Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » চীনের সামরিক জাহাজ পাঠানো নিয়ে ‘বেকায়দায়’ শ্রীলঙ্কা




ভারতের তীব্র চাপের মুখে শ্রীলঙ্কায় চীনা একটি সামরিক জাহাজের পরিকল্পিত সফর অনির্দিষ্টকালের জন্য বিলম্বিত করতে বলেছে কলম্বো। শনিবার (৬ আগস্ট) সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। রিফিনিটিভ ইকনের শিপিং ডেটা থেকে দেখা যায়, গবেষণা এবং জরিপ জাহাজ ‘ইউয়ান ওয়াং ৫’ চীনের নির্মিত এবং লিজ নেয়া হাম্বানটোটার পথে রয়েছে। ১১ আগস্ট জাহাজটির শ্রীলঙ্কায় পৌঁছানোর কথা। এমন এক সময় চীনের সামরিক এ জাহাজটি শ্রীলঙ্কায় পাঠানো হচ্ছিল, যখন সাত দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটের মুখে রয়েছে দেশটি। এটিকে গবেষণা এবং জরিপ জাহাজ হিসেবে বর্ণনা করা হলেও সংবাদমাধ্যম সিএনএন-নিউজ ১৮ বলছে, চীনের ওই জাহাজটি মূলত দ্বৈত-ব্যবহারের একটি গুপ্তচর জাহাজ, যা মহাকাশ এবং স্যাটেলাইট ট্র্যাকিংয়ের জন্য নিযুক্ত। এছাড়া আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণে নির্দিষ্ট ব্যবহার রয়েছে এই জাহাজের। এসবের মধ্যেই শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট রনিল বিক্রমাসিংহে শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাজনৈতিক দলের নেতাদের আশ্বস্ত করেছেন যে চীনা জাহাজের বিতর্কিত সফরটি আগের পরিকল্পনা অনুযায়ী এগোবে না। চীনের নির্মিত হাম্বানটোটা বন্দরটি সামরিক ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করতে পারে বেইজিং। আর ভারতের উদ্বেগ মূলত সেখানেই। দেড় বিলিয়ন ডলারে নির্মিত এ বন্দরটি এশিয়া থেকে ইউরোপের প্রধান শিপিং রুটের কাছাকাছি অবস্থিত। আরও পড়ুন: শ্রীলঙ্কায় সামরিক জাহাজ পাঠাচ্ছে চীন, ক্ষুব্ধ ভারত বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) এক সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ের সময় ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, চীনা জাহাজের এ পরিকল্পিত সফর পর্যবেক্ষণ করছে দিল্লি। ভারত তার নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক স্বার্থ রক্ষা করবে বলেও মন্তব্য করেন ওই কর্মকর্তা। এর আগে চীনের জাহাজ পাঠানো নিয়ে শ্রীলঙ্কা সরকারের কাছে মৌখিক প্রতিবাদ জানায় ভারত। পরে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বেইজিং আশা করে, সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলো সমুদ্রে বেইজিংয়ের বৈজ্ঞানিক গবেষণা কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে দেখবে এবং বৈধ সামুদ্রিক কার্যক্রমে হস্তক্ষেপ করা থেকে বিরত থাকবে।’ দুই বছর সীমান্তে সশস্ত্র সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন ভারতীয় এবং চারজন চীনা সৈন্য নিহত হওয়ার পর থেকেই দিল্লি-বেইজিংয়ের মধ্যে উত্তেজনাপূর্ণ সম্পর্ক বিরাজ করছে। ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে ২০১৭ সালে গুরুত্বপূর্ণ হাম্বানটোটা বন্দরের বাণিজ্যিক কার্যক্রম ৯৯ বছরের লিজে একটি চীনা কোম্পানির কাছে হস্তান্তর করে শ্রীলঙ্কা সরকার। এর আগে ২০১৪ সালে চীনের একটি সাবমেরিন ও যুদ্ধজাহাজ কলম্বোতে ডক করার অনুমতি দেয় শ্রীলঙ্কা, যা ক্ষুব্ধ করেছিল ভারতকে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply