Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতেই আল-জাজিরার সাংবাদিক নিহত: জাতিসংঘ




ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতেই আল-জাজিরার সাংবাদিক নিহত: জাতিসংঘ

ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতেই আল-জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থার কর্মকর্তারা বলেছেন, এখন পর্যন্ত যেসব তথ্য-উপাত্ত হাতে এসেছে তাতে দেখা যাচ্ছে, যে গুলিতে সাংবাদিক আবু আকলেহ নিহত হয়েছেন, তা ইসরাইলি বাহিনীই ছুড়েছিল। গত ১১ মে দখলকৃত পশ্চিম তীরে ইসরাইলি বাহিনীর অভিযানের সংবাদ সংগ্রহের সময় জেনিন শহরে গুলিতে প্রাণ হারান আল-জাজিরার জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আবু আকলেহ। শুক্রবার (২৪ জুন) এক সংবাদ সম্মেলনে জাতিসংঘ মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থার (ওএইচসিএইচআর) মুখপাত্র রাভিনা শামদাসানি বলেন, ‘আমরা যেসব তথ্য-উপাত্ত পেয়েছি, তার সঙ্গে আগের তদন্ত প্রতিবেদনগুলোর মিল রয়েছে। যে গুলিতে আবু আকলেহ নিহত ও তার সহকর্মী আলি সামৌদি আহত হন, তা ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনীর বন্দুক থেকে ছোড়া হয়েছিল, কোনোভাবেই সশস্ত্র ফিলিস্তিনিদের থেকে নয়।’ শামদাসানি আরও বলেন, ওএইচসিএইচআরের তদন্তে ওইদিন ঘটনাস্থলের আশপাশে কিংবা আল-জাজিরা সাংবাদিক দলের সন্নিকটে সশস্ত্র ফিলিস্তিনিদের কোনো তৎপরতাই পাওয়া যায়নি। আবু আকলেহর হত্যাকাণ্ড ফিলিস্তিনিদের পাশাপাশি পুরো বিশ্বকেই ক্ষুব্ধ করে। ওই হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই তার মৃত্যু নিয়ে দোষারোপের খেলা খেলছে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ। প্রথম দিকে তদন্তের ঘোষণা দিয়েও শেষ পর্যন্ত তা স্থগিত করে তারা। তবে প্রত্যক্ষদর্শী অনেকেই বলছেন, ইসরাইলি বাহিনীই তাকে গুলি করে হত্যা করেছে। প্রভাবশালী বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের তদন্তেও একই রিপোর্ট এসেছে। আরও পড়ুন : আইআরজিসির গোয়েন্দা বিভাগের নতুন প্রধান নিয়োগ সবশেষ মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসের তদন্তে উঠে আসে এ-সংক্রান্ত আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য। সাংবাদিক শিরিন হত্যাকাণ্ড নিয়ে তদন্ত করে সোমবার (২০ জুন) এক প্রতিবেদন প্রকাশ করে নিউইয়র্ক টাইমস। এতে বলা হয়, একজন ইসরাইলি সেনা ‘সম্ভবত’ আল-জাজিরার সাংবাদিক আবু আকলেহকে গুলি করে হত্যা করেছে। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, অধিকৃত পশ্চিম তীরে আবু আকলেহ যখন নিহত হন, তখন সেখানে সশস্ত্র কোনো ফিলিস্তিনি ছিল না। এ ঘটনার জন্য ইসরাইল শুরু থেকেই ফিলিস্তিনিদের দায়ী করলেও নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে তা খারিজ করে দেয়া হয়। ইসরাইলি বাহিনীর অভিযানের বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজ, সাক্ষীদের সাক্ষ্য এবং আবু আকলেহ নিহত হওয়ার সময় গুলি চালানোর ‘ধ্বনিমূলক বিশ্লেষণের’ ওপর নির্ভর করে এ তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করেছে নিউইয়র্ক টাইমস। আরও পড়ুন : ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলে সুনামি সতর্কতা জাতিসংঘের মাসব্যাপী ওই তদন্তের পর চলতি সপ্তাহে সংবাদমাধ্যমটি জানায়, আবু আকলেহ যে বুলেটের আঘাতে নিহত হয়েছেন, সেটি ইসরাইলি সামরিক কনভয়ের দিক থেকেই ছোড়া হয়েছিল। ‘সম্ভবত’ ইসরাইলি বাহিনীর এলিট ইউনিটের একজন সেনা শিরিনকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এদিকে সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা এক তদন্তে সাংবাদিক আবু আকলেহকে হত্যায় ব্যবহৃত বুলেটের একটি ছবি মিলেছে। ব্যালিস্টিক এবং ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের মতে, ‘সবুজ টিপযুক্ত’ বুলেটটি মূলত বর্ম ছিদ্র করার জন্য ডিজাইন করা এবং এটি এম-৪ রাইফেলে ব্যবহৃত হয়। বুলেটটি শিরিনের মাথা থেকে বের করা হয়েছিল। এ ধরনের বুলেট সাধারণত ইসরাইলি বাহিনী ব্যবহার করে। বুলেটটি যুক্তরাষ্ট্রে ডিজাইন ও তৈরি করা হয়েছে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা। জর্ডানের সাবেক মেজর জেনারেল ফয়েজ আল-দোয়াইরি আল-জাজিরাকে বলেছেন, আবু আকলেহকে হত্যা করার জন্য ব্যবহৃত অস্ত্র এবং বুলেট নিয়মিত ইসরাইলি বাহিনী বহন করে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply