Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » তাইওয়ানের সীমা অতিক্রম করল চিনের যুদ্ধবিমান! এবার কি তবে তাইওয়ান আক্রমণ করবে চিন?




তাইওয়ানের সীমা অতিক্রম করল চিনের যুদ্ধবিমান! এবার কি তবে তাইওয়ান আক্রমণ করবে চিন? রাশিয়া যেমন ইউক্রেনকে তাদের অংশ বলে মনে করে চিনও সেরকম মনে করে তাইওয়ান তাদেরই অংশ।

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: তাইওয়ান সন্নিহিত এলাকায় চিনের সামরিক তৎপরতা অব্যাহত। দ্বীপরাষ্ট্রটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে, রবিবার তাইওয়ানের আশেপাশে অন্তত ১২টি চিনা যুদ্ধবিমান এবং ৫টি চিনা রণতরী শনাক্ত করা হয়েছে। তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আরও দাবি, ৫টি চিনা যুদ্ধবিমান এদিন তাইওয়ান প্রণালীর মধ্যরেখা অতিক্রম করেছে। কী এই মধ্যরেখা ? আন্তর্জাতিক জল ও আকাশসীমা আইন মোতাবেক, এই মধ্যরেখাকে আসলে চিন ও তাইওয়ানের বিভাজন রেখা। অন্তত সেই ভাবেই এই রেখা দেখা হয়। কিন্তু চিন যেহেতু তাইওয়ানকে নিজেদের ভূখণ্ডের অংশ বলেই দাবি করে, সেহেতু তারা কোনও দিনই ওই বিভাজন রেখাকে মানেনি। এখনও মানে না। কিন্তু তাইওয়ানের দিক থেকে রেখাটি গুরুত্বপূর্ণ এবং স্পর্শকাতর। ফলে ৫টি চিনা যুদ্ধবিমান এই মধ্যরেখা অতিক্রম করাটা তাদের কাছে উদ্বেগের। আমেরিকার হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইপেই সফরের পরেই তাইওয়ানকে চতুর্দিক থেকে ঘিরে ধরেছিল চিন। এবং তাইওয়ান প্রণালীতে সামরিক মহড়া চালিয়েছিল চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মি। এর পর গত রবিবার আমেরিকান কংগ্রেসের কিছু সদস্য ফের তাইওয়ান সফরে আসেন। আর তার পরেই চলতি সপ্তাহের গোড়ায় ফের সামরিক মহড়া চালায় চিন। তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক আগেই জানিয়েছে, মহড়া চলাকালীন চিনের ইস্টার্ন থিয়েটার কমান্ড নতুন করে অন্তত ৩০টি যুদ্ধবিমান ও পাঁচটি জাহাজ তাইওয়ান প্রণালীতে মোতায়েন করেছে। যা নিয়ে প্রবল ক্ষুব্ধ দ্বীপরাষ্ট্রের সরকার। এদিকে, তাইওয়ানকে ঘিরে চিনের এই উসকানিমূলক সামরিক মহড়ার মধ্যে তাইওয়ানের অধিকাংশ জনগণ শান্ত থাকলেও, একাংশের তাইওয়ানিজ সাধারণ মানুষ যুদ্ধ-সহ সবরকম পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিয়েছেন বলেই খবর। আসলে রাশিয়া যেমন ইউক্রেনকে তাদের অংশ বলে মনে করে চিনও সেরকম মনে করে তাইওয়ান তাদেরই অংশ। তাই গত কয়েক দশক ধরেই নানা চিনা হুমকির মুখে পড়েছে তাইওয়ান। তবে এখনও পর্যন্ত দ্বীপরাষ্ট্রটি দখলের জন্য শক্তি প্রয়োগ করেনি চিন। কিন্তু তাইওয়ানিজ জনতা মনে করছে ইদানীং চিনা হুমকি আগের তুলনায় অনেক বেশি। তাই তাঁরা মনে মনে প্রমাদ গুণছেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply