Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » প্রথমবার চীন উপকূলের কাছে ড্রোন ভূপাতিত করল তাইওয়ান




তাইওয়ান প্রথমবারের মতো চীন উপকূলের কাছে নিজেদের আকাশসীমায় একটি ড্রোন প্রবেশ করায় সেটি ভূপাতিত করেছে। তাইওয়ানের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এমন অনুপ্রবেশের ঘটনায় কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারির পর বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) ড্রোনটি ভূপাতিত করা হয়। খবর আল জাজিরা। এক বিবৃতিতে তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে কিনমেন দ্বীপের কাছের আকাশসীমায় অনুপ্রবেশ করে একটি ড্রোন। সেটিকে গুলি করে নামানো হয়েছে। ঐ অঞ্চলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কড়া নজর রাখা হচ্ছে। মূল চীনা ভূখণ্ডের কাছে অবস্থিত কিনমেন দ্বীপ তাইওয়ানের নিয়ন্ত্রণাধীন। সেখানে শক্ত ঘাঁটি রয়েছে তাইওয়ানের সেনাবাহিনীর। ফলে কৌশলগত দিক থেকে এর অবস্থান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্লেষকদের মতে, সাগর পেরিয়ে তাইওয়ানে হামলা চালাতে গেলে চীনা বাহিনীর গতিবিধি সম্পর্কে কিনমেন দ্বীপ থেকে আগাম সতর্কতা পেয়ে যাবে তাইপে। তাই যুদ্ধের পরিস্থিতিতে সবার আগে ঐ দ্বীপটি দখল করতে চাইবে চীনা বাহিনী। আরও পড়ুন: তাইওয়ান প্রণালী ঘিরে চীন ‘সামরিকীকরণ’ করছে: ভারত তাওয়ানের সরকারের তীব্র আপত্তির পরও দ্বীপটিকে নিজেদের বিচ্ছিন্নতাবাদী প্রদেশ হিসেবে দাবি করে চীন। গত মাসের শুরুতে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফরের পর দ্বীপটি ঘিরে বড় ধরনের সামরিক মহড়া চালিয়েছে চীন। তাইওয়ান দাবি করেছে, এসব মহড়ায় চীন আক্রমণের অনুশীলন করেছে। তাইওয়ান বলেছে, তারা উসকানি বা উত্তেজনা বাড়ানোর মতো পদক্ষেপ নেবে না। কিন্তু দ্বীপটিতে চীনা ড্রোনের নিয়মিত অনুপ্রবেশে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে আসছে। তবে তাইওয়ানের এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে চীন। আরও পড়ুন: ড্রোন লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে চীনকে তাইওয়ানের ‘সতর্কবার্তা’ তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ড্রোনটি ক্ষুদ্র দ্বীপ লিয়নে তাদের সংরক্ষিত আকাশসীমায় প্রবেশ করেছে। দ্বীপটিতে মোতায়েনকৃত সেনারা ড্রোনটিকে সতর্ক করার চেষ্টা করলেও কোনও প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। ফলে এটিকে গুলি করে ভূপাতিত করা হয়। এর ধ্বংসাবশেষ সাগরে পড়েছে। এর আগে গেল মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) একটি ড্রোনকে লক্ষ্য করে সতর্কতামূলক গুলিবর্ষণ করা হয়েছিল।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply