Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » গুজরাটের সমুদ্র উপকূলে সিংহের আনাগোনা




গুজরাটের সমুদ্র উপকূলে সিংহের আনাগোনা ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য গুজরাটের উপকূলীয় এলাকায় সমুদ্র উপকূলে সিংহের আনাগোনা বাড়ছে। এ এলাকায় এখন ১০০টির বেশি সিংহের বসবাস। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এতে ধারণা করা যায় সিংহের প্রাকৃতিক বাসস্থান সংকুচিত হয়ে আসছে। গুজরাটের গির বনাঞ্চল হচ্ছে এশিয়াটিক সিংহের একমাত্র প্রাকৃতিক আবাস। রাজ্যের বন বিভাগের হিসাব অনুসারে ২০২০ সালে এই বনে প্রায় ৪০০টি সিংহ ছিল। রাজ্যের বাকি অংশে প্রায় ২৭৫টি সিংহ রয়েছে, এর মধ্যে ১০৪টি গুজরাটের উপকূল-রেখার ৩০০ কিলোমিটার (১৮৬ মাইল) জুড়ে ছড়িয়ে, ছিটিয়ে রয়েছে। সংরক্ষণবাদীরা বলছেন, সিংহের এমন স্থানে বিচরণ স্বাভাবিক নয়। কিন্তু এমনটা হচ্ছে কারণ তাদের প্রাকৃতিক আবাসস্থলে থাকার আর জায়গা নেই। বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞ ড. নিশীথ ধারিয়া বলছেন, ‘সাধারণত, সিংহদের পক্ষে উপকূলীয় আবাসস্থলের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়া কঠিন, কিন্তু থাকার জায়গার অভাবের কারণে তাদের আর কোনো বিকল্প নেই।’ আরও পড়ুন: রেলে চাকরি পেল ১০ মাসের শিশু! একসময় গুজরাটজুড়ে বিস্তৃত ছিল সিংহ। কিন্তু প্রধানত শিকার ও খরার কারণে ২০ শতকের গোড়ার দিকে তাদের সংখ্যা কমতে কমতে এখন হাতে গোনা কয়েকটিতে এসে ঠেকেছে। এরপর বিপন্ন এ প্রাণীর সংরক্ষণ প্রচেষ্টা জোরদার করা হলে গির বনে সিংহের সংখ্যা বাড়তে থাকে। কিন্তু অনেক বিশেষজ্ঞ বহু বছর ধরে বলে আসছেন, গির অভয়ারণ্য স্থানীয় প্রাণীদের জন্য খুবই ছোট হয়ে গেছে। বন কর্মকর্তারা বলছেন, ১৯৯০-এর দশকে বনাঞ্চলে সিংহদের নিজেদের মধ্যে সীমানা নিয়ে লড়াই শুরু হওয়ার পর অনেক সিংহ সমুদ্র উপকূলের দিকে যেতে থাকে। রাজ্যের শীর্ষ বন কর্মকর্তা শ্যামল টিকাদার বলছেন, ‘একটি সিংহের বিচরণের জন্য সাধারণত প্রায় ১০০-বর্গ-কিলোমিটার (৩৮-বর্গ-মাইল) অঞ্চলের প্রয়োজন হয় এবং এই অঞ্চলের মধ্যে তিন-চারটি সিংহীও তাদের শাবক নিয়ে বসবাস করে।

তিনি আরও বলেন, শাবকটি প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে হয় সে এই অঞ্চলটি পুরানো সিংহের কাছ থেকে দখল করে নেয়। নাহলে পরিবার ছেড়ে একটি নতুন অঞ্চল খুঁজে বের করে।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply