Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » কলকাতার জাদুঘরের কাছে এলোপাথাড়ি গুলি, নিহত এক জওয়ান, আটক হামলাকারী




ভরসন্ধ্যায় কলকাতায় পার্কস্ট্রিটের জাদুঘরের কাছে চলল গুলি। সিআইএসএফ জওয়ানকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ার অভিযোগ উঠেছে। কলকাতায় পার্ক স্ট্রিটের অদূরে জাদুঘরের কাছে চলল গুলি। জাদুঘরের কাছে সিআইএসএফ (কেন্দ্রীয় শিল্প নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনী) ব্যারাক লক্ষ্য করে গুলি চলার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ, কর্তব্যরত সহকর্মীদের নিশানা করে কেন্দ্রীয় বাহিনীর এক জওয়ান গুলি চালিয়েছেন। ঘটনায় এক জনের মৃত্যু হয়েছে বলে এসএসকেএম হাসপাতাল সূত্রে খবর। ওই সূত্র মারফতই জানা গিয়েছে, গুলি চালনার ঘটনায় আর এক জন আহত হয়েছেন। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁকে ট্রমা বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়েছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে কলকাতা বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়। পুুলিশ সূত্রে খবর, প্রায় দেড় ঘণ্টার অপারেশন শেষে আটক করা হয় হামলাকারীকে। পরে গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা নাগাদ কিট স্ট্রিটে এমএলএ হস্টেলের উল্টো দিকে ভারতীয় জাদুঘরের গেটের কাছে ঘটনাটি ঘটেছে। প্রায় দেড় ঘণ্টা পর রাত ৮টা নাগাদ ওই হামলাকারীকে নিরস্ত্র করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। হামলাকারীর নাম অক্ষয়কুমার মিশ্র। তিনি ওড়িশার বাসিন্দা। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, একে-৪৭ বন্দুক দিয়ে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চলেছে। সহকর্মী জওয়ানদের লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়েছে। সূত্রের দাবি, ঘটনায় দু’জন আহত হলে তাঁদের এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই এক জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর হাসপাতাল সূত্রে। নিহতের নাম রঞ্জিত সরঙ্গি। তিনিও ওড়িশার বাসিন্দা। আহত জওয়ানের নাম সুবীর ঘোষ। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছন পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্তারা। কলকাতার পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েলও আসেন। আসেন জয়েন্ট সিপি (অপরাধ) মুরলীধর শর্মাও।বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট পরিহিত পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয় সেখানে। এর পরেই বিশাল কম্য়ান্ডো বাহিনী ঢোকে জাদুঘরের ভিতরে। নিয়ে আসা হয় অ্যাম্বুল্যান্সও। সিপি বলেন, ‘‘এক জন জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। এক জন আহত। অন্তত ১৫ রাউন্ড গুলি চলেছে। কম্যান্ডো এনে অপারেশন চালানো হয়েছে। হামলাকারীকে বুঝিয়ে আত্মসমর্পণ করানো হয়েছে। আটক করার পর তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply