Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সহিংস হামলার আশঙ্কা করছে এফবিআই ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটি




যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সহিংস হামলার আশঙ্কা করছে এফবিআই ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বাড়িতে অভিযানের ঘটনাকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সহিংস হামলার আশঙ্কা করছে এফবিআই ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটি। মার্কিন আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে এরই মধ্যে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এদিকে ট্রাম্পের বাড়িতে চালানো অভিযানের হলফনামা প্রকাশের আহ্বান জানিয়েছেন রিপাবলিকান আইনপ্রণেতারা। খবর রয়টার্স।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের বাড়িতে গোয়েন্দা সংস্থার নজিরবিহীন তল্লাশির ঘটনার রেশ এখনো কাটেনি। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার (১৫ আগস্ট) মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সহিংসতা বাড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এরই মধ্যে মার্কিন আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি। স্থানীয় গণমাধ্যমে এমন খবর প্রচারের পর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি কর্তৃপক্ষ। যদিও বিবৃতিতে যেসব বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে তা নির্দিষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি। আরও পড়ুন: পারমাণবিক অস্ত্রের গোপন নথি খুঁজতে ট্রাম্পের বাসায় তল্লাশি: ওয়াশিংটন পোস্ট তবে মার্কিন গণমাধ্যমের দাবি, ট্রাম্পের বাড়িতে অভিযানের নির্দেশদাতা বিচারক, বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও সরকারি কর্মকর্তারা হামলার শিকার হতে পারেন বলে সতর্ক করেছে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি। গণমাধ্যমগুলো আরও দাবি করছে, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য ও সরকারি কর্মকর্তাদের ইতোমধ্যে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়েছে। এসব হুমকি অনলাইনে দেয়া হচ্ছে বলেও জানানো হয়। এদিকে ট্রাম্পের ফ্লোরিডার বাড়িতে কিসের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়েছে তা জনগণের কাছে উন্মোচনের দাবি জানিয়েছেন রিপাবলিকান আইনপ্রণেতারা। তারা বলছেন, নজিরবিহীন এই অভিযান পরিচালনার জন্য সুনির্দিষ্ট তথ্য-উপাত্ত ও অভিযোগ থাকা প্রয়োজন। আরও পড়ুন: বাসায় গোপনীয় নথি, ফেঁসে যাচ্ছেন ট্রাম্প গত ৮ আগস্ট সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের ফ্লোরিডার বাড়িতে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কাগজের পাশাপাশি পারমাণবিক অস্ত্রের অতি গোপনীয় নথি খুঁজতে অভিযান চালিয়েছিল ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই)।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply