Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » রাশিয়ার ভৌগলিক লক্ষ্য শুধু ডনবাস দখলের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকছে না রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লাভরভের হুঁশিয়ারি।




ইউক্রেনে যত বেশি দূরপাল্লার অস্ত্র যাবে, রাশিয়া তত বেশি এলাকা নেবে- রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লাভরভের হুঁশিয়ারি সের্গেই লাভরভ, রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ হুঁশিয়ার করেছেন ইউক্রেনের হাতে পশ্চিমা দূরপাল্লার অস্ত্র আসার পর সেদেশে রাশিয়ার ভৌগলিক লক্ষ্য শুধু ডনবাস দখলের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকছে না। রাষ্ট্রীয় টিভি রাশিয়ান টেলিভিশনের (আরটি) সাথে এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে মি লাভ

রভ বলেন, পশ্চিমা দেশগুলো দূরপাল্লার রকেট ও কামান সরবরাহ বাড়িয়ে দেওয়ার রাশিয়া তাদের 'বিশেষ সামরিক অভিযানের' ভৌগলিক লক্ষ্য এরই মধ্যে পূর্বের ডনবাস ছাড়িয়ে দক্ষিণের খেরসন এবং জাপোরোৎজিয়া অঞ্চলে প্রসারিত করেছে। অর্থাৎ, রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রকারান্তরে হুমকি দেন পূর্বের ডনবাসের বাইরেও আরো এলাকা দখলের লক্ষ্য নিচ্ছে রাশিয়া। তিনি যুক্তি দেন, ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণে থাকা এলাকা থেকে পশ্চিমা এসব দূরপাল্লার অস্ত্র যাতে রাশিয়ার ভূখণ্ডে হুমকি তৈরি না করতে পারে সেজন্যই এই সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। "প্রেসিডেন্ট (পুতিন) খুব স্পষ্ট করে (ইউক্রেনকে) নাৎসীমুক্ত এবং সেনামুক্ত করার কথা বলেছেন যাতে আমাদের নিরাপত্তা হুমকিতে না পড়ে। ইউক্রেনের ভেতর থেকে কোনো সামরিক হুমকি তৈরি হলে, আমাদের সেই লক্ষ্য অর্জনের কাজ অব্যাহত থাকবে।" মি. লাভরভ বলেন, মার্চের শেষে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে শান্তি স্থাপনে যখন কথাবার্তা হয়েছিল তখনকার চেয়ে রণাঙ্গনের বাস্তব পরিস্থিতি অনেকটাই বদলে গেছে। "ভৌগলিক লক্ষ্য এখন অনেক আলাদা। এই লক্ষ্য এখন দনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিক এবং লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। এখন এটির লক্ষ্য খেরসন অঞ্চল, জাপোরোৎজিয়া এবং আরো বেশি কিছু এলাকা।" আমেরিকার ক্ষেপণাস্ত্র বদলে দিচ্ছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের চিত্র রুশদের দখলে মারিউপোল, ইউক্রেনে আরও অস্ত্র পাঠানোর ঘোষণা বাইডেনের কিভাবে ঘনিষ্ঠ হলেন পুতিন এবং এরদোয়ান? 'বেমানান' এই সম্পর্ক কত শক্ত? মি. লাভরভ বলেন, ইউক্রেনের নতুন নতুন এলাকা নিয়ন্ত্রণে আনার এই প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, পশ্চিমা দেশগুলো, তার ভাষায়, 'অক্ষম ক্রোধের বশবর্তী হয়ে' ইউক্রেনকে হিমার্সের (মার্কিন রকেট) মত দূরপাল্লার অস্ত্র জুগিয়ে চলেছে, ফলে রাশিয়ার 'বিশেষ সামরিক অভিযানের' রণাঙ্গন ইউক্রেনের আরো অভ্যন্তরে প্রসারিত হবে। "জেলেনস্কি বা তার বদলে ভবিষ্যতে যিনি ক্ষমতায় আসুক না কেন তার নিয়ন্ত্রণের থাকা ইউক্রেনের এলাকায় মোতায়েন করা অস্ত্র আমাদের এলাকায় এবং যে দুটি রিপাবলিক (দনেৎস্ক এবং লুহানস্ক) স্বাধীনতা ঘোষণা করেছে সেখানে সরাসরি হুমকি তৈরি করবে - তা আমরা হতে দেব না।" মার্কিন অস্ত্র রণাঙ্গনের চিত্র পাল্টে দিচ্ছে? রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী এই হুঁশিয়ারি এমন সময় দিলেন যখন ইউক্রেন দাবি করছে যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া দূরপাল্লার রকেট ও ক্ষেপণাস্ত্র রণাঙ্গনের চিত্র পাল্টে দিচ্ছে। আমেরিকার তৈরি দূরপাল্লার কামান (হিমারস্‌) পেয়েছে ইউক্রেন আমেরিকার তৈরি দূরপাল্লার কামান (হিমারস্‌) পেয়েছে ইউক্রেন দুদিন আগে ইউক্রেনের একজন শীর্ষ জেনারেল এই দাবি করেন। জেনারেল ভ্যালেরি জালুঝনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে যেসব দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র তারা পেয়েছেন তা দিয়ে তারা শত্রুদের কমান্ড পোস্ট, গোলা বারুদ এবং জ্বালানির গুদামে হামলা করতে পারছেন। রয়টার্স জানিয়েছে, রাশিয়ার সরবরাহ লাইনে এসব ক্ষেপণাস্ত্র হামলা করার পর রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু তার সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন, ইউক্রেনের এসব ক্ষেপণাস্ত্র আর গোলাবারুদ ধ্বংসে যেন সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হয়। ওদিকে, মি. লাভরভের এই সাক্ষাৎকার প্রচারের আগের দিন যুক্তরাষ্ট্রের একজন সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তা বলেন ক্রাইমিয়ার মতো করে ইউক্রেনের আরও এলাকা রাশিয়ার অঙ্গীভূত করে নেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। মার্কিন গোয়েন্দা তথ্যের বরাত দিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র জন কারবি বলেন, এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এই মধ্যেই রাশিয়া কাজ শুরু করে দিয়েছে। তিনি বলেন, এজন্য ইউক্রেনের দখল করা এলাকায় 'লোক দেখানো গণভোট' আয়োজন করা হতে পারে যে সেই এলাকার বাসিন্দারা রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হতে চায় কিনা। আগামী সেপ্টেম্বর মাসেই এ ধরনের গণভোট আয়োজিত হতে পারে। ২০১৪ সালে ক্রাইমিয়া দখলের পর রাশিয়া সেখানে গণভোট করে অঞ্চলটি রাশিয়ার অংশ করে নিয়েছিল






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply