক কাউন্সিলর এবং অপরটিতে নতুন মুখ এসেছে। বুধবার অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ডে মীর জাহাঙ্গীর আলম(পানির বোতল) ২ নম্বর ওয়ার্ডে আল মামুন (টেবিল ল্যাম্প) ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সৈয়দ আবু আব্দুল্লাহ (পানির বোতল) ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক শাহিনুর রহমান রিটন (পাঞ্জাবি), ৭ নম্বর ওয়ার্ডের নুরুল আশরাফ রাজিব (উটপাখি), ৮ নম্বর ওয়ার্ডে সৈয়দ মঞ্জুরুল কবীর রিপন (ডালিম) এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সোহেল রানা (পানির বোতল) প্রতীক নিয়ে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া ৪ নম্বর ওয়ার্ডে সাবেক কাউন্সিলর আব্দুর রহিম এবং ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মোস্তাক আহমেদ নতুন মুখ হিসেবে পৌরসভায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। মেহেরপুর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটারদের মন জয় করতে মেহেরপুর পৌরসভার কাউন্সিলর পদে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। এতে মীর জাহাঙ্গীর আলম(পানির বোতল) প্রতীক নিয়ে ১৮০১ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী গোলাম ফারুক ৬৮৮ ভোট পান। ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটারদের মন জয় করতে কাউন্সিলর পদে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এতে সদ্য সাবেক হওয়া আল মামুন(টেবিল ল্যাম্প) ১১৯৭ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী ইয়াসিন আলি শামিম(পানির বোতল) প্রতীক নিয়ে ৫৪৪ ভোট লাভ করেন। ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটারদের মন জয় করতে মেহেরপুর পৌরসভার কাউন্সিলর পদে ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এতে সৈয়দ আবু আব্দুল্লাহ (পানির বোতল) ৮৫৪ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর পদে পুনর্নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম (উটপাখি) প্রতীক নিয়ে ৪৭০ ভোট পান। ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটারদের মন জয় করতে মেহেরপুর পৌরসভার কাউন্সিলর পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এতে সাবেক কমিশনার আব্দুর রহিম(পানির বোতল)২০৮৩ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী সাবেক প্যানেল মেয়র রিয়াজ তুল্লাহ (উটপাখি) প্রতীক নিয়ে ১২৭৮ ভোট পান। ৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এতে মোস্তাক আহমেদ ব্রিজ প্রতীক নিয়ে ৭১২ ভোট পেয়ে প্রথমবারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী আক্তারুল ইসলাম পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ৫৮৪ ভোট পান।৬নং ওয়ার্ডে ৪ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হন। এতে সাবেক প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান(পাঞ্জাবি) ৮০৫ ভোট পেয়ে পুনর্নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী সৈয়দ মঞ্জুরুল হাসান(পানির বোতল) প্রতীক নিয়ে ৭১১ ভোট পান। ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ভোটারদের মন জয় করতে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। সাবেক কাউন্সিলর নুরুল আশরাফ রাজিব (উটপাখি) ১৪৫৩ ভোট পেয়ে পূর্ণ নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী ইলিয়াস হোসেন (গাজর) প্রতীক নিয়ে ৭৩৭ ভোট লাভ করেন। ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটারদের মন জয় করতে মোট ৮ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হন। এতে সাবেক কাউন্সিলর সৈয়দ মঞ্জুরুল কবীর (ডালিম) প্রতীক নিয়ে ৬১০ ভোট পেয়ে পুনর্নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী রিন্টু রহমান (উটপাখি) প্রতীক নিয়ে ৪৭৩ ভোট পান। এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটারদের মন জয় করতে মোট ৩ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হন। এতে সাবেক কাউন্সিলর সোহেল রানা (পানির বোতল) প্রতীক নিয়ে ১২৯৩ ভোট পেয়ে পুনর্নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী হামিদুল ইসলাম (টেবিল ল্যাম্প প্রতীক) নিয়ে ৭০৩ ভোট পান। এদিকে মেহেরপুর পৌর সভার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ড (১,২,৩) দিল আফরোজ (চশমা) প্রতীক নিয়ে ৩ হাজার ২৫৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী সাবেক কাউন্সিলর আলপনা খাতুন ২৬২৮ ভোট লাভ করেন। ২নং ওয়ার্ড (৪,৫,৬) শারমিনা পারভীন (বলপেন) প্রতীক নিয়ে ১৫৩৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী আফরোজা খাতুন(টেলিফোন) প্রতীক নিয়ে ১৪০৬ ভোট লাভ করেন। ৩নং ওয়ার্ড (৭,৮,৯)রোকসানা কামাল রুনু (আনারস) প্রতীক নিয়ে ৪৭১৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন।তার নিকটতম প্রার্থী সাবেক কাউন্সিলর হামিদা (চশমা) প্রতীক নিয়ে ১৮৯৮ ভোট পান।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply