Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » টুর্নামেন্টের ‘ট্রফি ভাঙা’ সেই ইউএনওকে বদলি




টুর্নামেন্টের ‘ট্রফি ভাঙা’ সেই ইউএনওকে বদলি বান্দরবানে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ক্ষিপ্ত হয়ে ট্রফি ভাঙা আলীকদম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মেহরুবা ইসলামকে ঢাকা বিভাগে বদলি করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে তাকে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে ন্যস্ত করা হয়েছে। সেখান থেকে কোনো একটি উপজেলায় তাকে পদায়ন করতে বলা হয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাঠ প্রশাসন-২ শাখার জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব শেখ শামছুল আরেফীন স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়, ‘বান্দরবানের আলীকদম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের অধীন ন্যস্ত করা হলো। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে ন্যস্ত কর্মকর্তাকে পদায়নকৃত অধিক্ষেত্রে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্ব পালনের জন্য ১৯৯৮ সালের ফৌজদারি কার্যবিধির ১৪৪ ধারার ক্ষমতা অর্পণ করা হলো।’ তবে জনস্বার্থে এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকরের কথা বলা হলেও কখন তাকে ঢাকায় যোগদান করতে হবে, তা বলা হয়নি। আরও পড়ুন: টুর্নামেন্টের ট্রফি আছড়ে ভাঙলেন ইউএনও (ভিডিও) বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সুরাইয়া আক্তার সুইটি গণমাধ্যমকে বলেন, গতকাল (সোমবার) মেহরুবা ইসলামের বদলির আদেশ পাওয়া গেছে। এটি সরকারের স্বাভাবিক বদলির আদেশ। গত ২৩ সেপ্টেম্বর বান্দরবানের আলিকদম উপজেলার চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের মানচাই হেডম্যানপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ট্রফি ভাঙার ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওইদিন বিকেলে চৈক্ষ্যং ইউনিয়নে চলমান আন্তঃইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলিকদমের ইউএনও মেহরুবা ইসলাম। খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময় দর্শকসারি থেকে বাজে মন্তব্য করায় মেহরুবা ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে খেলার ট্রফি আছড়ে ভেঙে ফেলেন। আরও পড়ুন: স্কুল পরিদর্শনে ইউএনও, ছিলেন না কোনো শিক্ষক-শিক্ষার্থী স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা আরও জানান, ট্রফিটি আছড়ে ছুড়ে ফেলার পর সেখানে হট্টগোল বেধে গেলে ইউএনও চলে যান। ঘটনার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এবং ট্রফি ছুড়ে ফেলে দেয়ার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনার পর থেকে ইউএনওকে প্রত্যাহারের দাবি জানান এলাকাবাসী।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply