Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » মোংলা বন্দরে পৌঁছল বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতুর মেশিনারির প্রথম চালান




বঙ্গবন্ধু রেলসেতু নির্মাণ প্রকল্পের কাঠামো মেশিনারি পণ্যের প্রথম চালানটি মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছেছে। শনিবার (৬ আগষ্ট) বিকেল সাড় ৫টায় দক্ষিণ কোরিয়া পতাকাবাহী 'এম ভি উহিয়ান হোপ' জাহাজটি এসব পণ্য নিয়ে বন্দরের ৭ নম্বর জেটিতে নোঙ্গর করে। এসময় বন্দরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তসহ জাহাজটির সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাষ্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতুর ফ্যাবরিকেটেড স্টিল ট্রাস মেম্বার উইত্থ লেটারাল ফোর্স সাপোর্টের (কাঠামো মেশিনারি পণ্য) প্রথম চালান মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছায়। এই পণ্য নিয়ে আসা বিদেশি জাহাজ 'এম ভি উহিয়ান হোপ' গত ২৫ জুলাই ভিয়েতনামের হাইফং বন্দর ত্যাগ করে। তিনি বলেন, প্রথম চালানের মধ্যে রয়েছে ২৬৭ প্যাকেজের ২৩৫০ মেট্রিকটন মেশিনারি পণ্য। যা 'আই এইচ আই ইনফেষ্টাকচার এশিয়া লিমিটেড' কোম্পানি উৎপাদন করেছে। এম ভি উহিয়ান হোপ জাহাজের স্থানীয় শিপিং এজেন্টে 'হক এন্ড সন্সের' খুলনার ব্যবস্থাপক মো. শওকত আলী বলেন, ভিয়েতনাম থেকে আসা এসব পণ্য আগামী ৯ আগষ্টের মধ্যে খালাস করা হবে। এরপর সড়ক পথ দিয়ে পদ্মা সেতু হয়ে সেগুলো সিরাজগঞ্জের যমুনা নদীর পাড়ে নির্মাণাধীণ বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতুর কাছে পৌঁছাবে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, দেশের মেগা প্রকল্পগুলোর মধ্যে অন্যতম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতু। যেটির বাস্তবায়ন এখন দৃশ্যমান। এই সেতুর মেশিনারি পণ্যের প্রথম চালান মোংলা বন্দরে আমদানি হওয়ায় সক্ষমতার প্রমাণ দেয়। এছাড়া পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় মোংলা বন্দরের সক্ষমতাকে অধিকতর কাজে লাগানো সম্ভব হচ্ছে উল্লেখ করে মোংলা বন্দরের চেয়ারম্যান আরও বলেন, এই বন্দরের দূরত্ব অনেকটা কম হওয়ায় মোংলা বন্দর ব্যবহারে আমদানি ও রপ্তানিকারকদের আগ্রহ বেড়েছে। বন্দর ব্যবহারকারীদের সুবিধার জন্য কর্তৃপক্ষ সব ধরনের ব্যবস্থা করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আগামী দুই বছরের মধ্যে এই বন্দর আন্তর্জাতিক অন্যান্য বন্দরের পর্যায়ে পৌঁছাবে। সেই সাথে চট্রগ্রাম বন্দরের বিকল্প বন্দর হিসেবে সরাসরি অর্থনীতিতে আরও ব্যাপক আকারে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে। প্রসঙ্গত, যমুনা নদীর ওপর বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতুর ৩'শ মিটার উজানে নির্মাণ হচ্ছে দেশের সর্ববৃহৎ এই রেল সেতু। মোট ৫০টি পিলারের ওপর গড়ে উঠবে ৪ দশমিক ৮ কিলোমিটার ডুয়েল গেজ ডাবল ট্রাকের এই সেতু।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply