Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » লেভানডোস্কির জোড়া গোলে বিধ্বস্ত সোসিয়েদাদ




এমবাপ্পের হ্যাটট্রিক, নেইমারের জোড়া গোলে উড়ে গেল লিলে লা লিগায় নিজের দ্বিতীয় ম্যাচেই গোলের দেখা পেলেন রবার্ট লেভানডোস্কি। পোলিশ তারকার জোড়া গোলে রিয়াল সোসিয়েদাদকে ৪-১ গোল ব্যবধানে বিধ্বস্ত করেছে বার্সেলোনা। রোববার (২১ আগস্ট) রাতের ম্যাচে প্রতিপক্ষের মাঠে লেভানডোস্কির জোড়া গোল ছাড়াও বার্সার হয়ে একটি করে গোল করেন উসমান দেম্বেলে ও আনসু ফাতি। সোসিয়েদাদের হয়ে একটি গোল শোধ করেন অ্যালেক্সান্দার ইসাক। লিগে নতুন মৌসুমের শুরুতেই অবশ্য হোঁচট খায় বার্সেলোনা। রায়ো ভায়েকানোর বিপক্ষে একাধিক আক্রমণ করেও হতাশ হতে হয় বায়ার্ন থেকে চলতি মৌসুমে ক্যাম্প ন্যু-তে যোগ দেয়া গোল মেশিন লেভানডোস্কিকে। হতাশ করেন ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার রাফিনিয়াও। প্রথম ম্যাচে গোল না পাওয়ার সেই আক্ষেপ সোসিয়েদাদের বিপক্ষে মাঠে নেমেই মেটান লেভানডোস্কি। ম্যাচ শুরুর প্রথম মিনিটেই প্রতি আক্রমণে গিয়ে আলেজান্দ্রো বালদে বল নিয়ে প্রতিপক্ষের ডি বক্সে ঢুকে পাস দেন লেভার উদ্দেশে। পেনাল্টি এরিয়া থেকে নিখুঁত শটে বল জালে জড়ান পোলিশ তারকা। নিজের ৩৪তম জন্মদিনে বার্সার হয়ে অভিষেক গোলটা লেভানডোস্কি উদযাপন করেন পাখির মতো ডানা মেলেই। তবে বার্সাকে খুব বেশিক্ষণ লিড ধরে রাখতে দেয়নি সোসিয়েদাদ। আক্রমণে গিয়ে প্রতিপক্ষের ডি বক্সে ঢুকে ইসাক আলতো ছোঁয়ায় বার্সা গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে বল পাঠান জালে। ম্যাচের ২৪ মিনিটে লিডে ফেরার চেষ্টায় ফেররান তোরেসের নেয়া শট থাকেনি লক্ষ্যে। তিন মিনিট পর সোসিয়েদাদের মেরিনোর ডি বক্সের ভেতরে নেয়া শট ফিরিয়ে দেন বার্সা গোলরক্ষক টের স্টেগেন। ৪৫ মিনিটে আরও একটি সুযোগ মিস করে সোসিয়েদাদ। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত মিনিটে স্বাগতিক গোলরক্ষক রেমিরোর নৈপুণ্যে গোল হাতছাড়া হয় জাভির। বিরতির পর বার্সা নিজের স্বরূপে ফেরে। জাভি হার্নান্দেজের মন্ত্র কাজে লাগিয়ে গোল উৎসবে মেতে ওঠে কাতালানরা। ম্যাচের ৬৬ মিনিটে দলকে লিড এনে দেন উসমান দেম্বেলে। বাম প্রান্তে আনসু ফাতির বাড়ানো শট নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি বক্সে ঢুকে পড়েন দেম্বেলে। সেখান থেকে জোরালো শটে বল পাঠান জালে। দুই মিনিট পরই দলকে ৩-০ গোলের লিড এনে দেন লেভানডোস্কি। এবারও অ্যাসিস্টের ভূমিকায় ফাতি। ডি বক্সের বাইরে থেকে আসা বল নিজের নিয়ন্ত্রণে না নিয়েই পোলিশ তারকার উদ্দেশে পাস দেন ফাতি। জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন লেভানডোস্কি। সোসিয়েদাদের কফিনে বার্সেলোনা শেষ পেরেকটি ঠুকেন ম্যাচের ৭৯ মিনিটে। স্বাগতিক দলের ডিফেন্ডাররা বল ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে ডি বক্সে থাকা ফাতির নাগালে চলে যায়। অরক্ষিত স্প্যানিশ তারকা পেনাল্টি এরিয়া থেকে নিখুঁত শটে বল জালবন্দি করেন। মৌসুমের প্রথম ম্যাচে ধাক্কা খাওয়ার পর, দ্বিতীয় ম্যাচে ৪-১ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে জাভির শিষ্যরা। ২ ম্যাচে এক জয় ও এক ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের পাঁচে উঠে এল লেভানডোস্কিরা। ২ ম্যাচে শতভাগ জয় নিয়ে শীর্ষে ভিয়া রিয়াল। সমান সমীকরণে দুইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply