Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » গর্দভ’দের এড়াতে যে পথ বেছে নিয়েছিলেন আর্সেনাল গোলকিপার




ি আর্সেনালে ৩২ নম্বর জার্সি পরতেন অ্যারন রামসডেল। বার্নড লেনো ফুলহামে যোগ দেওয়ার পর আর্সেনালের গোলপোস্ট সামলানোর ভার এখন তাঁর কাঁধে। এ কারণে ১ নম্বর জার্সিটা পেয়ে গেছেন। আর্সেনাল ইতিমধ্যেই ঘোষণা দিয়েছে, আগামী মৌসুমে লেনোর উত্তরসূরি হতে যাচ্ছেন অ্যারন রামসডেল। আর্সেনালে একসময় রামসডেলের পথচলা এত সহজ ছিল না। বিশেষ করে সমর্থকেরা তাঁকে ভালোভাবে গ্রহণ করেননি। গানার সমর্থকদের কাছ থেকে হুমকিও পেয়েছিলেন। তাই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করা বন্ধও করে দিয়েছিলেন। এখন অবশ্য ফিরেছেন। ২০২১–২২ মৌসুমে প্রায় ২৮ মিলিয়ন ইউরোয় শেফিল্ড ইউনাইটেড থেকে আর্সেনালে যোগ দেন রামসডেল। এত দামের কারণেই তাঁর প্রতি বিরাগভাজন হয়ে পড়েন সমর্থকেরা। অনেকের ধারণা ছিল, র‌ামসডেল এত মূল্য পাওয়ার যোগ্য নয়। দৃশ্যপট ঘুরতে সময় লাগেনি। প্রথম মৌসুমে দারুণ পারফর্ম করে সমর্থকদের চক্ষুশূল থেকে হয়ে ওঠেন ‘ঘরের ছেলে’। তবু গানার সমর্থকদের শুরুর দিনগুলোর ব্যবহার ভুলতে পারেননি এই গোলকিপার। সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘শুরুতে বেশ কঠিন ছিল। আমাকে সই করানো নিয়ে আশপাশে অনেক নেতিবাচক কথা শুনেছি, অনলাইনে অনেক গাধাই আমাকে নিতে মানা করেছিল। ঠিক হত্যার হুমকি নয়, তবে তারা বলত, আমি কোথায় থাকি, সেটা তারা জানে। আমাকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করত।’ রামসডেল নিজেকে প্রমাণের অপেক্ষায় ছিলেন। সমর্থকদের বিদ্রূপ গায়ে না মেখে সামর্থ্যের পুরোটা ঢেলে দিয়েছেন মাঠে। কোচ ও টিমমেটদের মন জয় করার চেষ্টা করেছেন, ‘আমি খুব দ্রুতই নিজের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম (অ্যাকাউন্ট) বন্ধ করে দিই। আমার জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বন্ধুদের এবং সমর্থকদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম। তবে একটা সীমা থাকা প্রয়োজন, কে আমার পর্যন্ত পৌঁছাতে পারবে। আমার শুধু কোচ, কোচিং স্টাফ এবং আমার সতীর্থদের মুগ্ধ করা প্রয়োজন। আমি যদি তাদের বিশ্বাস অর্জন করতে পারি তাহলে সমর্থকদের বিশ্বাসও অর্জন করতে পারব






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply