Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » সৌরভ, জয়ের ভাগ্য ঝুলে ছিল আড়াই বছর ধরে! কোন পথে বিসিসিআইয়ের মসনদে থাকলেন তাঁরা




সৌরভ, জয়ের ভাগ্য ঝুলে ছিল আড়াই বছর ধরে! কোন পথে বিসিসিআইয়ের মসনদে থাকলেন তাঁরা ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল। মাঝে কোভিড অতিমারির জেরে ব্যাহত হয় আদালতের কাজ। অবশেষে বুধবার সেই মামলার রায় হল। বিসিসিআইয়ের মসনদে আরও তিন বছর সৌরভ-জয়। বিসিসিআইয়ের মসনদে আরও তিন বছর সৌরভ-জয়। —ফাইল চিত্র

সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, ২০২৫ সাল পর্যন্ত বিসিসিআইয়ের সভাপতি পদে থাকতে পারবেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। বোর্ড সচিব হিসাবে জয় শাহের মেয়াদও ২০২৫ সাল পর্যন্ত। কয়েক দিন বা কয়েক মাস নয়, প্রায় আড়াই বছর ধরে সুপ্রিম কোর্টে চলেছে এই মামলা। কখনও মনে হয়েছে, এই বুঝি দেশের শীর্ষ আদালতের নির্দেশে ভারতীয় ক্রিকেটের প্রশাসনিক পদ ছাড়তে হবে সৌরভদের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটা হয়নি। · ২০১৯ সালে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি হন সৌরভ। বোর্ডের সচিব হন জয়। তার আগে ২০১৫ সালে সৌরভ বাংলার ক্রিকেট সংস্থার সভাপতি হয়েছিলেন। অর্থাৎ রাজ্য ক্রিকেট সংস্থায় চার বছর কাটানোর পরে দেশের ক্রিকেট সংস্থায় যান তিনি। ঠিক একই ভাবে গুজরাত ক্রিকেট সংস্থায় চার বছর থাকার পরে বিসিসিআইয়ের সচিব হন জয়। · লোঢা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী, কোনও ব্যক্তি এক টানা সর্বোচ্চ ছ’বছর ক্রিকেট প্রশাসনে থাকতে পারবেন। ছ’বছর পূর্ণ হয়ে গেলে তাঁকে তিন বছরের জন্য কুলিং অফ পিরিয়ডে থাকতে হবে। · লোঢা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী বিসিসিআইয়ে সৌরভ ও জয়ের মেয়াদ ছিল ২০২১ সাল পর্যন্ত। তার পরে দু’জনকেই কুলিং অফ পিরিয়়়ডে যেতে হত। · ২০১৯ সালের ১ ডিসেম্বর বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভায় একটি প্রস্তাব আনা হয়। সেখানে বলা হয়, লোঢা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী কুলিং অফ পিরিয়ডে কিছু সংশোধনী আনা হবে। সেই প্রস্তাবে রাজি হন বোর্ডের আধিকারিকরা। তবে সেই প্রস্তাবকে কার্যকর করতে হলে দরকার ছিল সুপ্রিম কোর্টের মান্যতা। · ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল। বোর্ডের তরফে আবেদন করা হয়, কোনও বোর্ডকে ভাল ভাবে চালাতে গেলে প্রশাসকদের প্রয়োজনীয় সময় দেওয়া উচিত। কিন্তু সৌরভরা সেই সময় পাননি। তাই লোঢা কমিটির সুপারিশে বদলের আবেদন করা হয় বোর্ডের তরফে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply