Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » নূপুর শর্মা ইস্যুতে শান্ত হয়ে গেছেন বিজেপি নেতারা




মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) মুখপাত্র নূপুর শর্মার বিতর্কিত মন্তব্যের সহিংসতার রেশ কাটেনি। দেশটির উত্তরপ্রদেশসহ বিভিন্ন রাজ্যে বিক্ষোভ-সহিংসতায় অন্তত দুজনের প্রাণহানি আর গ্রেফতার হয়েছেন তিন শতাধিক বিক্ষোভকারী। এ ছাড়া ভেঙে দেওয়া হয়েছে বিক্ষোভকারী কয়েকজনের বাড়িঘর। শুধু দেশে নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিশেষ করে মুসলিমপ্রধান দেশগুলোর প্রতিবাদেরও মুখেও পড়ে নরেন্দ্র মোদি সরকার। নূপুর শর্মা ইস্যুতে শান্ত হয়ে গেছেন বিজেপি নেতারা এ পরিস্থিতিতে ভারতের সঙ্গে মুসলিম বিশ্ব তথা উপসাগরীয় দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কের অবনতির আশঙ্কা করছেন কুটনীতিকরা। তবে পরিস্থিতি যাতে আর বিরূপ না হয়, সে জন্য কেন্দ্রীয় বিজেপির পক্ষ থেকে নেতাকর্মীদের এ বিষয়ে কথা বলার ক্ষেত্রে আরও সতর্ক হওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, এ নির্দেশনার পর কেন্দ্রীয় ও রাজ্যের নেতারা এ বিষয়ে মন্তব্য করা থেকে বিরত রয়েছেন। বিশেষ করে কর্ণাটক ও মধ্যপ্রদেশের নেতারা এ বিষয়ে কোনো বিতর্কে যাবেন না বলে জানিয়েছে বিজেপি সূত্র। ক্ষমতাসীন দলটির এক নেতা বলেন, সব ধর্মের মানুষকে নিয়েই বিজেপি সরকার কাজ করছে। মুসলিমরা বাইরের কেউ নন, তারা আমাদের সংস্কৃতিরই অংশ, তাদের পূর্বপুরুষদের অনেকেই হিন্দু ছিলেন। আরও পড়ুন: মুসলিম বিশ্বের জাঁতাকলে ভারত এদিকে উদ্ভূত এ পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। প্রসঙ্গত, বিজেপি ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ভারতে ইসলামবিদ্বেষ ও মুসলমানদের ওপর আক্রমণের ঘটনা ঘটছে। কিন্তু এর আগে এমন প্রতিক্রিয়া কখনো দেখায়নি আরব বা উপসাগরীয় দেশগুলো। বিজেপির বিতর্কিত নেতা নূপুর শর্মাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত এবং নবীন কুমার জিন্দালকে দল থেকেই বহিষ্কার করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে বিজেপি জানিয়েছে, তারা যে কোনো ধর্মের বা যে কোনো ধর্মীয় ব্যক্তিত্বকে অপমানের নিন্দা করে। কোনো সম্প্রদায় বা ধর্মকে অপমান করা, বা হেয় করা- বিজেপি এমন আদর্শেরও বিরুদ্ধে। বিজেপির ওই দুই নেতা এরই মধ্যে প্রকাশ্যে ক্ষমাও চেয়েছেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply