Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » এবার ফিনিশ প্রধানমন্ত্রীর গায়কের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ নাচের ফিডিও ফাঁস




ব্যক্তিগত এক পার্টিতে ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সানা মারিনের উদ্দাম নাচ নিয়ে বিতর্ক বেড়েই চলেছে। এবার নতুন আরেকটি ভিডিও ফুটেজ ফাঁস হয়েছে। সেখানে তাকে হেলসিঙ্কির একটি ক্লাবে ফিনিশ গায়ক ওলাভি উসিভারতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে নাচতে দেখা যায়। ৩৬ বছর বয়সী মেরিন বৃহস্পতিবার একটি ভিডিও প্রকাশের পর থেকে ক্রমবর্ধমান সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছেন যেখানে তাকে একটি ব্যক্তিগত পার্টিতে কিছু সেলিব্রিটি বন্ধুদের সঙ্গে নাচতে দেখা গেছে। এর পর তিনি দুটি আলাদা বারে যান। সর্বশেষ ভিডিওতে, মারিনকে ৩৯ বছর বয়সী উসিভারতার সঙ্গে মাঝে মাঝে কাঁধ হাত দিয়ে নাচতে দেখা যায়। একটি সংক্ষিপ্ত মুহুর্তের জন্য, মিউজিশিয়ান সামনের দিকে ঝুঁকেছেন যেন মারিনের কানে ফিসফিস কিছু করে কিছু বলতে চান। তবে ম্যারিনের সমালোচকদের মতে তিনি মারিনের ঘাড়ে চুম্বন করার জন্য সামনে ঝুঁকেছেন। শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে, ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, তিনি ঘাড়ে চুমু খাওয়ার কথা মনে করতে পারেন না। ‘আমি নিজে সেই ভিডিওটি দেখেছি এবং আমার মনে হচ্ছে আমার সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে, অর্থাৎ এতে আমাকে কিছু বলা হচ্ছে।’ তিনি বলেন। ‘এটি সত্য, আমি বিবাহিত। আমি মনে করি- এই বিষয়গুলো আমার ব্যক্তিগত জীবনের সঙ্গে সম্পর্কিত এবং আমি সেগুলো সম্পর্কে আরও বিশদে মন্তব্য করতে যাচ্ছি না।’ তিনি যোগ করেছেন, ‘আমি মনে করি না যে ভিডিওটিতে অনুপযুক্ত কিছু ঘটেছে।’ শুক্রবার ভিডিওটিতে মন্তব্য করেছেন উসিভারতাও। তিনি ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘আমার এবং প্রধানমন্ত্রী সানা মারিনের মধ্যে সম্পর্কের প্রকৃতি সম্পর্কে জনসাধারণের মধ্যে জল্পনা-কল্পনা রয়েছে। আমি কেবল এ বিষয়ে বলতে পারি: আমরা বন্ধু এবং আমাদের মধ্যে অনুপযুক্ত কিছুই ঘটেনি।’ প্রথম ভিডিও প্রকাশের পর, মারিন বলেছিলেন- কিছু ফিনিশ সাংবাদিক ভিডিওটিতে মাদক সম্পর্কে মন্তব্য শুনেছেন বলে দাবি করার পরে তিনি শুক্রবার ড্রাগ পরীক্ষা করিয়েছেন। ভিডিওতে মারিনের নাচকে প্রধানমন্ত্রীর জন্য অনুপযুক্ত আচরণ বলে কেউ কেউ সমালোচনা করেছেন। তবে অনেকেই অনুষ্ঠান উপভোগ করা মারিনের ব্যক্তিগত অধিকার বলেও মত দিয়েছেন। ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মারিন। এর আগেও তিনি সরকারি বাসভবনে পার্টি করে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন। ২০১৯ সালে করোনা মহামারির ঝুঁকি জেনেও তিনি রাতভর পার্টি করায় সমালোচিত হয়েছিলেন। ওই সময় ফিনল্যান্ডের টিভি চ্যানেল এমটিভি থ্রি এক জরিপ চালায়। তাতে এক-তৃতীয়াংশের মত ছিল মারিন রাতে পার্টি করে মারাত্মক ভুল করেছেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply