Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » এবার আবাসনমন্ত্রীকে বরখাস্ত করলেন বরিস জনসন




এবার আবাসনমন্ত্রীকে বরখাস্ত করলেন বরিস জনসন

ক্ষিপ্ত হয়ে এবার আবাসনমন্ত্রীকে বরখাস্ত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। বুধবার (৬ জুলাই) গার্ডিয়ানের খবর বলছে, মন্ত্রিসভার সদস্যদের একটি প্রতিনিধি দল বরিস জনসনকে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন। যদিও ওই প্রতিনিধি দলে মাইকেল গভ ছিলেন না। তবে বুধবার সকালে বরিস জনসনের সঙ্গে দেখা করে তাকে ক্ষমতা ছাড়তে পরামর্শ দেন তিনি। নিজের দলীয় নেতা হওয়ার ইচ্ছা নেই বলেও প্রধানমন্ত্রীকে জানান গভ। এর আগে ৩০ জুনিয়র মন্ত্রী ও পার্লামেন্টারি সহযোগীসহ অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ পদত্যাগ করেছেন। গেল কয়েক সপ্তাহ ধরে মাইকেল গভের বিরুদ্ধে ব্রিফ করে আসছে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের অফিস। সংবাদমাধ্যমে বরিস জনসনের বিরুদ্ধে নেতিবাচক মন্তব্যের জন্য তাকে দায়ী করা হয়েছে। গভকে বরখাস্তের পর অন্য মন্ত্রিপরিষদ সদস্যরাও পদত্যাগ করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে পদত্যাগের কারণ হিসেবে ঋষি সুনাক বলেন, জনগণ চায় সরকার যথাযথ, দক্ষতা ও গুরুত্বের সঙ্গে পরিচালিত হোক। এবারই আমার সর্বশেষ মন্ত্রিত্বের দায়িত্ব হতে পারে বলে মেনে নিয়েছি। কিন্তু আমার ধারণা, এই মানদণ্ডের জন্য লড়াই করা যায়, যে কারণে আমি পদত্যাগ করছি। আরও পড়ুন: নয় মন্ত্রীর পদত্যাগে কোণঠাসা বরিস আর সাজিদ জাভিদ বলেন, জনগণ এই সিদ্ধান্তে এসেছে যে সরকারের দক্ষতাও নেই, জনপ্রিয়তাও নেই। কিন্তু বরিস জনসনের নেতৃত্বে এই পরিস্থিতির পরিবর্তন আসা সম্ভব না। সরকারের কাছ থেকে যথাযথ দায়িত্ব পালন আশা করছে ব্রিটিশ জনগণ। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি আরও বলেন, নেতা হিসেবে যে সুর আপনি তুলেছেন, যে মূল্যবোধের প্রতিনিধিত্ব করছেন—আপনার সহকর্মী, দল ও সর্বোপরি দেশের ওপর তা প্রতিফলন ঘটছে। সাজিদ জাভিদ বলেন, বাস্তবসম্মত নীতিনির্ধারণে ক্ষমতাসীন রক্ষণশীল দল তার সর্বোচ্চটা দেখিয়েছে। দলটি শক্তিশালী মূল্যবোধের মাধ্যমে পরিচালিত হয়েছে। আমরা সবসময়ই জনপ্রিয় থাকব না, কিন্তু জাতীয় স্বার্থ রক্ষায় দক্ষ হতে হবে। তিনি জানান, দুঃখজনকভাবে বর্তমান পরিস্থিতিতে ব্রিটিশ সরকার সেই অবস্থায় নেই বলে মনে করে জনগণ। এদিকে বিরোধী দল লেবার প্রধান স্যার কিয়ের স্ট্যামার বলেন, জাতীয় স্বার্থে বরিস জনসনকে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দিতে মন্ত্রীদের পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। হয় তারা নিজেরা পদত্যাগ করবেন অথবা প্রধানমন্ত্রীকে সরিয়ে দেবেন






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply