Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » কোন ভূমিকায় সবচেয়ে সফল ওঁর 'দাদি'? জানালেন সচিন তেন্ডুলকর




কোন ভূমিকায় সবচেয়ে সফল ওঁর 'দাদি'? জানালেন সচিন তেন্ডুলকর সৌরভের আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রেখেছিলেন। শুরু করেছিলেন ১৯৮৯ সালে। সেখানে সৌরভ ১৯৯২ সালের অস্ট্রেলিয়া সফরে একদিনের ক্রিকেটে অভিষেক ঘটালেও, ১৯৯৬ সালে লর্ডসে অভিষেক টেস্টে শতরানের পর বিশেষ পরিচিতি পেয়েছিলেন।

দেখতে দেখতে কেটে গেল ৩৫ বছর। প্রথমবার জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে (NCA) ওঁদের আলাপ। একজন সচিন তেন্ডুলকর (Sachin Tendulkar)। আর একজন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly)। দীর্ঘ ৩৫ বছর কেটে গেলেও ওঁদের বন্ধুত্ব এখনও অটুট। মহারাজের মতো তিনিও এই মুহূর্তে লন্ডনে রয়েছেন। বন্ধুর প্রি-বার্থ ডে (Sourav Ganguly Birthday) সেলিব্রেশনে উপস্থিত ছিলেন স্ত্রী অঞ্জলির সঙ্গে। সৌরভের আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রেখেছিলেন। শুরু করেছিলেন ১৯৮৯ সালে। সেখানে সৌরভ ১৯৯২ সালের অস্ট্রেলিয়া সফরে একদিনের ক্রিকেটে অভিষেক ঘটালেও, ১৯৯৬ সালে লর্ডসে অভিষেক টেস্টে শতরানের পর বিশেষ পরিচিতি পেয়েছিলেন। এহেন প্রিয় 'দাদি'-কে এত বছর ধরে বিভিন্ন ভূমিকায় দেখেছেন সচিন। এহেন বিসিসিআই সভাপতির জন্মদিনের হাফ সেঞ্চুরির (Sourav Ganguly At 50) আগে স্মৃতিচারণে 'মাস্টার ব্লাস্টার'। Sourav, Sachin, Anjali, Dona ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়কের প্রসঙ্গ এলেই সচিন বলেন, "সৌরভ একজন গ্রেট অধিনায়ক। কী ভাবে ক্রিকেটারদের স্বাধীনতা দিতে হবে এবং কী ভাবে সতীর্থদের কাছ থেকে সেরা পারফরম্যান্স বের করে আনতে হয় সেটা দাদি খুব ভাল ভাবে জানত। ও দায়িত্ব নেওয়ার সময় ভারতীয় ক্রিকেটের অবস্থা কেমন ছিল সেটা সবাই জানি। তবে সব নেতিবাচক বিষয়কে দূরে সরিয়ে সৌরভ ভবিষ্যতের জন্য বেশ কিছু প্রতিভা তুলে এনেছিল। আর সেইজন্য ভারতীয় ক্রিকেট অনেকটা এগিয়ে যায়।" Sourav and Sachin অধিনায়ক সৌরভের আমলে প্রাদেশিকতা দূর হয়েছিল। পরোক্ষ ভাবে সেটাও মেনে নিলেন 'আধুনিক ক্রিকেটের ডন'। সচিন যোগ করেন, "ওর আমলে জাহির খান, আশিস নেহরা, যুবরাজ সিং, হরভজন সিং, বীরেন্দ্র শেহওয়াগ, মহম্মদ কাইফের মতো প্রতিভা খুঁজে পেয়েছিলাম। মহেন্দ্র সিং ধোনির কথাও আমরা সবাই জানি। এই ছেলেগুলোই কিন্তু কয়েক বছরের মধ্যে তারকা হয়ে উঠেছিল। আসলে ওরা সবাই ম্যাচ উইনার। সৌরভ সেটা বুঝতে পেরেছিল বলেই ওদের পাশে দাঁড়িয়েছিল। প্রত্যেককে নির্দিষ্ট দায়িত্ব দেওয়া ছিল। দিয়েছিল পূর্ণ স্বাধীনতা।" কিন্তু সৌরভ যে জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দিতে পারেন, সেটা কবে বুঝেছিলেন সচিন। তিনি বলেন, "১৯৯৯ সালের অস্ট্রেলিয়া সফরে উড়ে যাওয়ার আগে সৌরভকে সহ অধিনায়ক হিসেবে চেয়েছিলাম। কারণ আমার বিশ্বাস ছিল সৌরভের মধ্যে নেতৃত্ব দেওয়ার সব গুণ রয়েছে। আর সেটাই হল। ওকে কিন্তু আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply